সর্বশেষ আপডেট : ১১ মিনিট ২৩ সেকেন্ড আগে
বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ বৈশাখ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

আজও শ্রমিকদের সড়ক অবরোধ, পুলিশের সঙ্গে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া

নিউজ ডেস্ক:: সরকার ঘোষিত নূন্যতম মজুরি বাস্তবায়ন ও বকেয়া বেতনের দাবিতে তৃতীয় দিনের মতো রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ করেছে শ্রমিকরা।এ সময় পুলিশের সঙ্গে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনাও ঘটেছে।মঙ্গলবার (৮ জানুয়ারি) সকাল থেকে উত্তরা, দক্ষিণখান ও মিরপুরের কালশী এলাকায় বিক্ষোভ করেছে শ্রমিকরা।এ সময় পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

রাজধানীর মিরপুরের কালশীর এলাকায় ২২ তলা গার্মেন্টসের সামনে শ্রমিকরা অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে পুলিশ গেলে শ্রমিকদের সঙ্গে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। তবে পরবর্তীতে তাদের সড়কে অবস্থান করতে দেয় পুলিশ।

খাদিজা আক্তার নামে একজন নারী শ্রমিক বলেন, আমাদের নূন্যতম বেতন কাঠামোর প্রজ্ঞাপণ গত ডিসেম্বরে জারি হয়েছে। কিন্তু সেখানে আমাদের সব দাবি-দাওয়া উত্থাপন হয়নি। অপারেটর ও হেলপারের বেতনের মধ্যে অনেক বৈষম্য ও ব্যবধান রয়েছে। আমরা এগুলো দূর করার কথা বলছি।’

তিনি অভিযোগ করেন, তাদের জন্য সরকার ঘোষিত নতুন বেতন কাঠামো নির্ধারণ করলেও মালিকপক্ষ তা দিচ্ছে না। তাদের সংসার পরিচালনা করতে কষ্ট হচ্ছে।

পল্লবী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, ‘কালশীতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। শ্রমিকরা সড়কের একপাশে অবস্থান নিয়েছে, অপর পাশ দিয়ে গাড়ি চলাচল স্বাভাবিক করার চেষ্টা চলছে।পোশাক কারখানার মালিক ও শ্রমিক নেতাদের সঙ্গে আলোচনা চলছে বলেও জানান তিনি।

অপরদিকে, রাজধানীর উত্তরায় দক্ষিণখানে আটিপাড়ার এপিএস গার্মেন্টেসের শ্রমিকরা সড়কে ভাঙচুর চালিয়েছে। এছাড়া চালাবন এলাকায়ও শ্রমিকরা জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করেছে।




এ বিভাগের অন্যান্য খবর




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: