সর্বশেষ আপডেট : ১ মিনিট ১১ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ পৌষ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

কমলগঞ্জে মনিপুরী মহারাসলীলা অনুষ্ঠিত 

মো. মোস্তাফিজুর রহমান, কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) ::
বিশ্বনন্দিত সাংস্কৃতিক ধারক মণিপুরী সম্প্রদায়ের বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব মহারাসলীলা’ প্রতি বছরের ন্যায় এবারও কার্তিকের পূর্ণিমা তিথিতে মৌলভীবাজার কমলগঞ্জ উপজেলার মাধবপুর জোড়া মন্ডপ ও আদমপুর সানাঠাকুর মন্ডপে বর্ণাঢ্য আয়োজন ও কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে ২৩ নভেম্বর শুক্রবার অনুষ্টিত হয়েছে। রাতভর রাধাকৃষ্ণের প্রণয়োপখ্যানের সে রাসলীলা উপভোগ করতে সারাদেশ থেকে ছুটে আসেন হাজারো নারী-পুরুষ,শিশু-কিশোর, কবি-সাংবাদিক, দেশি- বিদেশি পর্যটকসহ নানা শ্রেণী পেশার মানুষজন। অনুষ্ঠানস্থল পরিণত হয় একটি মিলন মেলায়। রাসোৎসব উপলক্ষে উভয় স্থানে মেলা বসে। এ উপলক্ষে মণিপুরী সম্প্রদায়ের মাঝে বিরাজ করছে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা। মণিপুরী সম্প্রদায়ের প্রধান ধর্মীয় উৎসব মহারাসলীলা উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসুচী গ্রহণ করা হয়। রাসোৎসবে জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে লাখো মানুষের ঢল নামে ।
কমলগঞ্জ উপজেলার মাধবপুর (শিববাজার) জোড়ামন্ডপ প্রাঙ্গনে বিষ্ণুপ্রিয়া মনিপুরীরা ১৭৬ তম মহারাস উৎসব বার্ষিকী এবং আদমপুর ইউনিয়নের তেতইগাঁও সানাঠাকুর মন্ডপ প্রাঙ্গনে রাসোৎসব উদযাপন কমিটির উদ্যোগে মনিপুরী মৈ-তৈ সম্প্রদায়ের লোকজন ৩৩তম রাসোৎসব উদযাপন করে। উৎসব উপলক্ষে উভয় স্থানে বসে বিরাট মেলা। মণিপুরী সম্প্রদায়ের লোকজনের পাশাপাশি অন্যান্য জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে হাজার হাজার লোকজন মেতে উঠবে আনন্দ উৎসবে। মহারাত্রির আনন্দের পরশ পেতে আসা হাজার হাজার নারী-পুরুষ, শিশু-কিশোর, কবি- সাহিত্যিক, সাংবাদিক, দেশী-বিদেশী পর্যটক, বরেণ্য জ্ঞাণী- গুণী লোকজনসহ প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের পদচারনায় মুখরিত হয়ে উঠেছিলো গোটা উৎসব অঙ্গন। মণিপুরী সম্প্রদায়ের পূণ্যস্থাণ হিসাবে বিবেচিত মাধবপুর ও আদমপুরে রাসোৎসবের জন্য তৈরী সাদাকাগজের নকশায় সজ্জিত মন্ডপগুলো এই একটি রাত্রির জন্য হয়ে উঠেছিল লাখো মানুষের মিলনতীর্থ। মণিপুরী শিশু নৃত্যশিল্পীদের সুনিপুন নৃত্যাভিনয় রাতভর মন্ত্রমুগ্ধ করে রাখে ভক্ত ও দর্শনার্থীদের। মণিপুরী মহারাসলীলা সেবা সংঘ সাধারণ সম্পাদক শ্যাম সিংহ জানান, কমলগঞ্জ উপজেলার মাধবপুর জোড়া মন্ডপ প্রাঙ্গনে মণিপুরী মহারাসলীলা সংঘের উদ্যোগে গৌড়িয় বৈষ্ণব ধর্মাবলম্বী (বিষ্ণুপ্রিয়া) মণিপুরী সম্প্রদায়ের ১৭৬তম শ্রী শ্রী কৃষ্ণের মহারাসলীলানুসরন উৎসব উপলক্ষে কর্মসূচীর মধ্যে ছিলো বৃহষ্পতিবার সকাল ১১টা থেকে গোধূলীলগ্ন পর্যন্ত রাখাল নৃত্য (গোষ্ঠলীলা), সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত গুণীজন সংবর্ধনা, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। রাত সাড়ে ৯টা থেকে সাড়ে ১০টা পর্যন্ত সংকীর্তন, রাত ১১ টা থেকে পরদিন শুক্রবার ঊষালগ্ন পর্যন্ত শ্রী শ্রী কৃষ্ণের মহারাসলীলানুসরণ অনুষ্ঠান হয়।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সরকারী প্রতিশ্রুতি সর্ম্পকিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও সাবেক চিফ হুইপ উপাধ্যক্ষ ড.মো. আব্দুস শহীদ এমপি, গেষ্ট অব অনার ছিলেন অষ্ট্রেলিয়ান হাইকমিশনার  এইচ ই মিসেস জুলিয়া নিবলেট, আদিবাসী ফোরাম এর নেতা পিটিশন প্রধান সুচিয়ং প্রমুখ।
অপরদিকে রাসোৎসব উদযাপন কমিটি ২০১৮ এর আহবায়ক শৈল বার্বু সিংহ জানান, আদমপুর তেতইগাঁও উন্মুক্ত মঞ্চে মৈতৈ মণিপুরী সম্প্রদায়ের রাস উৎসবে কর্মসূচীর মধ্যে  সকাল ১১টায় রাখাল নৃত্য, সন্ধ্যা ৬টায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা ও আলোচনা সভা, রাত ৮টায় ভারতের মণিপুর থেকে মন্ত্রিত ও বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকার গুণী শিল্পীবৃন্দের অংশগ্রহণে মণিপুরী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, রাত ১০টায় নটকীর্তন অধিবাস ও রাত ১১টা থেকে মহারাস লীলা অনুষ্ঠিত হয়। প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সরকারী প্রতিশ্রুতি সর্ম্পকিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও সাবেক চিফ হুইপ উপাধ্যক্ষ ড.মো. আব্দুস শহীদ এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদ সদস্য তফাদার রিজুয়ানা ইয়াসমিন প্রমুখ।
মনিপুরী অধ্যূষিত মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার আদমপুরে ও মাধবপুরে আশ্বিন মাসের শেষ ভাগেই উৎসবের সাড়া পড়ে যায়। উপজেলার মণিপুরী সম্প্রদায়ের লোকের সঙ্গে অন্য সম্প্রদায়ের লোকেরাও মেতে ওঠে একদিনের এ আনন্দ উৎসবে। মণিপুরী সম্প্রদায়ের অপেক্ষাকৃত সংখ্যালঘু মৈতৈ ও বিষ্ণুপিয়া মনিপুরীদের আয়োজনে কমলগঞ্জের আদমপুর ও মাধবপুরের রাসোৎসবের জন্যে তৈরী মন্ডপগুলো ঐ একটি রাত্রির জন্যে হয়ে উঠে হাজারো মানুষের মিলন কেন্দ্র। সাদা কাগজের নকশায় সজ্জিত মন্ডপগুলোতে দূর-দূরান্ত থেকে আগত শিশু নৃত্য শিল্পীদের সুনিপুণ অভিনয় যেন মন্ত্রমুগ্ধ করে রাখে দর্শনার্থীদের। শনিবার ভোর রাতে রাসোৎবের সমাপ্ত হয়। রাসকে কেন্দ্র করে প্রশাসন কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহন করে। তুমুল হৈ-চৈ, আনন্দ-উৎসাহ, ঢাক, ঢোল, মৃদঙ্গ, করতাল এবং শঙ্খ ধ্বনির মধ্যদিয়ে রাধা-কৃষ্ণের লীলাকে ঘিরেই এই দিনটি বছরের অন্য সব দিন থেকে ভিন্ন আমেজ নিয়ে এসেছিলো কমলগঞ্জ উপজেলাবাসীর জীবনে।




এ বিভাগের অন্যান্য খবর




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: