সর্বশেষ আপডেট : ২ ঘন্টা আগে
রবিবার, ২৪ মার্চ ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ চৈত্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ছেড়ে দেওয়া তিন ক্রিকেটারের পাওনা পরিশোধ করতে হবে মোহামেডানকে

নিউজ ডেস্ক:: ঢাকা প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগের মূল আসর শুরুর আগে এখন চলছে টি-টোয়েন্টি লিগ। এরই মধ্যে এক বিতর্কিত ঘটনার জন্ম দিয়েছে ঢাকার ঐতিহ্যবাহী ক্লাব মোহামেডান। প্লেয়ার ড্রাফট থেকে তারা কিনেছে তিন ক্রিকেটার মোহাম্মদ আজিম, রাহাতুল ফেরদৌস এবং মোহাম্মদ নুরুজ্জামানকে।

কিন্তু টি-টোয়েন্টি লিগ চলাকালেই নিয়ম বহির্ভূতভাবে এই তিন ক্রিকেটারকে দলচ্যুত করে মোহামেডান। ড্রাফট থেকে কেনা খেলোয়াড়কে এভাবে ছেড়ে দেয়ার কোনো নিয়ম নেই। হয়তো ক্লাবগুলোর মধ্যে আন্তঃবিনিমিয় থাকতে পারে; কিন্তু দল থেকে বাদ দেয়া সম্ভব নয়।

কিন্তু তা না করে, মোহামেডান সরাসরি আজিম, রাহাতুল এবং নুরুজ্জামানকে বলে দিয়েছে, তোমরা অন্য ক্লাব দেখো। আর মোহামেডানের প্র্যাকটিসে আসার দরকার নেই। পেসার মোহাম্মদ আজিমের পরিবর্তে মোহামেডান দলে নিয়েছে আরেক পেসার শাহাদ হোসেন রাজীবকে।

এ নিয়ে যখন ঢাকার ক্রিকেট পাড়ায় জোর গুঞ্জন এবং তোলপাড় শুরু হয়েছে, তখন বিষয়টা চলে গেলো ঘরোয়া ক্রিকেট বিশেষ করে প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগ নিয়ন্ত্রণকারী কর্তৃপক্ষ সিসিডিএমের হাতে। আজ মিরপুরে মোহামেডান এবং শাইনপুকুরের মধ্যে অনুষ্ঠিত ম্যাচের সময় প্রেসবক্সে আসেন সিসিডিএম চেয়ারম্যান কাজী ইনাম আহমেদ। সেখানেই তিনি সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বিষয়টা নিয়ে কথা বললেন।

সিসিডিএম চেয়ারম্যান কাজী ইনাম আহমেদ স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, প্লেয়ার ড্রাফটের পর কোনো খেলোয়াড়কে কোনো ক্লাব খেলাক কিংবা না খেলাক, সেটা তাদের বিষয়; কিন্তু খেলোয়াড়দের পাওনা দিয়ে দিতে হবে।

মোহামেডানের তিন খেলোয়াড়কে ছেড়ে দেয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে সিসিডিএম চেয়ারম্যান বলেন, ‘আমি এ বিষয় সম্পর্কে পত্রিকা পড়েই জেনেছি। এবং এ বিষয়ে আমি মোহামেডানের ম্যানেজেমেন্টের সঙ্গেও কথা বলেছি। মোহামেডান ক্লাব খেলোয়াড়দের সঙ্গে আলাপ করে বিষয়টা সমাধান করে ফেলবে।’

সিসিডিএম চেয়ারম্যান সরাসরি জানিয়ে দিয়েছেন, প্লেয়ার ড্রাফটের পর কোনো খেলোয়াড়কে এভাবে বাদ দেয়ার সুযোগ নেই। তিনি বলেন, ‘সবচেয়ে বড় কথা এটার কোন সুযোগই নেই। এবার ক্লাবগুলোকে পরিষ্কারভাবে বলে দেওয়া হয়েছে, খেলোয়াড়কে দলে নিয়ে না খেলালেও পারিশ্রমিকের পুরোটাই দিতে হবে। যদি কোন খেলোয়াড়ের পারিশ্রমিক নিয়ে কোন প্রশ্ন আসে, তাহলে সিসিডিএম ও বিসিবি দুটি জিনিস করতে পারবে। একটা পয়েন্ট কেটে নেওয়া, অন্যটা ক্লাবকে সাসপেন্ড করে দিতে পারি আমরা।’

বিসিবির এই কঠোর অবস্থানের কারণে হয়তো বা অনৈতিকভাবে বহিস্কার হওয়া খেলোয়াড়দের ব্যাপারে একটা সুন্দর সমাধান বের করবে ঐতিহ্যবাহী ক্লাব মোহামেডান। যদিও, এসব বির্তকের মাঝে আজ শাইনপুকুরেরমত দলের কাছে ২২ রানে হেরেছে মোহামেডান।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: