সর্বশেষ আপডেট : ৩ ঘন্টা আগে
রবিবার, ২৪ মার্চ ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ চৈত্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ক্রুদের মানসিকভাবে পরাস্ত করে ফেলেন পলাশ

নিউজ ডেস্ক:: চট্টগ্রামের শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বাংলাদেশ বিমানের উড়োজাহাজ ‘ময়ূরপঙ্খী’ ‘ছিনতাইচেষ্টার’ ঘটনা তদন্তে আমলে নেয়ার মতো কিছু পাচ্ছেন না তদন্ত কমিটির সদস্যরা। তদন্ত কমিটির সদস্যরা বলেন, বিমানের ওই ফ্লাইটে পলাশের আচরণ মস্তিষ্ক বিকৃত পাগলের মতো ছিল। বিমান ছাড়ার ২০ মিনিট পর সে পাগলামি শুরু করে। বাকি ২০ মিনিট বিমানটি চট্টগ্রামে অবতরণ করতে পারত। এই ২০ মিনিট তাকে (পলাশ) কাউন্সিলিং করে কালক্ষেপণ করানো যেত। কিন্তু ঠিক কী কারণে বিমানের কেবিন ক্রুরা তাকে এ সময় যথাযথ কাউন্সিলিং করতে পারেননি তা বোধগম্য নয়।

বিষয়টি এভিয়েশন বিশেষজ্ঞদের কাছেও ভাবনার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাদের মতে, মুখে পাগলের প্রলাপ করেই ক্রুদের মানসিকভাবে পরাস্ত করেন পলাশ।

এ বিষয়ে এভিয়েশন এক্সপার্ট ও বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের সাবেক পর্ষদ সদস্য কাজী ওয়াহিদুল আলম বলেন, ‘আমাদের ক্রুদের পৃথিবীর নামি দামি এয়ারলাইন্সের মতো হওয়ার সুযোগ কিছুটা কম। পৃথিবীর খুব কম এয়ারলাইন্সে পঞ্চাশ বা চল্লিশোর্ধ্বদের রাখা হয়। নানা কারণে আমরা এই জায়গাটিতে ব্যর্থ। এছাড়া ইনফ্লাইটে এ ধরনের ঘটনা মোকাবেলায় হুলুস্থুল না ঘটিয়ে ভারসাম্যপূর্ণ পরিস্থিতির অবতারণা করাই প্রকৃত পেশাদারিত্ব।’

তদন্ত কমিটির এক সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ‘পলাশ আহমেদের বিষয়ে তদন্ত কমিটির কাছে আসা তথ্য-উপাত্ত ও প্রাপ্ত আলামতে দেখা যায়, পলাশের মতো ‘ছিনতাইচেষ্টাকারী’র আচরণ বা কথাবার্তায় মনে হচ্ছে ওসব ছিল পাগলের প্রলাপ। মুখে বিমান ছিনতাইয়ের কথা বললেও তার কাছে এত বড় ঘটনা ঘটানোর কোনো উপকরণ মেলেনি। যে কারণে তদন্তকারী কর্মকর্তা অনেক কিছুই বুঝে উঠতে পারছেন না।’

এদিকে এ ঘটনার পর ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে দায়িত্বরত ২৩ জন কর্মকর্তা-কর্মচারীকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) শীর্ষ নিরাপত্তাকর্মীসহ ১০ জনকে কোনো কাজ করতে দেখা যাচ্ছে না। ধারণা করা হচ্ছে, তাদের সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

অন্যদিকে, মন্ত্রণালয়ের গঠিত তদন্ত কমিটি আজ সোমবার পাঁচ কর্মদিবসে প্রতিবেদন দাখিল করার কথা থাকলেও তা হচ্ছে না। আরও দুই কর্মদিবস সময় বাড়ানো হয়েছে। আগামী মঙ্গলবার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের কথা রয়েছে।

এ বিষয়ে বেবিচকের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এম নাইম হাসান বলেন, ‘ঘটনার রহস্য উদ্ঘাটনের চেষ্টা চলছে। সংশ্লিষ্টদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। দু’একদিনের মধ্যে সব জানা যাবে বলে আশা করছি।’

উল্লেখ্য, রোববার (২৪ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে ঢাকা থেকে ছেড়ে যাওয়া দুবাইগামী বিজি-১৪৭ ফ্লাইটটি অস্ত্রধারী পলাশ নামে এক যুবক ‘ছিনতাইয়ের’ চেষ্টা করে। পরে বিকেল ৫টা ৪০ মিনিটে উড়োজাহাজটি চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণ করা হয়।

বিমান ‘ছিনতাই’ চেষ্টাকারী সন্দেহভাজন অস্ত্রধারীকে ধরতে কমান্ডো অভিযান চালানো হয়। পরে ওই অভিযানে গুলিতে মারা যান পলাশ। বিমানের ওই ফ্লাইটটিতে ১৩৪ জন যাত্রী ও ১৪ জন ক্রু ছিলেন।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: