সর্বশেষ আপডেট : ৫ ঘন্টা আগে
রবিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ ফাল্গুন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

চুরি করতে গিয়ে মরদেহের সঙ্গে বিকৃত যৌনতা!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: উদ্দেশ্য ছিল চুরি করা। সেই পরিকল্পনা নিয়ে শ্মশানে ঢোকে এক যুবক। তারপর যে কাণ্ড ঘটল, তা শুনে আঁতকে উঠছেন অনেকেই।

ব্রিটিশ যুবক কাসিম খুররাম। ২৩ বছর বয়সী এই যুবক উপার্জনের জন্য প্রায়ই চুরি করেন। একদিন তিনি ঢুকে পরেন বার্মিংহামের একটি শ্মশানে। সেখানে দেখতে পান একের পর এক মৃতদেহ। পরিকল্পনা ছিল চুরি করার; কিন্তু নেশার ঘোরে ভুলে যান আসল কাজ।

পরিবর্তে পরপর তিনটি মৃতদেহের সঙ্গে উদ্দাম যৌনতায় মেতে ওঠে ওই যুবক। বিকৃত যৌনতার কথা রটতে সময় লাগেনি বেশিক্ষণ। খবর পৌঁছায় প্রশাসনের কাছেও। অভিযুক্ত ওই যুবককে গ্রেফতার করা হয়।

শুরু হয় বিচার। আদালতের প্রশ্নের মুখে অভিযোগ স্বীকার করেন ওই যুবক। আদালতকে তিনি জানান, শ্মশানে চুরির উদ্দেশ্যে গিয়েছিলেন তিনি। নেশায় ডুবে ছিলেন সেই সময়। নেশার ঘোরে শ্মশানে থাকা তিন মৃতদেহের সঙ্গে উদ্দাম যৌনতায় মেতে ওঠেন তিনি।

তবে অভিযুক্তের আইনজীবীর দাবি, গ্রেফতারির পর তদন্তের স্বার্থেই কাশিম খুররাম নিজের দোষ স্বীকার নিয়েছেন। নেশার ঘোরেই এমন কাজ করেছেন তিনি। এর আগে কখনও মৃতদেহের সঙ্গে যৌনতায় মেতে ওঠেনি কাশিম। এমনকি নেক্রোফিলিক অর্থাৎ মৃতদেহের সঙ্গে যৌনতার প্রবণতা তার চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যে নেই বলেও দাবি ওই আইনজীবীর।

অভিযুক্তের স্বীকারোক্তি শুনে অবাক হয়ে যান খোদ বিচারক। কিন্তু কেন আচমকা এমন বিকৃত যৌনতায় মেতে উঠলেন কাশিম, তার কোনও ব্যাখ্যাই দিতে পারছেন না তিনি। অপরাধের ভিত্তিতে ওই যুবককে ৬ বছরের কারাদণ্ডের নির্দেশ দেন বিচারক। আপাতত তাই শ্রীঘরেই থাকতে হবে ওই যুবককে।




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: