সর্বশেষ আপডেট : ৩ মিনিট ৫৬ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ক্রিকেটকে বিদায় জানানোর সিদ্ধান্ত নিলেন রাজিন সালেহ (ভিডিও)

ক্রীড়া প্রতিবেদক ::

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক রাজিন সালেহ সবধরনের ক্রিকেট থেকে অবসর নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। শনিবার সিলেটে বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ের মধ্যকার টেস্ট চলাকালে মিডিয়া বক্সে এসে সাংবাদিকদের এ কথা জানান রাজিন। সিলেটের আয়োজকদের তরফ থেকে স্থানীয় ক্রিকেটারদের সম্মানসূচক আমন্ত্রণের অংশ হিসেবে ম্যাচ দেখতে এসেছেন তিনি। জানালেন চলতি জাতীয় ক্রিকেট লিগের (এনসিএল) শেষ রাউন্ডের ম্যাচ খেলেই নিজের ব্যাট-প্যাড তুলে রাখবেন ৩৪ বছর বয়সী এ ক্রিকেটার।

রাজিন সালেহ আলম..একমাত্র সিলেটি যিনি অধিনায়কত্ব করেছেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের। ২০০০ সালে বাংলাদেশের অভিষেক টেস্টে দ্বাদশ খেলোয়াড় ছিলেন তিনি।এর তিন বছর পর পাকিস্থানের বিরুদ্ধে টেস্ট অভিষেক। ডেভ হোয়াটমোরের প্রিয় এই ছাত্রের ছিল দারুন ফিল্ডিং প্রতিভা। ব্যাট করার পাশাপাশি ছিলেন বল হাতেও দক্ষ। ওয়ানডে টেস্ট দুটিতেই পেরিয়েছেন হাজার রানের গণ্ডি। ক্যারিয়ার এর একমাত্র সেঞ্চুরি কেনিয়ার বিপক্ষে। ২০০৪ সালে নিয়মিত অধিনায়ক হাবিবুল বাশারের ইঞ্জুরির কারনে চ্যাম্পিয়নস ট্রফি তে বাংলাদেশ কে নেতৃত্ব দেন রাজিন। কিন্তু প্রতিভা অনুযায়ি খেলা উপহার দিতে পারেন নি তিনি। শেষ দিকে অব্যাহত বাজে ফর্ম তাকে দুরে ঠেলে দেয় জাতীয় দল থেকে। ২০০৮ সাল পর্যন্ত ২৪টি টেস্ট ম্যাচ ও ৪৩টি একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন রাজিন।

শনিবার সকালে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সবধরনের ক্রিকেট থেকে নিজের অবসরের কথা জানিয়ে সংবাদ মাধ্যমকে রাজিন বলেন, ‘সবার আগে মহান সৃষ্টিকর্তাকে ধন্যবাদ জানাতে চাই। তার আশির্বাদের কারণেই আমি ২২ বছর ধরে ক্রিকেট খেলতে পেরেছি। আপনারা জানেন নযে আমি ৬ বছর বাংলাদেশ দলের হয়েও খেলেছি। আগামী ৫ নভেম্বর থেকে শুরু হতে যাওয়া এনসিএল ম্যাচটিই আমার খেলোয়াড়ি জীবনের শেষ ম্যাচ হতে চলেছে। এরপর আমি অবসর নিয়ে নেবো।’- কথাগুলো বলার সময় খানিক আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন তিনি।

এসময় সংবাদমাধ্যম কর্মীদেরকেও ধন্যবাদ জানান রাজিন। তিনি বলেন, ‘আমি আপনাদের তথা সকল সংবাদকর্মীদেরকে ধন্যবাদ জানাতে চাই। আপনাদের কারণেই আমি রাজিন সালেহ হতে পেরেছি। আমার পরিবার সবসময় আমার পাশে ছিল। আমি আপনাদের সকলের দোয়া কামনা করছি।’

আর ১৭ দিন পরেই নিজের ৩৫তম জন্মদিন পালন করবেন রাজিন। ১৯৮৩ সালে জন্ম নেয়া রাজিন টিনএজ বয়সে থাকতেই নিজের প্রতিভা দিয়ে নজর কেড়েছিলেন সবার। মাত্র ১৭ বছর বয়সে বাংলাদেশের ইতিহাসের প্রথম টেস্ট স্কোয়াডে জায়গা করে নিয়েছিলেন তিনি। পরে মাত্র ২০ বছর বয়সে জাতীয় দলের অধিনায়ক হয়ে গড়েছিলেন ইতিহাস।

তবে আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারটা খুব একটা সুখকর নয় তার। ২৪ টেস্টে করতে পারেননি কোনো সেঞ্চুরি। সাত হাফসেঞ্চুরিতে তার ক্যারিয়ারের মোট সংগ্রহ ১১৪১ রান। ওয়ানডেতে ২০০৬ সালে কেনিয়ার বিপক্ষে হাঁকিয়েছিলেন ক্যারিয়ারের একমাত্র সেঞ্চুরি। ৪৩ ওয়ানডেতে ১ সেঞ্চুরি ও ৬ ফিফটিতে তার রান ১০০৫।

সে তুলনায় ঘরোয়া ক্রিকেটে বেশ সফল সিলেটের এ ক্রিকেটার। ১৪৭টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচে হাঁকিয়েছেন ১৮টি সেঞ্চুরি ও ৪২টি হাফসেঞ্চুরি। তার মোট রান ৮৩২৭। ১৪০টি লিস্ট ‘এ’ ম্যাচ খেলা রাজিনের ঝুলিতে রয়েছে ৫টি সেঞ্চুরি ও ১৪টি হাফসেঞ্চুরির ইনিংস। যেখানে তার মোট রান ৩১৫৩।

Posted by Hasan Md Shamim on Saturday, November 3, 2018







নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: