সর্বশেষ আপডেট : ১৭ মিনিট ১৩ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সন্ন্যাসিনীকে দেহ ব্যবসায়ী বলে বিতর্কে কেরালার বিধায়ক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: রোমান ক্যাথলিক বিশপ ফ্রাঙ্কো মুলাক্কেলের হাতে ধর্ষিত এক সন্ন্যাসিনীকে দেহ ব্যবসায়ী বলে বিতর্কে জড়িয়েছেন ভারতের কেরালার এক বিধায়ক।

পিসি জর্জ নামে ওই বিধায়কের দাবি, ওই সন্ন্যাসিনী ১২ বার বিশপের সঙ্গে যৌন সংস্রবে মিলিত হন। কিন্তু ১৩ বারের মাথায় তিনি বিশপের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনেছেন। বিধায়কের প্রশ্ন ওই সন্ন্যাসিনী প্রথমবার ধর্ষণ হওয়ার পর কেন অভিযোগ জানাননি?

‘এ বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই ওই সন্ন্যাসিনী একজন দেহ ব্যবসায়ী। ১২ বার তিনি যৌন সংস্রবে মিলিত হয়েছেন। আর ১৩ বারের মাথায় সেটা ধর্ষণ হয়ে গেল। কেন তিনি প্রথমেই অভিযোগ জানালেন না?’

তার এই মন্তব্যে শোরগোল ফেলে দিয়েছে কেরালাজুড়ে। শনিবার সকালে সন্ন্যাসিনী ধর্ষণের ঘটনায় জলন্ধর এলাকার বিশপকে গ্রেফতারের দাবিতে পথে নামনে কোচির সন্ন্যাসিনীরা। প্রতিবাদে মুখর হন তারা।

ঘটনার কেন্দ্রস্থল কোট্টায়ামের একটি আশ্রম। এখানেই বিশপ মুলাক্কেল এক সন্ন্যাসিনীকে ধর্ষণ করেন বলে অভিযোগ। সেই আশ্রমের পাঁচজন সন্ন্যাসিনীও এই প্রতিবাদে অংশ নেন।

অভিযোগ রয়েছে, আক্রান্ত ওই সন্ন্যাসিনীর অভিযোগের ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেয়নি কেউ। চার্চ, পুলিশ, প্রশাসন সুবিচারের আশায় সবার দরজায় কড়া নাড়লেও কিছুই লাভ হয়নি।

জানা গেছে, গত ১২ জুন ওই সন্ন্যাসিনী স্থানীয় কুরাভিলাঙ্গদ থানায় বিশপের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ আনেন। অভিযোগে বলা হয়, ২০১৪ সাল থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত একাধিকবার তাকে ধর্ষণ করেন ফ্রাঙ্কো মুলাক্কেল।

প্রাথমিক তদন্তে ধর্ষণের ব্যাপারে নিশ্চিত হয়েছে পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, বিশপ নিজের ক্ষমতার অপব্যবহার করে সন্ন্যাসিনীকে একাধিকবার ধর্ষণ করেছে।




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: