সর্বশেষ আপডেট : ৩ মিনিট ৫৭ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

মায়ের চোখে মাঠে সরাসরি খেলা দেখল অন্ধ ছেলে!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মা-ছেলের একটি মুহূর্ত বেশ সাড়া ফেলেছে। একজন নারী ফুটবল ভক্ত তার অন্ধ ছেলেকে মাঠে সরাসরি খেলা দেখাতে নিয়ে এসেছেন। কিন্তু ছেলের দু’চোখে নেই আলো। তাতে কি। মায়ের চোখ তো আছে। তা দিয়েই ছেলেকে খেলা দেখালেন মা। ঘটনাটা ব্রাজিলের। আর দশটা ব্রাজিলিয়ানের মতো ফুটবলের পাড়ো ভক্ত তারা মা-ছেলে। আর তাই ছেলেকে নিয়ে এলেন মাঠে।

ব্রাজিলিয়ান ওই মায়ের মান সালভিয়া গ্রেসিও। আর ১২ বছরের ছেলের নাম নিকোলাস। ব্রাজিলিয়ান ক্লাব পালমেইরার বিপক্ষে বোটাফোগোর সর্বশেষ ম্যাচে টিভি ক্যামেরার ধরা পড়ে এই দুই মুখ। সেখানে দেখা যায় ছেলেকে ম্যাচের প্রত্যেকটি মুহূর্তের বর্ণনা দিচ্ছেন ওই নারী। নিজের মতো করে ধারাবিবরণী করেছেন গ্রেসিও। যদিও তিনি কোন ধারাভাষ্যকার নন। আর তাই পূর্ণ আবেগ দিয়ে ছেলেকে সবকিছুর বর্ণনা দিয়েছেন ওই নারী। এমনকি মাঠে কি ঘটেছে তা বোঝাতে রেফারিকে তিরস্কার করতেও ছাড়েননি তিনি।

গ্রেসিও বলেন, ‘আমি সবকিছু ওর কাছে বর্ণনা করেছি। খেলোয়াড়দের জার্সির ভেতরে শটস পরা থেকে বুটের রং কেমন সব বলেছি। এমনকি কার কেমন চুলের স্টাইল তাও। আমার এই ধারাভাষ্য নিজের কাছে খুব আবেগের ছিল। আমি মাঠে আমার চোখে যা দেখেছি, যা অনুভব করেছি তা ওকে দেখানোর এবং বোঝানোর চেষ্টা করেছি।’

মাঠে পিছিয়ে পড়া ফুটবল ভক্তদের উপস্থিতি অবশ্য এই প্রথম নয়। রাশিয়া বিশ্বকাপে পোল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচে কলম্বিয়ান একজন বধির ভক্তকে হাত-মুখ নেড়ে আকার ইঙ্গিতে ধারাভাষ্য শোনান তার এক বন্ধু। ব্রাজিল এই বালক নিকোলাসের প্রিয় ফুটবলার ব্রাজিল এবং পিএসজি তারকা নেইমার। তারকা এই ফুটবলারের সঙ্গে নিকোলাসের দেখাও হয়েছে। নেইমার তাকে কাঁধে তুলে নেন এবং সে নেইমারের চুলে হাত বুলায়। নিকোলাসের মা জানান এটা তার ছেলের জন্য অনেক বড় একটা মুহূর্ত।




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: এ. আর. সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: