সর্বশেষ আপডেট : ১৫ মিনিট ১২ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

দুই প্রতিযোগীর ‘হাস্যকর’ জবাব, এবারও প্রশ্নবিদ্ধ মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ

বিনোদন ডেস্ক:: ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ নিয়ে সমালোচনা যেন থামছেই না। গত বছর প্রথমে বিজয়ী হিসেবে হিমির নাম ঘোষণা করেন বিচারক। পরক্ষণেই অন্তর শোবিজের কর্ণধার স্বপন চৌধুরী মঞ্চে গিয়ে জান্নাতুল ফেরদৌস এভ্রিলকে মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ হিসেবে বিজয়ী ঘোষণা করেন। পরে তথ্য গোপনের অভিযোগে তাকে বাদ দেওয়া হয় বিজয়ীর তালিকা থেকে।নতুন করে জেসিয়া ইসলামকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয় ওই প্রতিযোগিতায়। এরপর জেসিয়া ইসলাম চীনে মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেন।

এবার শত শত প্রতিযোগীকে হারিয়ে মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশের মুকুট জিতেছেন জান্নাতুল ফেরদৌস ঐশী। গতকাল রোববার রাত ১২টায় ইন্টারন্যাশনাল কনভেন সিটি বসুন্ধরার রাজদর্শন হলে এবারের আসরের বিজয়ীর নাম ঘোষণা করা হয়। এবার দ্বিতীয় হয়েছেন ‌নিশাত মাওয়া সালওয়া। তৃতীয় হয়েছেন না‌জিবা বুশরা। অনুষ্ঠান চলাকালীন সময়েই বিচারকদের প্রশ্ন এবং প্রতিযোগিদের উত্তর নিয়ে সমালোচনার ঝড় ওঠে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে।

এবার চূড়ান্ত পর্যায়ে উত্তীর্ণ ১০ প্রতিযোগী ছিলেন- নিশাত নাওয়ার সালওয়া, মনজিরা বাশার, ইশরাত জাহান সাবরিন, স্মিতা টুম্পা বাড়ৈ, আফরিন সুলতানা লাবণী, সুমনা নাথ অনন্যা, নাজিবা বুশরা, জান্নাতুল মাওয়া, শিরীন শিলা এবং জান্নাতুল ফেরদৌস ঐশী।

বিচারক খালেদ আহমেদ সুজন প্রতিযোগী আফরিন সুলতানা লাবণীর কাছে জানতে চান, H2O মানে কি? উত্তরে লাবণী কিছু বলতে না পারলে খালেদ আহমেদ সুজন বলে দেন, H2O মানে হলো পানি। এরপর লাবণী বলেন, স্যার H2O নামে একটা রেস্টুরেন্ট আছে ধানমন্ডিতে। এরপর সুজন বিরক্ত হয়ে বলেন, H2O মানে রেস্টুরেন্ট এটা জানি, কিন্তু H2O মানে পানি এটা জানি না ভেরি স্যাড।

এরপর বিচারক ইমি প্রশ্ন করেন সুমনা নাথক অনন্যাকে। শুরুতেই ইমি বলেন, ‘আমি ইন্টেলেকচুয়াল অত প্রশ্ন করতে পারি না। এখানে সব গর্জিয়াস লেডিরা দাঁড়ানো, এখানে ইন্টেলেকচুয়াল প্রশ্ন করা ঠিক হবে না। আমি একেবারে ইজি একটা কোশ্চেন করবো সেটা হচ্ছে, তোমাকে যদি তিনটা উইশ দেওয়া হয়, নিজের জন্য একটা উইশ করতে পারবে, অথবা ফ্যামিলির জন্য একটা উইশ করতে পারবে অথবা দেশের জন্য একটা উইশ করতে পারবে। তুমি এই তিনটা থেকে কোন উইশটা চুজ করবে? যে উইশটা চুজ করবে সে উইশটা কি?’

উত্তরে সুমনা নাথ অনন্যা বলেন, ‘অ্যাট ফার্স্ট আমি প্রথমে যেটা উইশ করতে চাই সেটা আমার কান্ট্রির জন্য। বাংলাদেশে অনেক বড় সি-বীচ রয়েছে কক্সবাজার, দ্বিতীয় অনেক সুন্দর সুন্দরবন রয়েছে ও অনেক অনেক বড় বড় পাহাড় পর্বত রয়েছে আমি এই গুলোকেই উইশ করবো!’অনন্যার জবাব শুনে প্রশ্নকর্তা ইমিও কিছুটা বিব্রত হন। হলভর্তি দর্শকও হেসে ওঠেন।

মুহূর্তেই দুই প্রতিযোগীর ‘হাস্যকর’ জবাবের ভিডিও ক্লিপ দুটি ভাইরাল হয়ে যায় সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে। একের পর এক স্ট্যাটাস দেওয়া শুরু হয়ে যায় এই দুটি বিষয়কে ব্যাঙ্গ করে।

অধিকাংশ মানুষ মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ ২০১৮ নিয়ে হাসি তামাশায় মেতে ওঠেন। অনেকেই আবার পক্ষেও সাফাই গেয়েছেন। সুন্দরী প্রতিযোগিতায় এ ধরনের প্রশ্ন করা ঠিক কি না, এমন প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই।

আয়োজক প্রতিষ্ঠান অন্তর শোবিজ বলছে, দ্রুত সময়ে এবার মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ বাছাই করা হয়েছে। প্রতিযোগিদের গ্রুমিং করানোর জন্য বেশি সময় হাতে ছিল না। তাই এমন হয়েছে। পরবর্তী আরও একটু সময় পেলে হয়তো এই ধরনের সমস্যা হতো না। তবে আগামীতে ছোট ছোট ভুলগুলো মাথায় রেখে আরও বেশি সচেতন হবে অন্তর শোবিজ।




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: