সর্বশেষ আপডেট : ৩৩ মিনিট ২০ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২ পৌষ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

নির্বাচনী রঙ্গ: প্রতিপক্ষের দুর্ভাগ্য হাসিলে পেঁচার ব্যবহার!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ভারতের কর্নাটকের জঙ্গল থেকে কয়েকজন চোরা শিকারীকে ধরা হলো। দেখা গেল তাদের কাছে আছে আমেরিকান ঈগল প্রজাতির বেশ কিছু ভারতীয় পেঁচা। রাতজাগা এই পাখিগুলো ধরার জন্য তারা রীতিমতো অর্ডার পেয়েছে পাশের তেলেঙ্গানা রাজ্য থেকে।

এনবিটি জানায়, তেলেঙ্গানা রাজ্যের সীমান্তবর্তী কালবুর্গি জেলা পুলিশের হাতে আটক পেঁচা-চোরের দল জিজ্ঞাসাবাদে জানায়- তেলেঙ্গানার রাজনৈতিক নেতারা এসব পেঁচার জন্য অর্ডার দিয়েছেলন তাদের। বনবিভাগ সূত্র জানায়, প্রতিটি পেঁচা তিন থেকে চার লাখ রুপিতে বিক্রি করতে যাচ্ছিল তারা। উদ্ধার করা পেঁচাগুলির প্রত্যেকটির ওজন ৫ কিলো বলে জানা গেছে।

পশ্চিমা দুনিয়ায় রাতজাগা এই পাখীগুলো বুদ্ধিমত্তা আর জ্ঞানের প্রতীক হিসেবে বিবেচিত হলেও উপমহাদেশীয় অঞ্চলে এই পাখি বা এর ডাককে প্রায় ক্ষেত্রেই অশুভের সংকেত হিসেবে মানা হয়। ঘরে পেঁচার প্রবেশ মানে সর্বনাশের হানা বলে মানে অনেক কুসংস্কারপ্রবণ মানুষ।

বড় বড় চোখের এই পাখি তার মাথা গর্দান না ঘুড়িয়েও ২৭০ ডিগ্রি পর্যন্ত ঘোড়াতে পারে। অন্ধবিশ্বাসতাড়িত লোকজন মনে করে, এই পাখি দিয়ে অন্য মানুষকে বশে আনা যায়। একই সঙ্গে কালো যাদুতেও এর ব্যবহার হয়।

জানা গেছে, তেলেঙ্গানার রাজনীতিকদের কেউ কেউ এবারের বিধানসভা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর সম্ভাব্য জয়কে পরাজয়ে রূপান্তরিত করে নিজে বিধায়ক নির্বাচিত হতে পেঁচানির্ভর কালোযাদুর নির্ভরশীল হয়ে পড়েছেন।

অন্ধবিশ্বাসের কারণে ভারতে নির্বাচন ও অন্যান্য উপলক্ষ্যে বনের নিরীহ এইসব পাখি নিধন প্রাণী অধিকারকর্মীদের বড় দুশ্চিন্তার কারণ হয়ে দেখা দিয়েছে। কালোযাদুতে বিশ্বাসীরা যাদুমন্ত্রসমেত পেঁচাহত্যা করে তার মাথা, কলিজা, পাখনা, পা, মাংস, নাড়ীভূঁড়ি প্রতিপক্ষ প্রার্থীর বাড়ির সামনে ফেলে আসে। তাদের বিশ্বাস, এর ফলে প্রতিদ্বন্দ্বী তাদের বশ হয়ে যাবে কিংবা পরাজয় বরণ করে নেবে।

এমনিতে সাধারণত সনাতন ধর্মীয়দের লক্ষ্মীপূজা ও দীপাবলীতে পেঁচার জরুরত পড়ে। কিন্তু নির্বাচনে জয়ের জন্য পেঁচা নিধন ও তা দিয়ে কালোযাদুর চর্চা দুর্লভ এই প্রাণীর টিকে থাকাকে প্রশ্নের মুখে দাঁড় করাচ্ছে বলে মনে করছেন অনেকে। কর্নাটকের বার্ড লাভার্স সংগঠনের মতে, তেলেঙ্গানার নির্বাচনের কারণে প্রতিবেশী রাজ্যের অনেক পেঁচার জীবন হুমকির মুখে পড়েছে।

গতকাল (৭ ডিসেম্বর, শুক্রবার) তেলেঙ্গানায় নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। আগামী ১১ ডিসেম্বর ফল ঘোষণা হবে। তবে নির্বাচনে কংগ্রেস বা বিজেপি- যে পক্ষই জয়লাভ করুক, এটা কিন্তু জানা যাবে না যে পেঁচার কালো যাদুতে শেষকত কী রকম ফল পেয়েছেন সংশ্লিষ্ট রাজনীতিকরা। কারণ, রাজ্য সীমান্তে কয়েকটি পেঁচা ধরা পড়লেও কোনো প্রার্থীকে কিন্তু ধরা যায়নি পেঁচা-কাহিনীর সূত্রে।







নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: