সর্বশেষ আপডেট : ৩০ মিনিট ১৯ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৩১ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

নিরাপত্তা শঙ্কায় বাংলাদেশে না আসা হেলসই এবার রংপুর রাইডার্সে

স্পোর্টস ডেস্ক :: টাকা কথা বলে! বছর দুয়েক আগে বাংলাদেশ সফরের ইংল্যান্ড দল থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছিলেন নিরাপত্তা শঙ্কার অজুহাত তুলে। এবার সেই অ্যালেক্স হেলসই খেলতে আসছেন বাংলাদেশে। টাকার ঝনঝনানির কাছে নিরাপত্তা শঙ্কা যেন বিলীন হয়ে গেছে। ইংল্যান্ডের মারকুটে ওপেনার বিপিএলের সামনের মৌসুমে খেলবেন রংপুর রাইডার্সের হয়ে।

২০১৮-১৯ মৌসুমের জন্য বিপিএল ফ্রাঞ্চাইজি রংপুর রাইডার্সের সঙ্গে চুক্তি হয়েছে হেলসের। দলের প্রধান নির্বাহী ইশতিয়াক সাদেক এই বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। বিদেশি খেলোয়াড়ের চুক্তিতে আসা দুই খেলোয়াড়ের মধ্যে প্রথমজন হেলস। তিনি যুক্ত হলেন রংপুরের ধরে রাখা চার খেলোয়াড় ক্রিস গেইল, মাশরাফি বিন মর্তুজা, নাজমুল ইসলাম অপু এবং মোহাম্মদ মিঠুনের সঙ্গে।

২০১৬ সালে ইংল্যান্ডের বাংলাদেশ সফর থেকে নাম প্রত্যাহার করে নেয়া দুই খেলোয়াড়ের মধ্যে একজন ছিলেন হেলস। অপরজন ওয়ানডে অধিনায়ক ইয়ন মরগান। সে সময় এই দুই ক্রিকেটারকে নিয়ে সমালোচনা হয় খোদ ইংল্যান্ডে। তবু তারা সিদ্ধান্তে অনড় ছিলেন। অথচ ওই সফরটি নির্বিঘ্নে শেষ করে যায় ইংলিশ দল।

আগামী বছরের জানুয়ারিতে বিপিএলের এবারের আসর মাঠে গড়ানোর কথা। রংপুর রাইডার্সে কোচ টম মুডির সঙ্গে বেশ ভালোই জমবে হেলসের। কেননা আইপিএলে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের খেলোয়াড় হিসেবে কোচ মুডির সঙ্গে বোঝাপড়া আছে ইংলিশ এই ওপেনারের।

এদিকে এবার চিটাগং ভাইকিংসের নাম প্রত্যাহার করে নেয়ার গুঞ্জন থাকলেও শেষ পর্যন্ত পুরোনো মালিকানায় থাকছে দলটি। ডিবিএল গ্রুপ চিটাগং ভাইকিংসের মালিক। ৪ অক্টোবর নিজেদের ধরে রাখা খেলোয়াড়ের নামও প্রকাশ করেছে দলটি। চিটাগংয়ের ধরে রাখা চার খেলোয়াড় হলেন-লুক রঞ্চি, সিকান্দার রাজা, নাজিবুল্লাহ জাদরান এবং সানজামুল ইসলাম।



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: খন্দকার আব্দুর রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: