সর্বশেষ আপডেট : ৩ মিনিট ৪৭ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ২০ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সিলেট জাতীয়তাবাদী পরিবারের মানববন্ধন

সিলেট মহানগর ছাত্রদলের সাবেক সহ প্রচার সম্পাদক ফয়জুল হক রাজুর হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে সিলেট জাতীয়তাবাদী পরিবারের উদ্যোগে ২৯ আগস্ট বুধবার দুপুর ১২টায় সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
মানববন্ধনে সিলেটের বিএনপি, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, ছাত্রদল সহ অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

মহানগর ছাত্রদলের সহ সভাপতি (পদত্যাগকারী) সুহেল রানার সভাপতিত্বে ও জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক (পদত্যাগকারী) সুহেল ইবনে রাজা ও মহানগর ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক শাকিলুর রহমান শাকিলের যৌথ পরিচালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিলেট মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইন বলেন, খুনীরা কোন দলের নয়। তাদের হাতে কেউ নিরাপদ নয়। বিএনপিতে খুনীদের কোনো স্থান নেই। সিটি নির্বাচনের বিএনপির বিজয় প্রাক্কালে খুন করে খুনীরা প্রমাণ করলো তারা সরকারের এজেন্ট হিসেবে দলের মধ্যে ঘাপটি মেরে রয়েছে। তাই খুনীদের দ্রুত গ্রেফতার করতে প্রশাসনের কাছে জোর দাবি জানান। পাশাপাশি তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য তিনি দলের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের প্রতি জোর দাবি জানান।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রব চৌধুরী ফয়ছল বলেন, দলের এই ক্রান্তিলগ্নে যখনই আমরা ফ্যাসিস্ট আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে লড়াই করে ধানের শীষকে বিজয় করেছি ঠিক সেই মুহুর্তে ধানের শীষের বিজয়কে যারা মেনে নিতে পারেনি তারাই রাজুকে হত্যা করেছে। রাজু সিটি নির্বাচনে ধানের শীষের পক্ষে সক্রিয় ভূমিকা রেখেছিল, যা খুনীরা সহ্য করতে পারেনি। তাই তাদের হিংসা চরিতার্থ করতে রাজুকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়। তিনি রাজু হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জন্য প্রশাসনের কাছে জোর দাবি জানান।

মহানগর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আজমল বখত সাদেক বলেন, রাজু ছিল ছাত্রদলের সম্ভাবনার প্রতীক। অত্যন্ত বিনয়ী ও মেধাবী এই ছাত্রনেতাকে পরিকল্পিতভাবে একটি সন্ত্রাসী গোষ্ঠী তাকে হত্যা করে। রাজু হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে আজ বিএনপি পরিবার ঐক্যবদ্ধ। তার বিচারের স্বার্থে যতটুকু সহযোগীতা প্রয়োজন মহানগর বিএনপি তা করবে বলে আশ্বস্থ করে তিনি বলেন, যারা খুন করেছে তারা যেমন অপরাধী, যারা খুনীদের প্রশ্রয় দেবে তারাও সমান অপরাধী। তাই খুনীদের দ্রুত গ্রেফতার ও সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি জোর দাবি জানান।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহ্বায়ক মওদুদুল হক, জেলা বিএনপির দপ্তর সম্পাদক এডভোকেট ফখরুল ইসলাম, সহ ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক ফখরুল ইসলাম, জেলা ছাত্রদলের সাবেক সহ সভাপতি মিফতাউল কবির মিফতা, জেলা জাসাস’র সহ সভাপতি রাসেল আহমদ, মহানগর ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক আজিজ হোসেন আজিজ, জেলা ছাত্রদলের সাবেক সহ সভাপতি অর্পণ ঘোষ, শাহীন আহমদ, জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এখলাছুর রহমান মুন্না, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক দেওয়ান রেজওয়ান, জাকির হোসেন, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল খালিক মিল্টন, সাবেক সহ সাংগঠনিক সম্পাদক সুমেল আহমদ চৌধুরী, মুহি উদ্দিন মুহিন, স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা বেলাল আহমদ, জেলা ছাত্রদলের সিনিয়র সহ সভাপতি (পদত্যাগকারী) নজরুল ইসলাম, সহ সভাপতি (পদত্যাগকারী) মাসরুর রাসেল, সাবেক সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আশরাফ উদ্দিন রুবেল, এমরুল হোসেন হিমেল, দিলদার হোসেন শামীম, আব্দুস সালাম, সাবেক সাহিত্য ও প্রকাশনা সম্পাদক কামরান আহমদ, মঞ্জু হোসেন, ইমরান আহমদ, বাবুল হোসেন, আব্দুল আহাদ সুমন, কুটন আহমদ, এমসি কলেজ ছাত্রদলের আহ্বায়ক বদরুল আজাদ রানা, জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক (পদত্যাগকারী) আনোয়ার হোসেন রাজু, সেলিম মিয়া, রুবেল আহমদ রানা, ঝলক আচার্য্য, মিসবাউল আম্বিয়া, আমিনুল ইসলাম, ইমন আহমদ, এনামূল হক ঝুমন, জেলা জাসাস’র সাংগঠনিক সম্পাদক রায়হান এইচ খান, ল’কলেজ ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আবু ইয়ামিন চৌধুরী, মহানগর ছাত্রদলের সহ সাধারণ সম্পাদক (পদত্যাগকারী) আবুল হোসেন, মহানগর জাসাসের যুগ্ম সম্পাদক সিএম আরিফ আব্দুল্লাহ, মহানগর ছাত্রদলের সাবেক কর্মসূচী প্রণয়ন সম্পাদক সুলতান আহমদ চৌধুরী, মিজানুর রহমান, শাহজাহান আহমদ, সুমন আহমদ, সবুজ আহমদ, রাহাত আহমদ, আরিফুল ইসলাম সুমন, সুজন আহমদ, ল’ কলেজ ছাত্রদল নেত্রী পনির রহমান, ছাত্রদল নেতা মাসুম আহমদ শাফিন, রাসেল আহমদ, পাপলু আহমদ, সুলতান আহমদ, শাহাজাহান চৌধুরী মাহি, মিনহাজ সিরাজ, আরিফ ইকবাল, আলী বাহার, মিসবাহ উদ্দিন ইমন, কামিল আহমদ, মিজানুর রহমান চৌধুরী মিজান, সালমান ফার্সি, জাহিদ শিকদার, তানভীর খান সজীব, এনামূল হক, দিলোয়ার হোসেন, রাব্বি আহমদ, মাসুম আহমদ শামীম, চৌধুরী সোবহান আজাদ, সাহিদুর রহমান বিপ্লব, রিপন আহমদ, সানোয়ার হোসেন সজীব, ইমরান আহমদ রাফি, বখতিয়ার হোসেন প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, রাজু ছিল সিলেটে ছাত্রদলের পরিচ্ছন্ন কর্মী। রাজু সিলেট ছাত্রদলের অযোগ্য কমিটি বিরুদ্ধে সোচ্ছার ছিল, যেকারনে স্বার্থান্বেষী মহল রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের লক্ষ্যে তাকে হত্যা করে। হত্যাকান্ডের ২০ দিন পেরিয়ে গেলেও এখনও আসামীদের গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। অথচ আসামীরা অবাধে চলাফেরা করছে। বক্তারা রাজু হত্যাকারীদের গ্রেফতারে কোন টালবাহানা সহ্য করা হবে না বলেও প্রশাসনের প্রতি সতর্কবাণী দেন। তারা রাজু হত্যাকারীদের গ্রেফতারসহ সাংগঠনিকভাবে ব্যবস্থা নিতে জোর দাবি জানান। অন্যথায় সিলেট জাতীয়তাবাদী পরিবার জনতাকে সঙ্গে নিয়ে তুমূল আন্দোলনে ডাক দেবে।




এ বিভাগের অন্যান্য খবর




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: