সর্বশেষ আপডেট : ৩৪ মিনিট ৫২ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সিলেট পৃথক সন্ত্রাসী হামলা : একমাসে প্রাণ গেল রাজনগরের দুই নেতার

মুবিন খান, রাজনগর:
২১ দিনের মাথায় পৃথক পৃথক সন্ত্রাসী হামলায় সিলেটে নিহত হয়েছেন মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলার স্থায়ী বাসিন্দা বড় দুই দলের দুই নেতা। এনিয়ে রাজনগর জুড়ে চলছে ব্যাপক আলোচনা সমালোচনা। রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি, নিজেদের মধ্যে অন্তর দ্বন্দ ও দলীয় গ্রুপিং এর কারনেই এমনটা ঘটছে। প্রশাসন আরো সতর্ক না হলে প্রতিনিয়ত বাড়বে এমন মৃত্যুর মিছিল। এ হত্যাকান্ডের জন্য তারা দলীয় শীর্ষ নেতৃবৃন্দ ও প্রশাসনকে দায়ী করছেন। তারা আরো বলেন, পূণ্যভুমি সিলেট এখন সন্ত্রাসীদের আস্তানায় পরিণত হচ্ছে।

জানা যায়, গত ১১ই আগষ্ট সিলেটে মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর বাসার সামনে ছাত্রদলের অভ্যন্তরীণ দ্বন্দে নিহত হন মহানগর ছাত্রদলের সাবেক সহ-প্রচার সম্পাদক ফয়জুর রহমান রাজু। রাজু রাজনগর উপজেলার ফতেপুর ইউনিয়নের শাহপুর গ্রামের ফজর আলী’র ছেলে। রাজু নিহতের শোক কাটাতে না কাটাতেই ৩১ আগস্ট রাতে সিলেট নগরীতে ফের সন্ত্রাসীদের হামলায় নিহত হন কুয়েত প্রবাসী আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল আহাদ। নিহত আহাদ সাবেক রাজনগর উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা, আওয়ামীলীগ কুয়েত শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক এবং সিলেট বিভাগীয় লেখক ফোরাম কুয়েত শাখার সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। সে রাজনগর উপজেলার করিমপুর মেদিনীমহল গ্রামের নুর মিয়ার পুত্র।

দুই দলের দুই নেতার লাশ যেন রাজনগরবাসীর প্রাণে আঘাত এনেছে। কিছুতেই ওই হত্যাকান্ড দুটি মেনে নিতে পারছেন না উপজেলাবাসী। এনিয়ে উপজেলা এমনকি জেলা জুড়ে চলছে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা। ক্ষোব্ধ এলাকাবাসী হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে মানববন্ধন, রাস্তা অবরোধ ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছেন।

এলাকাবাসী বলছেন, যদিও তারা বাহিরে রাজনীতির সাথে জড়িত তবে এলাকায় তারা সবার প্রিয় ছিলো। দলীয় পরিচয়ে তাদেরকে তেমন কেউ না জানলেও ব্যক্তি হিসেবে তাদেরকে সবাই ভালোবাসতো। রাজু সবার সাথেই হাসিখুশি কথা বলতো। গ্রামের সবার সাথেই তার বেশ ভালো সম্পর্ক ছিল। সিলেট থেকে বাড়ি ফিরেই সে এলাকার মানুষের খোঁজ খবর নিত। বিশদিন আগে সিলেটে রাজু হত্যা ও প্রবাসী আহাদের মৃত্যুতে রাজনগরে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। সিলেট যেতে ভয় পাচ্ছেন এখন অনেকেই।
এদিকে আহাদ হত্যায় তার পরিবারে চলছে শোকের মাতম। কেনো সিলেটে রাজনগরের রাজনৈতিক ব্যক্তিরা বারবার হামলার শিকার হচ্ছে? সেই প্রশ্ন এখন রাজনগরের সর্বস্তরের মানুষের।

এবিষয়ে রাজনগরের সচেতন নাগরিকরা বলেন, শাহ জালালের পূণ্যভুমি সিলেটে পর পরই দলীয় কুন্দলে দুটি হত্যাকান্ড কিছুতেই মেনে নেয়া যাচ্ছেনা। রাজনীতিক সংস্কৃতির অবক্ষয় ও দলীয় আদর্শ থেকে সরে যাওয়াই এধরনের ঘটনা ঘটছে। এজন্য তারা দলীয় শীর্ষ পর্যায়ের নেতা ও প্রশাসনের ব্যর্থতাকে দায়ি করছেন।




এ বিভাগের অন্যান্য খবর




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: