সর্বশেষ আপডেট : ৪ মিনিট ৫৪ সেকেন্ড আগে
বৃহস্পতিবার, ২২ অগাস্ট ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

লেখাপড়ার উদ্দেশ্য থাকতে হবে মানুষ হওয়ার – আশফাক আহমদ

সিলেট সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আশফাক আহমদ বলেছেন, লেখাপড়ার উদ্দেশ্য থাকতে হবে মানুষ হওয়ার। অনেক শিক্ষিত মানুষ আছে তাদের কাছ থেকে ভাল ব্যবহার পাওয়া যায় না। তারা তাদের মা বাবাকেও ভুলে যায়। এমন অনেক শিক্ষিত লোক আছে যারা বড় বড় অপরাধ করে বেড়ায়। এরা শিক্ষা অর্জন করেছে কিন্তু মানুষ হতে পারে নাই। তাই এদের কাছ থেকে জাতি ভাল কিছু আশা করতে পারে না। তিনি বলেন, আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে প্রকৃত শিক্ষায় শিক্ষিত করে তুলতে হবে। পাঠ্য বইয়ের সাথে সীমাবদ্ধ না থেকে মনুষ্যত্ব অর্জন করার শিক্ষাদান করতে হবে।
বৃহস্পতিবার সকালে নগরীর আব্দুল গফুর ইসলামী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্ত্যব্যে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, শিক্ষাই জাতির মেরুদন্ড। সেই মেরুদন্ডকে সোজা করে রাখতে শেখ হাসিনার আগে এদেশের কোনো সরকার প্রধান কাজ করেনি। পাকিস্তানের ২৩ বছরের শাসন আমলে বর্তমান বাংলাদেশে একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ও ছিল না। ১৯৭৩ সালে দেশের দুর্দিন থাকা সত্ত্বেও শিক্ষার উন্নয়নে বঙ্গবন্ধু একই সাথে ৩৭ হাজার প্রাথমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারি করেছেন। তারপর কেউ এই বিষয়ে নজর দেয় নি। এগিয়ে যাওযার স্লোগান দিয়েছে, কিন্তু কোনো কাজ করে নি। দীর্ঘ দিন পর ২০১১ সালে বঙ্গবন্ধুর সুযাগ্য কন্যা শেখ হাসিনা ২৬ হাজার ১৯৩টি প্রাথমিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে জাতীয়করণ করেছিলেন।
তিনি আরো বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের এই ১০ বছরের সিলেটের প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভবন নির্মাণ করে দেওয়া হয়েছে। ঝরে পড়া রোধে বিনামূল্যে বই ও উপবৃত্তির ব্যবস্থা করেছে। বর্তমান শিক্ষাবান্ধব সরকার শিক্ষকদের জীবন মান উন্নয়নেও কাজ করছে।

শিক্ষার্থীদের উদ্যেশ্যে তিনি বলেন, সবাই যদি অংশগ্রহণ না করতো তাহলে জয় পরাজয়ের কোনে প্রশ্নই আসতো না। এটাই নিয়ম। একজন হারবে একজন জিতবে। কিন্তু খেলাধুলায় অংশগ্রহণ করতে হবে। আমরা হারবো কিন্ত ভেঙ্গে যাব না।
তিনি বলেন, আজকের বাংলাদেশ আগের ১০ বছরের বাংলাদেশ নয়। আমরা লেখাপড়ায় যেমন এগিয়ে গেছি, খেলাধুলায়ও এগিয়ে গেছি। একই সাথে উন্নয়নের দিকেও আমরা অনেক এগিয়ে গেছি। এর আগে আমরা অন্ধকারে ছিলাম। আমাদের পথহারা করে রাখা হয়েছিল। ২০০৮ সালের নির্বাচনের মধ্য দিয়ে শেখ হাসিনার প্রতি আস্থা রাখায় আজ আমরা এগিয়ে গেছি। তখন আমাদের মাথাপিছু আয় ছিল ৫২৬ ডলার ১৭শ ডলারের উপরে চলে গেছি। বাজেটের আকার ছিল যেখানে ৭ হাজার কোটি টাকা; সেখানে আমরা ৪ লক্ষ ৬৪ হাজার কোটি টাকায় আমরা পৌছে গেছি। আগামী বাজেট হবে ৫ লক্ষ কোটি টাকা হবে। বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে আরো এগিয়ে যাবে। এগিয়ে যাওয়ার পেছনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সহযোগিতা করছে ১৬ কোটি মানুষ।
আব্দুল গফুর স্কুল এন্ড কলেজের গভার্নিং বডির সভাপতি এটিএমএ হাসান জেবুলের সভাপতিত্বে ও সিনিয়র শিক্ষক আতিকুর রহমানের সঞ্চালনায় শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রতিষ্ঠানের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো. জিয়াউর রহমান।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন রাজা জিসি হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক আব্দুল মুমিত, পুরান কলারুকা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আহমদ আলী, সমাজসেবী ও সংগঠক এমএ খান শাহীন, প্রয়াত সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব জহির খান লায়েক লায়েকের ছোট ভাই জাহিদ খান সায়েক, আব্দুল গফুর স্কুল এন্ড কলেজের কিন্ডারগার্টেন শাখার প্রধান শিক্ষক নাজমা আক্তার।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, স্কুল এন্ড কলেজ গভার্নিংবডির সদস্য আব্দুল মজিদ, মুহিবুর রহমান, শিক্ষানুরাগী সদস্য আব্দুল করিম, আম্বরখানা বালিকা বিদ্যালয় ও কলেজের অধ্যক্ষ সৈয়দ মুহাদ্দিস আহমদ, ম্যানেজিং কমিটির সাবেক সদস্য লল্লিক আহমদ চৌধুরী, প্রতিষ্ঠাতা পরিবারের সদস্য আব্দুশ শহীদ তুমেল, বিশিষ্ট সমাজ সেবক দুদু মিয়া, স্বপন আহমদ, আব্দুল আজিজ, সাব্বির আহমদসহ প্রতিষ্টানের সকল শিক্ষকবৃন্দ। শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত করেন কিন্ডারগার্টেন শাখার সহকারি শিক্ষক আশরাফুল হক আনোয়ারি। সবশেষে অতিথিরা বিজয়ী শিক্ষার্থীদের হাতে পুরষ্কার তুলে দেন। – বিজ্ঞপ্তি



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: