সর্বশেষ আপডেট : ২১ মিনিট ৫৩ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ছাতকে লেপ-তোষক তৈরিতে ব্যস্ততা বেড়েছে কারিগরদের

ছাতক সংবাদদাতা:: ছাতকে ক’দিন হলো দরজায় কড়া নেড়েছে শীত। সন্ধ্যার পর থেকে অল্প অল্প কুয়াশা পড়তে শুরু করেছে। মাঝরাত থেকে সূর্যদয় পর্যন্ত হালকা শীত অনুভূত হচ্ছে। ভোরবেলা কুয়াশা জমে থাকছে ঘাসে আর লতা-পাতায়। তবে এখনো পুরোপুরি শীতের শুরু না হলেও অনুভূত হচ্ছে শীতের আমেজ। প্রচলিত রীতি অনুযায়ি এ উপজেলাসহ সারা দেশে কার্তিকে শীতের জন্ম হলেও অগ্রহায়ণ, পৌষ ও মাঘ এই তিন মাস শীত মৌসুম হিসেবে বিবেচিত হয়। আর এই শীত মোকাবেলায় আগাম প্রস্তুতি হিসেবে ইতোমধ্যেই লেপ-তোষক বানাতে লেপ-তোষকের দোকানগুলোতে ক্রেতাদের লক্ষণীয় ভিড় দেখা গেছে। অর্ডার নিয়ে কারিগররাও ব্যস্ত সময় পার করছেন লেপ-তোষক বানানোর কাজে। ক্রেতাদের আনাগোনায় জমজমাট হয়ে উঠেছে লেপ-তোষকের দোকানগুলো।

সিরাজগঞ্জ বাজারের এক লেপ-তোষকের ব্যবসায়ি জানান, ক্রেতারা শীতের কথা মাথায় রেখে আগেভাগেই লেপ-তোষক বানাতে অর্ডার দিচ্ছেন। অর্ডার পেয়ে কারিগররাও লেপ-তোষক বানানোর কাজে ব্যস্ত সময় পার করছে। তিনি জানান, একটি লেপ তৈরিতে একজন কারিগরের দেড় থেকে দুইঘন্টা সময় ব্যয় হয়। এভাবে একজন কারিগর দিনে গড়ে ৪/৫টি লেপ তৈরি করতে পারে। অনুরূপভাবে দিনে ৪/৫টি তোষক তৈরিতেও একই সময় ব্যয় হয়।
জাউয়া বাজারের আরেক ব্যবসায়ি জানান, শীত মৌসুমের শুরুর তিন মাস কারিগররা যে হারে লেপ-তোষক ও গদি তৈরিতে ব্যস্ত সময় কাটায়; বছরের অন্য সময় তা হয় না। বছরের প্রায় ৬ থেকে ৭ মাস তাদের অনেকটা অলস সময় কাটাতে হয়। ওই সময়টাতে কেউ কেউ ভিন্ন পেশা বেচে নেয়। ক’দিন ধরে আগাম শীতের আগমন বার্তায় প্রতিদিনই লেপ-তোষক তৈরির অর্ডার হচ্ছে।

গোবিন্দগঞ্জের আরেক ব্যবসায়ি জানান, তার দোকানে অর্ডারি লেপ-তোষক তৈরিতে এখন কারিগররা ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে। একেকজন কারিগর দিনে প্রায় ৫শ’ থেকে সাড়ে ৫শ’ টাকা উপার্জন করছে। তিনি আরো জানান, তুলা ও কাপড়ের দাম গত বছরের চেয়ে এবার কিছুটা বৃদ্ধি পেয়েছে। এ কারণে লেপ-তোষক, গদি তৈরিতে খরচ গত বছরের চেয়ে বেড়েছে। তবুও বেচাকেনা মন্দ নয় বরং ভালই হচ্ছে। শীতের তীব্রতা যতো বাড়বে বেচাকেনা আরো বৃদ্ধি পাবে বলে তিনি জানান।




এ বিভাগের অন্যান্য খবর




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: