সর্বশেষ আপডেট : ৯ মিনিট ১৩ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

স্ত্রী খাবারের বিল দিতে অস্বীকার করায় পুলিশ ডাকল স্বামী!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: স্বামী-স্ত্রী একসঙ্গে খাবার খেতে গিয়েছিলেন এক চাইনীজ রেস্টেুরেন্টে। সেখানে সুস্বাদু সব খাবারও খান তারা। তবে এর পরেই বাঁধে বিপত্তি।ওয়েটার বিল নিয়ে এলে স্বামী তার স্ত্রীকে অর্ধেক বিল পরিশোধ করতে বলেন। কিন্তু স্ত্রী সেটা দিতে অস্বীকার করেন।

শুরু হয় তর্কাতর্কি। প্রচণ্ড রেগে গিয়ে স্বামী ফোন দেন পুলিশকে। সম্প্রতি ব্যতিক্রমী এই ঘটনাটি ঘটেছে অষ্ট্রেলিয়ার সিডনি শহরের উত্তরদিকে রেলওয়ে স্ট্রিটের একটি রেস্টুরেন্টে।

এমনিতে যেকোন জরুরী প্রয়োজনে ৯৯৯ এ কল করার নিয়ম আছে সিডনিতে। স্বামী তাই বিল সমস্যার সমাধান করতে না পেরে জরুরী নাম্বারে কল দেন। পুলিশ আসার পর স্বামী তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন। স্বামী জানান, তার স্ত্রী চাইছেন খাওয়ার পুরো বিল তিনি দেবেন। কিন্তু তিনি চান খাওয়ার অর্ধেক বিল যেন তার স্ত্রী দেয়। কিন্তু স্ত্রী সেটা কিছুতেই দিতে চাচ্ছেন না।

এ ধরনের অদ্ভুত অভিযোগ শুনে রীতিমতো বিস্মিত হন পুলিশ কর্মকর্তারা। তখন তারা অভিযোগকারী স্বামীকে জানান, ৯৯৯ নাম্বারে শুধুমাত্র জরুরী প্রয়োজন যেমন-বিপদগ্রস্ত হলে কিংবা কোন ধরনের অপরাধ সংঘটিত হলে কল করা যায়। এ ধরনের ব্যক্তিগত সমস্যার জন্য নয়।এরপরই পুলিশ ওই জায়গা ত্যাগ করেন।

ওই ঘটনার পর সিডনি পুলিশ তাদের অফিসিয়াল সাইটে ঘটনাটা তুলে ধরেন। সেই সঙ্গে ৮০ এর দশকে ঘটে যাওয়া একটা ঘটনার ভিডিও প্রকাশ করেন। সিডনি পুলিশের ওই পোস্ট থেকে জানা যায়, ৮০ এর দশকে পল চার্লস ডোসা নামের এক ব্যক্তি এক ডজন চাইনীজ রেস্টুরেন্টে বিনা বিলে খাওয়ার জন্য গ্রেফতার হয়েছিলেন। সেই সময় পল চিৎকার করে বলেছিলেন, ‘ভদ্রমহোদয়গণ, এখানে গণতন্ত্র আছে। কিসের জন্য আমাকে অভিযুক্ত করা হয়েছে? সুস্বাদু চাইনীজ খাবার খাওয়ার জন্য কেন আমি অভিযুক্ত হবো?’

সূত্র: মেইল অনলাইন




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: এ. আর. সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: