সর্বশেষ আপডেট : ৩ মিনিট ৪৭ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ২১ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

দূর্গাপুজাকে পুঁজি করে অসামাজিকতা : জুড়ীতে অশ্লীল নৃত্য ও রমরমা জুয়ার আসর

বড়লেখা প্রতিনিধি ::

জুড়ীতে শারদীয় দূর্গাপুজায় প্রশাসনের নাকের ডগায় চা বাগানগুলোতে চলছে রমরমা জুয়ার আসর, যাত্রাগানের নামে অশ্লীল-নগ্ন নৃত্য আর মাদকের ছড়াছড়ি। নৃত্যের তালে তালে যুবকরা রঙ্গিন পানির নেশায় উন্মাতাল হয়ে বিপথগামী হচ্ছে। অপর দিকে আসাধু চক্র জুয়ার আসর বসিয়ে কামিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা। জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে জুয়াড়িরা ভিড় জমিয়েছে আসরগুলোতে। সচেতন মহলের অভিযোগ এসব অনৈতিক কর্মকান্ড চলছে প্রশাসন ও প্রভাবশালী মহলের ছত্রছায়ায়।

জানা গেছে, মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে প্রভাবশালীরা স্থানীয় পুলিশকে ম্যানেজ করে দুইটি চা বাগানের পুজামন্ডপে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আর যাত্রাগানের নামে চালিয়েছে অশ্লীল নৃত্যসহ নানা আসামাজিক কাজকাম। পাশেই বসিয়েছে জুয়ার বোর্ড। রহস্যজনক কারণে আইন শৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্বে নিয়োজিতরা জুয়ার আসর ছত্রভঙ্গ না করে জুয়াড়িদের যেন নিরাপত্তা প্রদান করেছে। এ যেন জুয়া খেলার স্বর্গরাজ্য। মঙ্গলবার রাত থেকে বৃহস্পতিবার রাত পর্যন্ত উপজেলার ফুলতলা ইউপির এলবিন টিলা ফাঁড়ি চা বাগান ও গোয়ালবাড়ী ইউপির রত্না চা বাগানের মন্ডপ ও এর অনতিদুরে সরেজমিনে এমন চিত্র দেখা গেছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেকেই জানান, মঞ্চে অশ্লীল নৃত্য আর পাশেই বসানো হয়েছে বড় বড় জুয়ার আসর ও মাদকের ব্যবসা। সূত্র জানায়, দুই রাজনৈতিক প্রভাবশালী ব্যক্তি জুয়ার প্রতি বোর্ড থেকে প্রতিরাতে ২০ থেকে ৩০ হাজার টাকা নিয়ে জুয়ার আসর বসানোর অনুমতি দিয়েছে। তাদের এমন অসামাজিক কর্মকান্ডে হতবাক এলাকাবাসী।

জুড়ী থানার ওসি জাহাঙ্গির হোসেন সরদার জানান, উপজেলার কোথাও জুয়ার আসর বসার কোন তথ্য তিনি জানেন না। কেউ জুয়ার আসর বসিয়ে থাকলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিবেন।




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: