সর্বশেষ আপডেট : ৫ মিনিট ২৭ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ বৈশাখ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

জিয়াউর রহমান মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন না: বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী

নিউজ ডেস্ক:: বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন না বলে অভিযোগ করেছেন সাবেক বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক। তিনি বলেন, ‘জেনারেল শওকত আলী বলেছিলেন, জিয়া এবং তিনি বাধ্য হয়েই মুক্তিযুদ্ধে গিয়েছেন। তিনি ওপারে গিয়েছেন পাকিস্তানের চর হিসেবে। আমি এভিডেন্সসহ বলছি, ৭৫-এ বঙ্গবন্ধু হত্যার মূল নায়ক ছিলেন মেজর জিয়া। তিনি কোনও যুদ্ধ করেননি। জিয়া মোটেও মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন না। যদিও তিনি যুদ্ধে গিয়েছিলেন। তিনি যুদ্ধে গেছেন পাকিস্তানিদের হয়ে।’

সোমবার (৭ জানুয়ারি) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে “নির্বাচন-২০১৮: অপরাজনীতির প্রস্থান ও নতুন অধ্যায়ের সূচনা” শীর্ষক এক গোলটেবিল বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন। জাগো বাংলা ফাউন্ডেশন এই গোলটেবিল বৈঠকের আয়োজন করে।

মানিক বলেন, “ তিনি ‘মুসলমানদের আত্মসমর্পণের চিহ্ন রাখতে নেই’ এমন কথা বলে সোহরাওয়ার্দীর চেহারা পাল্টে দিয়েছিলেন। তার মানে তিনি মুক্তিযুদ্ধে বিশ্বাসী ছিলেন না।” অনুষ্ঠানে নিরাপত্তা বিশ্লেষক মেজর জেনারেল (অব) মোহাম্মদ আলী শিকদার অভিযোগ করেন, ‘জিয়াউর রহমানই দেশে অপরাজনীতির জন্ম দিয়েছেন। তার দল যুদ্ধাপরাধীদের পুনর্বাসন করে দেশকে কলঙ্কিত করেছে।’

এ সময় বিকল্পধারার প্রেসিডিয়াম সদস্য শমসের মবিন চৌধুরী বলেন, ‘অপরাজনীতির প্রস্থান ও নতুন অধ্যায়ের সূচনা একটি চলমান প্রক্রিয়া। এটা অব্যাহত রাখতে হবে।’ সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সৈয়দ হাসান ইমাম বলেন, ‘বাংলাদেশের মানুষ বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেনি, করেছে একটি চক্র। এর কারণে বাংলাদেশ বহু বছর পিছিয়ে গেছে। ব্যক্তিস্বার্থ দূর করে রাজনীতি করতে হবে। আমাদের সংস্কৃতির পরিবর্তন করতে হবে। অপসংস্কৃতি দূর করতে হবে, তবেই বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠিত হবে।’

বৈঠকে সাংবাদিক সুভাষ সিংহ রায় বলেন, ‘বাংলাদেশের ইতিহাস বিকৃত করার জন্য কী না করা হয়েছে? আজকের বাংলাদেশ এক নতুন বাংলাদেশ। বিএনপিকে এখন মাইনাস ৩টি ফর্মুলা বাস্তবায়ন করতে হবে। এগুলো হচ্ছে তারেক রহমান, জামায়াতে ইসলামী ও জঙ্গিবাদ।’




এ বিভাগের অন্যান্য খবর




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: