সর্বশেষ আপডেট : ৪৮ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ বৈশাখ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বিবেকের কাছে প্রশ্ন করবেন, কোন মার্কায় ভোট দেবেন?

নিউজ ডেস্ক:: ভোট হলো মূল্যবান আমানত। এটার সঠিক ব্যবহার করুন। আমরা চাই তারুণ্যের প্রথম ভোট হবে উন্নয়নের স্বার্থে, শান্তির পক্ষে। তাই ৩০ ডিসেম্বর আপনার বিবেকের কাছে প্রশ্ন করবেন, কোন মার্কায় ভোট দিতে হবে? আপনারা অবশ্যই উন্নয়ন ও সত্যের পক্ষে ভোট দেবেন।

সোমবার রাজধানীর ফার্মগেট কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে ‘হ্যাশট্যাগ আই অ্যাম বাংলাদেশ’ বা ‘আমিই বাংলাদেশ’ (#IamBangladesh) প্রচারণার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তরুণ নতুন ভোটারদের কাছে এমনই আহ্বান জানিয়েছেন দেশের বিভিন্ন ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতারা। জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে এ হ্যাশট্যাগের মূল উদ্দেশ্য : তারুণ্যের প্রথম ভোট উন্নয়নের স্বার্থে হোক, শান্তির পক্ষে হোক। অনুষ্ঠানের আয়োজন করে সামাজিক সংগঠন অপরাজেয় বাংলা এবং ‘হ্যাশট্যাগ আতিক ফর ঢাকা’।

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থী ও বিজিএমইএ সাবেক সভাপতি আতিকুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, মেট্রোপলিটন চেম্বারের সভাপতি নিহাদ কবির, ঢাকা চেম্বারের সভাপতি আবুল কাশেম খান, বিজিএমইএ সভাপতি মো. সিদ্দিকুর রহমান, চিত্রনায়ক ফেরদৌস, সাংবাদিক নেতা সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা, ক্রিকেটার বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান।

এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন বলেন, আমাদের তারুণ্যের প্রতীক সাকিব আল হাসান বাংলাদেশের এগিয়ে যাওয়ার প্রতীক। পৃথিবীর যেখানেই যান তাকে চিনে সবাই। স্টার স্পোর্টস থেকে শুরু করে ইএসপিএন খুললেই দেখা যায় বাংলাদেশের পতাকা। বাংলাদেশের খেলার সংবাদ। এই যে পরিবর্তন বাংলাদেশের। আমি আবারও বলছি এই সাকিব আল হাসান বাংলাদেশ উন্নয়নের প্রতিচ্ছবি। আমাদের মেয়েরা আজ এভারেস্ট বিজয় করছে। মেয়েরা আজ ফুটবলে উন্নতি করছে। ক্রিকেটে উন্নতি করছে, লেখাপড়ায় উন্নতি করছে সব কিছু মিলিয়েই কিন্তু বাংলাদেশ।

এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি বলেন, ৩০ তারিখ আমাদের জাতীয় নির্বাচন। এ দিন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ দিন। বাংলাদেশকে এগিয়ে নেয়ার জন্য আমাদের অনেক কাজ করতে হবে যে যার যার অবস্থান থেকে। আমাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করে যোগ্য নেতৃত্ব বেছে নিতে হবে।

মহিউদ্দিন বলেন, আজকে বাংলাদেশ বদলে গিয়ে বিশ্বে আমাদের ইমেজ উন্নত রয়েছে। এটাকে আরও এগিয়ে নিতে আমাদের প্রয়োজন সঠিক নেতৃত্ব। আমাদের যে অবকাঠামোগত কিছু সমস্যা আছে সেগুলো দূর করতে পারে একটি নেতৃত্ব। সেই নেতৃত্ব হলো প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। যেমনটি সিঙ্গাপুরকে বদলে দিয়েছে ‘লি কুয়ান’। মালয়েশিয়াকে বদলে দিয়েছে মাহাথির মোহাম্মদ যিনি টানা ২২ বছর ক্ষমতায় ছিলেন। কনটিনিউয়াস অব পলিসি, গুড গর্ভনেন্স খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

তিনি আরও বলেন, আগামী দিনের বাংলাদেশ হবে দুর্নীতি মুক্ত বাংলাদেশ। বাংলাদেশ হবে স্বপ্নের বাংলাদেশ। এগিয়ে যাওয়ার বাংলাদেশ। সেই প্রত্যাশায় আমরা। আপনাদের বিবেকের কাছে প্রশ্ন করে ভোট দিবেন।

তিনি বলেন, ‘আমরা বলব না কোন মার্কায় ভোট দেবেন। ৩০ ডিসেম্বর আপনার বিবেকের কাছে প্রশ্ন করবেন, কোন মার্কায় ভোট দিতে হবে? আপনারা অবশ্যই উন্নয়ন ও সত্যের পক্ষে ভোট দেবেন।’

বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান বলেন, ৩০ ডিসেম্বর উন্নয়নের পক্ষে সবাই ভোট দেবেন। আমরা সবাই জানি কোথায় ভোট দেব? অবশ্যই নৌকায় ভোট দেব।

‘হ্যাশট্যাগ আই অ্যাম বাংলাদেশ’ প্রসঙ্গে সাকিব বলেন, এটি হলো আমি বাংলাদেশে তার মানে আপনাকে সব বিষয় পারদর্শী হতে হবে না। আপনি যে বিষয়ে পারদর্শী সেই বিষয়েই সবচেয়ে ভালো অবস্থানে যেতে হবে। তাহলেই বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে। নিজেদের উন্নতি করতে পারলে বাংলাদেশের উন্নতি হবে।

তরুণদের উদ্দেশ্য করে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার বলেন, আমি সিওর আপনাদের সবার স্বপ্ন আছে। তবে এ স্বপ্নটাকে আরও বেশি বড় করা উচিত।

মেট্রোপলিটন চেম্বারের সভাপতি নিহাদ কবির বলেন, আমরা যদি আমাদের দেশপ্রেম দিয়ে কাজ করি। আমাদের দেশের যে উন্নয়ন হচ্ছে। যার কারণে বাংলাদেশ বিশ্বের কাছে উন্নয়নের রোল মডেল। আমাদের দেশে শান্তি থাকবে। কোন মতপার্থক্য থাকলে সেগুলোকে আমরা শান্তিপূর্ণভাবে তার সমাধান করব। সেই পথেই আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। ২০১৩ সালের রাজনৈতিক পরিবেশ এখন নেই। আমরা দৃঢ় বিশ্বাস এবারের নির্বাচন সুন্দরভাবে হবে। এ পথে এগিয়ে গেলে আমরা শান্তিপূর্ণ সমাজ পাব। একদিনে পারব না কিন্তু দশ বছরে তো পারব।

বিজিএমইএ সাবেক সভাপতি আতিকুল ইসলাম তরুণদের উদ্দেশে বলেন, ‘তুমিই বাংলাদেশ। তুমিই দেশকে প্রতিনিধিত্ব কর। যে দেশকে প্রতিনিধিত্ব করে সে কখনও তাকে পেছনে ফেলতে চায় না। দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। সব উন্নয়নের সুফল তোমার। তুমি মানেই শান্তি। তাই তুমিই বাংলাদেশ। তাই বলবো তারুণ্যের প্রথম ভোট উন্নয়নের স্বার্থে হোক। শান্তির পক্ষে হোক।

তরুণদের উদ্দেশে অভিনেতা ফেরদৌস বলেন, ‘বাংলাদেশে যখন বড় বড় কনসার্ট হয়, তখন রাস্তায় টিকিট হাতে তরুণদের লম্বা লাইন দেখি। গত মাসে রাজধানীর আর্মি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ফোক ফেস্টে দেখছি, অনুষ্ঠানে প্রবেশের জন্য লম্বা লাইন। কমপক্ষে এক মাইল তো হবেই। ভোটের দিন সকালে যেন সেই একই দৃশ্য দেখি।’ তার আগে এক তরুণের প্রশ্নের জবাবে ফেরদৌস বলেন, ‘পক্ষ এখন একটাই। আমরা সেই পক্ষেই থাকব। আমরা নৌকায় ভোট দেব।’







নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: