সর্বশেষ আপডেট : ৭ মিনিট ১২ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ১৬ জানুয়ারী ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ মাঘ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সন্ত্রাস-নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে শান্তি ও উন্নয়নের প্রতীক নৌকায় ভোট দিন – মোমেন

ডেইলি সিলেট ডেস্ক:: সিলেট-১ আসনে মহাজোট মনোনীত প্রার্থী, জাতিসংঘে বাংলাদেশের সাবেক রাষ্ট্রদূত, বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ড. এ কে আব্দুল মোমেন আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সন্ত্রাস, বোমাবাজি, দখলবাজি তথা নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে দেশে শান্তি, উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির প্রতীক নৌকায় ভোট দেওয়ার জন্য জনগণের প্রতি আহবান জানিয়েছেন।
মঙ্গলবার সিলেট নগরী ও সদর উপজেলার বিভিন্ন স্থানে গণসংযোগ ও নির্বাচনী সভায় তিনি এ আহবান জানান।

ড. মোমেন বলেন, বিএনপি ও তাদের জোট যখন ক্ষমতায় বসে তখন দেশে সন্ত্রাস, নৈরাজ্য, জঙ্গিবাদ, লুটপাট হয়। মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়। তাদের সন্ত্রাসী আগ্রাসন থেকে কেউ নিরাপদ ছিল না। বিএনপি-জামাত সরকারের পৃষ্টপোষকতায় বাংলাদেশে জঙ্গিবাদের উত্থান ঘটে। বিদেশ থেকে ১০ ট্রাক অবৈধ অস্ত্রের চালান দেশে আনা হয়। একই সময়ে দেশের ৬৩ জেলায় বোমা বিস্ফোরণ হয়। মসজিদ, মাজার, মন্দির, গির্জা কোনো ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান রেহাই পায়নি। সরকারের নেতৃত্বে থাকা ব্যক্তিদের অবাধ দুর্নীতি ও লুটপাটের কারণে টানা ৫ বার বাংলাদেশকে দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ান করা হয়। হরতাল-অবরোধের নামে বোমা-গ্রেনেড হামলা চালিয়ে শত শত মানুষ হত্যা করা হয়। তাদের পরিকল্পিত নৈরাজ্যকর পরিস্থিতির কারণে দেশে ব্যবসা-বাণিজ্য ও অর্থনীতিকে ধ্বংস করা হয়।

এমন ভয়াবহ পরিস্থিতি থেকে দেশ ও জাতিকে মুক্তি দেন বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা। তাঁর নেতৃত্বে সরকার গঠনের পর থেকে টানা ১০ বছরে দেশের সকল কলঙ্ক মোচন করা হয়। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, দুর্নীতিকে কঠোর হাতে দমন করা হয়েছে। দেশদ্রোহী চিহ্নিত অপরাধীদের বিচারের আওতায় আনা হয়েছে। ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকল মানুষের সমঅধিকার ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়েছে। দেশে ব্যবসা-বাণিজ্য ও বিনিয়োগের অনুকুল পরিবেশে সৃষ্টি হয়েছে। ২০০৬-০৭ সালে বিএনপি জোট সরকারের বাজেট ছিল ৬৯ হাজার ৭৪০ কোটি টাকা। ২০১৮-১৯ সালে জাতীয় বাজেট ৪ লাখ ৬৫ হাজার কোটি টাকা। আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকারের ১০ বছরে ৭ গুণের বেশি বাজেট বৃদ্ধি পেয়েছে। বিএনপির রেখে যাওয়ায় ১৬শ’ মেগা ওয়াট থেকে এখন প্রায় ২০ হাজার মেগা ওয়াট বিদ্যুৎ দেশে উৎপাদন হচ্ছে। এখন কোনো সংকট নেই। ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দিয়েছেন শেখ হাসিনা। দেশে এখন হরতাল-অবরোধ নেই। প্রতিটি মানুষ সুখে শান্তিতে আছে। মানুষের আয় বৃদ্ধি পেয়েছে। কর্মক্ষমতা বেড়েছে। সব মিলিয়ে বাংলাদেশ এখন একটি উন্নত রাষ্ট্রের মডেল দেশ হিসেবে বিশ্বস্বীকৃতি অর্জনে সক্ষম হয়েছে।

ড. মোমেন বলেন, নির্বাচনকে সামনে রেখে বিএনপি তার জোটসঙ্গীরা দেশে অরাজকতা সৃষ্টি অপচেষ্টা চালাচ্ছে। বিভিন্ন স্থানে বোমাবাজি, সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়ে নির্বাচনের শান্তিপূর্ণ পরিবেশ নষ্ট করার ষড়যন্ত্র করছে। জনমনে আতঙ্ক ছড়াচ্ছে। তিনি বলেন, সিলেটসহ দেশের মানুষ এসব সন্ত্রাসী, জঙ্গিবাদি অরাজকতা সৃষ্টিকারীদের সমর্থন করে না, মানুষ শান্তি চায়, উন্নয়ন চায়, মঙ্গল চায়। এজন্য ৩০ ডিসেম্বর নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আবারও আওয়ামী লীগকে জয়ী করবে।

ড. মোমেন সকালে বড়দিন উপলক্ষে নগরীর নয়াসড়কস্থ প্রেস বিটারিয়ান চার্চ-এ খ্রিষ্টান ধর্মাবলম্বীদের সাথে কুশল ও মতবিনিময় করেন। এসময় খ্রিষ্টান মিশনারীজদের মধ্যে ডিপন মিজুম চাংমা, উইলসন গ্রে, রাজীব দাস ও ফিলিপ বিভাসসহ বিপুলসংখ্যক খ্রিষ্টধর্মাবলম্বী উপস্থিত ছিলেন। এর আগে ড. মোমেন লাক্কাতুরা চা-বাগানে খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের সাথে বড়দিনের অনুষ্ঠানে যোগদান করেন এবং সেখানে উপস্থিত লোকজনের সাথে কুশল বিনিময় করেন।
দুপুরে ড. মোমেন নগরীর বন্দরবাজার, মহাজনপট্টি, কালিঘাট, লালদিঘীরপাড়সহ আশপাশ এলাকায় গণসংযোগ করেন। পরে করিম উল্লাহ মার্কেটের সামনে এক সংক্ষিপ্ত পথসভা তিনি বক্তব্য রাখেন।
এসময় ড. মোমেন বলেন, বাংলাদেশ আজ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠার দিকে অনেকদূর অগ্রসর হয়েছে। এ অগ্রযাত্রায় সবাইকে শরিক হতে হবে। বঙ্গকন্যা শেখ হাসিনা আরো একবার ক্ষমতায় এলে পুরোপুরি বদলে যাবে আমাদের এ প্রিয় মাতৃভূমি। আমরা পাবো উন্নত দেশ, একই সাথে পাবো উন্নত জীবনও।
এসময় উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, কেন্দ্রীয় সদস্য ও সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সাবেক সংসদ সদস্য শফিকুর রহমান চৌধুরী, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ, সহসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালিক, যুগ্ম সম্পাদক ফয়জুল আনোয়ার আলোয়ার ও বিজিত চৌধুরী, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক রনজিৎ সরকার, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক তপন মিত্র, আওয়ামী লীগ নেতা জুবের খান, আরমান আহমদ শিপলু, মুশফিক জায়গীরদার, আব্দুল বাছিত রুম্মান প্রমুখ।




এ বিভাগের অন্যান্য খবর




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: