সর্বশেষ আপডেট : ১৫ মিনিট ১৯ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ২৭ মে ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

কলকাতায় পুলিশ-সিবিআইর নজিরবিহীন সংঘাত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: কলকাতার পুলিশ প্রধানের বাসভবনে অনুমতি না নিয়েই তল্লাশি চালাতে গিয়ে ভারতের কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা-সিবিআইয়ের কয়েক কর্মীর সঙ্গে পুলিশের ধস্তাধস্তি হয়েছে। পরে সিবিআইয়ের ওই কর্মীদের আটক করে তাদের দফতর ঘেরাও করে পুলিশ বাহিনী।

ঘটনার সূত্রপাত রোববার বিকেলে। ভারতের কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা সিবিআই কলকাতার পুলিশ কমিশনারের চাঞ্চল্যকর সারদা ও রোজভ্যালি দুর্নীতি মামলা বিষয়ে কথা বলতে তার বাসভবনে যায় পূর্ব অনুমতি না নিয়ে।পুলিশ কমিশনারের বাড়ির সামনে গেলে সেখানে দায়িত্বরত পুলিশ বাধা দেয় সিবিআই কর্মকর্তাদের।

একপর্যায়ে সিবিআই কর্মকর্তাদের সঙ্গে পুলিশের ধস্তাধস্তি হয়। এরপর সিবিআই কর্মকর্তাদের আটক করে কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থার দফতর ঘেরাও করে পুলিশ।এই ঘটনা শুনে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ছুটে যান পুলিশ কমিশনারের বাসভবনে।

এই ঘটনায় কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে সাংবিধানিক অভ্যুত্থানের অভিযোগ তুলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রতিবাদে মেট্রো চ্যানেলে অবস্থান কর্মসূচিতে বসেন মমতা। সেখানে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে রয়েছেন কলকাতা পৌসভার মেয়র ফিরহাদ হাকিম।

ধর্না মঞ্চের পাশেই ক্যাবিনেট বৈঠক করবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।এর প্রতিবাদে আজ জেলায় জেলায় তৃণমূল সমর্থকেরা প্রতিবাদ মিছিল করবে বলে জানিয়েছেন তিনি।কলকাতার পুলিশ কমিশনারের বাসায় সিবিআইয়ের এমন আকস্মিক হানা দেয়াকে ভালোভাবে নেয়নি অন্যান্য রাজনৈতিক দল ও ব্যক্তিরা।

এক টুইটে রাহুল গান্ধি এই ঘটনার নিন্দা জানিয়ে মমতার পাশে থাকার কথা বলেছেন। সাবেক প্রধানমন্ত্রী এইচ ডি দেব গৌড়া এই ঘটনাকে জরুরী অবস্থার সাথে তুলনা করেছেন।দিল্লীর মূখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিয়াল এই ঘটনাকে গণতন্ত্রের জন্য হুমকি বলে নিন্দা জানিয়েছেন।



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: এ. আর. সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: