সর্বশেষ আপডেট : ৭ মিনিট ২৫ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

শাবি শিক্ষার্থী প্রতীকের আত্মহত্যায় প্ররোচনাকারী শিক্ষকদের শাস্তি দাবি

নিউজ ডেস্ক:: শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড বায়োটেকনোলজি (জিইবি) বিভাগের মেধাবী শিক্ষার্থী তাইফুর রহমান প্রতীকের আত্মহত্যার ঘটনায় প্ররোচনার অভিযোগে শিক্ষকদের শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) টিএসসিভিত্তিক সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলো সন্ত্রাসবিরোধী রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে এ মানববন্ধন করে। এতে বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় গবেষণা সংসদের সভাপতি সাইফুল্লাহ সাদেক। এ সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নাট্য সংসদের সভাপতি সানোয়ারুল হক সনি, স্লোগান’ ৭১-এর সভাপতি সুজন মিয়া প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এসময় তারা ‘শিক্ষক নিয়োগে মেধাবীদের বঞ্চনা বন্ধ কর’, ‘চলে গেছে প্রতীক রেখে গেছে ধিক্কার’, ‘প্রতীকের আত্মহত্যায় প্ররোচনাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি চাই’, ‘শিক্ষক তুমি ত বাসবে ভালো, তবে অন্ধকারে কেনো ঠেলো’সহ বিভিন্ন ধরনের প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করেন।

মানববন্ধনে সাইফুল্লাহ সাদেক বলেন, এটি আত্মহত্যা নয়, একটি হত্যাকাণ্ড। প্রতীকের বিভাগের শিক্ষকেরা তাকে আত্মহত্যা করতে প্ররোচিত করেছে। বহিরাগত ঘটনায় তাকে দোষী সাব্যস্ত করে সহপাঠীদের কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়েছে। তার থিসিসের জন্য সুপারভাইজার দেওয়া হয়নি। তার প্রতি চরম মাত্রার বৈষম্য করা হয়েছে। আমরা অভিযুক্ত শিক্ষকদের শাস্তি দাবি করছি। ভবিষ্যতে যাতে কেউ এরকম ঘটনার শিকার না হন।

প্রসঙ্গত, প্রতীক শাবিপ্রবির জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড বায়োটেকনোলজি (জিইবি) বিভাগের ২০১১-১২ সেশনের শিক্ষার্থী ছিলেন। গত ১৪ জানুয়ারি বিকেলে সিলেট নগরীর কাজলশাহ এলাকার একটি বাসা থেকে পুলিশ তার ফ্যানে ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে। প্রতীকের আত্মহত্যা নিয়ে ইতোমধ্যেই সারাদেশে তোলপাড় শুরু হয়েছে। বলাবলি হচ্ছে, অনার্সে প্রথম হওয়ার পর মাস্টার্সে খারাপ ফলাফল ও থিসিসের জন্য সুপারভাইজার না দেওয়ায় এই মেধাবী ছাত্রকে হতাশাগ্রস্ত করে তোলা হয়েছে। এরই জেরে তিনি আত্মহত্যার পথ বেছে নেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতীকের আত্মহত্যার জন্য শাবির জিইবি বিভাগের শিক্ষকদের দায়ী করেছেন তার বড় বোন ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের যোগাযোগ বৈকল্য বিভাগের শিক্ষক শান্তা তাওহিদা। এ ঘটনায় প্রতীকের বাবা তৌহিদুজ্জামান সিলেটের কোতোয়ালি থানায় অপমৃত্যুর মামলা করেছেন। শাবিপ্রবি প্রশাসন এ ঘটনায় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে।




এ বিভাগের অন্যান্য খবর




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: এ. আর. সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: