সর্বশেষ আপডেট : ২২ মিনিট ৭ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

‘দেশে হৃদরোগ চিকিৎসার যুগান্তকারী পরিবর্তন এসেছে, চিকিৎসার জন্য দেশের বাইরে যাওয়ার প্রয়োজন নেই’

হৃদরোগ থেকে বেচে থাকতে হলে আমাদের জীবনযাত্রার পরিবর্তন আনতে হবে। সেজন্য প্রয়োজন গণসচেতনতা। আজ বিশ্ব হার্ট দিবসে আমার আপনার সুযোগ এসেছে হার্টকে সুস্থ রাখার শপথ নেয়ার।  শনিবার সকালে বিশ্ব হার্ট দিবস ২০১৮ উপলক্ষে ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন আয়োজিত গণমূখী সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ মোর্শেদ আহমদ চৌধুরী এ কথা বলেন। তিনি আরো বলেন শরীরের সবচেয়ে বড় এবং মূল্যবান অঙ্গ হচ্ছে হার্ট। সেটি বন্ধ হলে পুরো শরীরের কর্মক্ষমতা বন্ধ হয়ে যায়। সুতরাং তাকে সতেজ করে রাখতে হলে প্রতিরোধের উপর গুরুত্ব দিতে হবে যাতে এই রোগ শরীরে বাসা বাঁধতে না পারে। তিনি বলেন আমাদের দেশে হৃদরোগ চিকিৎসার যুগান্তকারী পরিবর্তন এসেছে। চিকিৎসার জন্য দেশে বাইরে যাওয়ার প্রয়োজন আছে বলে মনে করি না। অধ্যক্ষ ডাঃ মোর্শেদ হৃদরোগের ক্ষতিকর দিক তুলে ধরার ক্ষেত্রে সংবাদ কর্মি এবং রাজনীতিবিদদের ভূমিকা উপর গুরুত্ব আরোপ করেন।
ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন সিলেট এর সভাপতি সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ এম এনায়েত উল্লাহ’র সভাপতিত্বে এবং পাবলিসিটি সেক্রেটারী আবু তালেব মুরাদের সঞ্চালনায় শুরুতে কার্যকরি কমিটির সদস্য মোঃ আব্দুস সাত্তার কর্তৃক কোরআন থেকে তেলাওয়াতের পর স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন সাংগঠনিক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার শোয়েব আহমদ মতিন।

সভাপতির বক্তব্যে অধ্যাপক ডাঃ এম এনায়েত উল্লাহ বলেন বিশ্ব ব্যাপী জনগণকে হৃদরোগ সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য জানানো এবং এর ঝুঁকি সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টি এবং প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করতে উদ্বুদ্ধ করার জন্য বিশ্ব হার্ট দিবসের আয়োজন। তিনি বলেন ওয়ার্ল্ড হার্ট ফেডারেশন এর উদ্দ্যোগে প্রতি বছরের ন্যায় এবারও ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন সিলেট বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে এ দিবসটি উদযাপন করছে। তিনি বলেন হৃদরোগের ঝুঁকি সম্পর্কে জনগণের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি করাই এই দিবসের মূল লক্ষ্য। অধ্যাপক ডাঃ এম এনায়েত উল্লাহ চিকিৎসকদের উদ্দ্যেশ্যে বলেন আপনারা রোগীর প্রয়োজনের উপর ব্যবস্থা পত্র প্রদান করবেন। অতিরিক্ত ঔষধ না লেখার জন্য ডাক্তারদের পরামর্শ দেন। তিনি বলেন চিকিৎসকরা সবসময় রোগীদের কাছে হৃদরোগের ক্ষতিকারক দিক তুলে ধরতে হবে।

এর আগে বিশ্ব হার্ট দিবস এর তাৎপর্য এবং এবারের প্রতিপাদ্য বিষয়ের উপর বক্তব্য রাখেন সিলেট ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডশন হাসপাতালের কনসালটেন্ট ডাঃ মোঃ ইকবাল আহমদ, হৃদরোগের ঝুঁকি সম্পর্কে আলোচনায় অংশ নেন কনসালটেন্ট ডাঃ রাজীব দাস এবং হৃদরোগ প্রতিরোধ ও প্রতিকারের বিষয়ে আলোকপাত করেন কনসালটেন্ট ডাঃ ফারজানা তাজিন।
এছাড়াও অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন কার্যকরিকমিটির সদস্য এম এ করিম চৌধুরী, সাংবাদিক কলামিস্ট আফতাব চৌধুরী। সবাইকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে বক্তব্য রাখেন হাসপাতালের সিইও কর্ণেল (অবঃ) শাহ আবিদুর রহমান।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ইন্টারন্যাশনাল রিলেশন সেক্রেটারী এস আই আজাদ আলী, কার্যকমিটির সদস্য সাংবাদিক আব্দুল মালিক জাকা, ফজলুল হোসেন, ডাঃ মোস্তফা শাহজামান চৌধুরী বাহার, এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন সিলেট গণদাবী ফোরামের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এডভোকেট চৌধুরী আতাউর রহমান আজাদ, শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ আজিজুর রহমান, এক্সেলসিওর সিলেট এর এমডি সাংবাদিক সাঈদ চৌধুরী, সাংবাদিক ছমর উদ্দিন মানিক, যুব সংগঠক কয়েছ আহমদ সাগর, আমেরিকা প্রবাসী হাছনা আহমেদ, সাখাওয়াত হোসেন সুহেল, অত্র হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডাঃ মোঃ আব্দুল মুনিম চৌধুরী, কনসালটেন্ট ডাঃ অনিক রায়, কনসালটেন্ট ডাঃ সুলতানা জাহান, এসএমও ডাঃ বর্ষা রায় চৌধুরী, এসএমও ডাঃ মোঃ এমদাদুল হক চৌধুরী, ডাঃ ফাতেমা ইমানা নূরী, ডাঃ বুশরা আল আজীমা, ডাঃ মোঃ আশরাফুল ইসলাম এবং ডাঃ ফারহানা আক্তার হৃদি।
এছাড়াও বিশ্ব হার্ট দিবস উপলক্ষে গণমূখী সেমিনারের পূর্বে সিলেট ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতাল থেকে গণসচেতনতামূলক একটি র‌্যালী বের করা হয়। – বিজ্ঞপ্তি




এ বিভাগের অন্যান্য খবর




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: