সর্বশেষ আপডেট : ২৮ মিনিট ২ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১ পৌষ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

৪০ ঘণ্টা পর মানারত বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী দুই নারী জঙ্গির আত্মসমর্পণ

নিউজ ডেস্ক:: ৪০ ঘণ্টা অবরুদ্ধ থাকার পর নরসিংদীর মাধবদীর ছোট গদাইরচর (গাঙপার) মহল্লার সাত তলা বাড়ি থেকে দুই নারী জঙ্গি আত্মসমর্পণ করেছেন।ওই বাড়িটির সপ্তম তলায় সন্দেহভাজন জঙ্গিদের আস্তানা রয়েছে জানিয়ে সোমবার থেকে (১৫ অক্টোবর) বাড়িটি ঘিরে রাখে পুলিশ।মঙ্গলবার (১৬ অক্টোবর) থেকে বাড়ির অন্য বাসিন্দাদের বের করে এনে জঙ্গিদের আত্মসমর্পণ করতে আহ্বান জানানো হচ্ছিল।এর পরিপ্রেক্ষিতে বুধবার (১৭ অক্টোবর) দুপুর আড়াইটার দিকে আত্মসমর্পন করেন দুই নারী।

এরা হলেন খাদিজা আক্তার মেঘনা এবং মৌ।এদের মধ্যে মেঘনাকে ২০১৭ সালে হলি আর্টিজানে হামলার পর গ্রেপ্তার করেছিল র‌্যাব।তবে পরে জামিনে মুক্তি পান তিনি।পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিটের প্রধান অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মো.মনিরুল ইসলাম সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।তিনি আরো জানান,মঙ্গলবার শেখেরচরে যখন অপারেশন গর্ডিয়ান নটে নিহত দুইজনেরও পরিচয় পাওয়া গেছে।তারা হলেন আবু আবদুল্লাহ আল বাঙালী ও আকলিমা আক্তার মনি।

এই চারজনের মধ্যে মেঘনা, মৌ এবং নিহত মনি তিনজনই রাজধানীর বেসরকারি মানারত বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বলে জানান মনিরুল ইসলাম।এছাড়া নিহত আবু আবদুল্লাহ আল বাঙালী নব্য জেএমবির মিডিয়া শাখার প্রধান ছিলেন বলে জানান তিনি।

এর আগে সকালে এই কর্মকর্তা বলেছিলেন,মঙ্গলবার শেখেরচরে যখন অপারেশন গর্ডিয়ান নট চালানো হচ্ছিলো তখন একইসঙ্গে এই বাড়িতে অবস্থানরত জঙ্গিদের সঙ্গে ‘নেগোসিয়েশন’ চালানো হচ্ছিল।তিনি বলেন, ‘সোয়াট অপারেশনে না গিয়ে যদি নেগোসিয়েশনের মাধ্যমেই তাদের আত্মসমর্পনে বাধ্য করানো যায় সে চেষ্টাটি চালিয়ে যাবো। যদি সেই ক্ষেত্রে ব্যর্থ হই তাহলে তো এই ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় আমরা রেখে দিতে পারি না সেক্ষেত্রে তো আমরা উপায়ন্তর না থাকলে তখন হয়তো আমরা অপারেশনে অর্থাৎ যে মূল অপারেশনে যাবো।’

প্রাথমিকভাবে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী ওই বাসায় কমপক্ষে দুইজন জঙ্গি সদস্য রয়েছেন বলে জানান এই কর্মকর্তা। তিনি বলেন,এরা আগের জঙ্গি মামলার আসামি বলেও জানা গেছে।সোমবার (১৫ অক্টোবর) রাত ৯টা থেকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীর সদস্যরা বাড়িটি ঘিরে রেখেছেন।তবে কখন নাগাদ অভিযান শুরু হবে সে সম্পর্কে স্পষ্ট করে কিছু বলা হয়নি।

পুলিশের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ১৪৪ ধারা জারির পর থেকে পুরো এলাকায় সতর্ক অবস্থান নিয়েছেন তারা। মহল্লার কেউ যেন বাড়ির বাইরে বের না হয় এবং বাড়ির দরজা জানালা বন্ধ করে রাখা হয় সে বিষয়ে বারবার মাইকিং করে বলা হচ্ছে।এছাড়া সাংবাদিকসহ কেউ যেন কোন বাড়ির ছাদে না ওঠেন সেজন্যও সতর্ক করে দেওয়া হচ্ছে।মাইকিং করে বলা হচ্ছে আশপাশের দোকান-পাট-স্কুল-কলেজ-মাদ্রাসা বন্ধ থাকবে।

মাধবদী ও শেখেরচরের বাড়িদুটি একই সঙ্গে ঘেরাও করে পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসি) সদস্যরা।এর মধ্যে শেখেরচরের পাঁচতলা বাড়িটিতে মঙ্গলবার (১৬ অক্টোবর) দিনভর চলে অভিযান।অভিযানে নিহত হন এক নারী ও এক পুরুষ।

মঙ্গলবার বিকেল ৪টার দিকে সিটিটিসি প্রধান,অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মো.মনিরুল ইসলাম আনুষ্ঠানিকভাবে অপারেশন ‘গর্ডিয়ান নট’ সমাপ্ত ঘোষণা করেন।এ সময় তিনি জানান,অভিযানে এক নারী ও এক পুরুষ মারা গেছেন।তারা নব্য জেএমবির সদস্য বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: