সর্বশেষ আপডেট : ৩ মিনিট ৫০ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ২০ জানুয়ারী ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ মাঘ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

আমার মেয়ে শিরীনকে আপনাদের হাতে তুলে দিলাম : শেখ হাসিনা

নিউজ ডেস্ক:: জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীকে নিজের মেয়ে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমি আমার মেয়ে শিরীন শারমিন চৌধুরীকে আপনাদের হাতে তুলে দিয়ে গেলাম। পীরগঞ্জে আপনারা আমাকেই ভোট দেবেন। শুধু ব্যালটে শিরীন শারমিন চৌধুরীর নাম থাকবে।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে রোববার বিকেলে পীরগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত নির্বাচনী জনসভায় এসব কথা বলেন শেখ হাসিনা।

এরপর প্রধানমন্ত্রী রংপুরের আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের পরিচয় করিয়ে দেন এবং নৌকা মার্কায় ভোট দেয়ার আহ্বান জানান। এ সময় শিরীন শারমিন চৌধুরীর হাত উঁচু করে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, আমার মেয়েকে আপনাদের সামনে তুলে দিচ্ছি। শিরীন নির্বাচিত হলে তাকে আমরা আবারও স্পিকার করতে পারব। শিরীন যেভাবে আপনাদের জন্য কাজ করছে আমি হলে অতটা পারতাম না। কারণ আমার সারা দেশ নিয়ে ব্যস্ত থাকতে হয়।

তিনি আরও বলেন, পীরগঞ্জের ব্যাপক উন্নয়ন এরই মধ্যে আমরা করেছি। পীরগঞ্জের আরও উন্নয়নের জন্য আমি একটা মাস্টার প্ল্যান করতে বলেছি। আজকে আমার করা ব্রিজের ওপর দিয়ে এখান থেকে আমি দিনাজপুর যাব। এভাবে সারা দেশের উন্নয়ন করেছি আমরা।

শেখ হাসিনা বলেন, আগামী নির্বাচন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই নির্বাচনে আপনারা নৌকা মার্কায় ভোট দেবেন। যারা ২০১৪ সালে বাস-ট্রাকে আগুন দিয়ে মানুষ পুড়িয়ে হত্যা করেছে তারা মানুষ না, দানব। ওদের স্থান বাংলাদেশের মাটিতে হবে না। কাজেই যারা মানুষ পোড়া গন্ধ নিয়ে ধানের শীষে ভোট চাইবেন তাদের থেকে সাবধান থাকবেন, সতর্ক থাকবেন।

শেখ হাসিনা বলেন, নৌকার পালে হাওয়া লেগেছে। নৌকার বিজয় হবেই। আমি আপনাদের কাছে ভোট চাইতে এসেছি। আপনারা নৌকায় ভোট দিন। আমরা উন্নয়ন দেব, সমৃদ্ধি দেব। আপনাদের জীবনমান উন্নত করে দেব।

খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের প্রতি ইঙ্গিত করে শেখ হাসিনা বলেন, যারা দুর্নীতির দায়ে সাজা নিয়ে জেলে আছে, পলাতক আছে, তাদের হাতে ক্ষমতা গেলে দেশের কোনো কাজ হবে না, উন্নয়ন হবে না। কাজেই তাদের থেকে সাবধান থাকবেন। এ সময় আওয়ামী লীগের স্থানীয় ও কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে রংপুরের তারাগঞ্জের জনসভায় বক্তৃতা শেষে করে তিনি সড়ক পথে পীরগঞ্জের ফতেহপুরে স্বামী প্রয়াত ড. এমএ ওয়াজেদ মিয়ার বাড়ি ‘জয়সদনে’ যান। সেখানে পৌঁছালে প্রধানমন্ত্রীকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন শ্বশুরবাড়ির স্বজনরা। সেখানে পৌঁছে শেখ হাসিনা তার প্রয়াত স্বামী ড. এমএ ওয়াজেদ মিয়ার কবর জিয়ারত এবং শ্বশুরবাড়ির স্বজনদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন।

এর আগে সকালে রংপুরের তারাগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ মাঠে স্থানীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত নির্বাচনী জনসভায় বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রী। রংপুরের কর্মসূচি শেষে দিনাজপুরে একটি জনসভায় বক্তব্য দেয়ার কথা রয়েছে তার।




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: