সর্বশেষ আপডেট : ১১ মিনিট ৩৭ সেকেন্ড আগে
বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ফিটনেস বিহীন একটি গাড়িকেও সিলেটে ঢুকতে কিংবা বের হতে দেয়া হবে না : ট্রাফিক পুলিশের ডিসি

 ট্রাফিক সপ্তাহ শেষ : সিলেটে ১০ দিনে ৩৭৫৮টি মামলা : ২২ লক্ষ টাকা জরিমানা

মারুফ হাসান ::

ফিটনেস বিহীন একটি গাড়িও যাতে সিলেটে ঢুকতে কিংবা বের হতে না পারে সে জন্য আগামীকাল থেকে অভিযান শুরু করবেন বলে জানালেন সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) তোফায়েল আহমদ। তিনি বলেন, ঈদকে সামনে রেখে কোনো অদক্ষ চালক কিংবা হেলপাররা যাতে যাত্রীবাহী যানবাহন চালাতে না পারে আমরা সেই দিকে বিশেষ ভাবে লক্ষ রাখছি। তাছাড়া সিলেটের কদমতলী বাস টার্মিনালটিকে বিশেষ নজরদারীতে রাখা হয়েছে। এই ক্ষেত্রে পরিবহন মালিক ও শ্রমিক সংগঠনগুলোর সাথে আলোচনা করে নানাবিধ পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে বলেও উল্লেখ করেন তোফায়েল।

ডেইলি সিলেটের সাথে আলাপকালে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) তোফায়েল আহমেদ বলেন, ট্রাফিক সপ্তাহ উপলক্ষ্যে শহরজুড়ে পরিচালিত অভিযানে ফিটনেসবিহীন যানবাহন ও ড্রাইভিং লাইসেন্সবিহীন চালকদের বিরুদ্ধে পরিচালিত কার্যক্রম আক্ষরিক অর্থে ইতি টানলেও প্রকৃত পক্ষে ট্রাফিক পুলিশদের কর্মতৎপরতা সারা বছর অব্যহাত থাকবে।
তিনি আরো বলেন, শুধু মামলা কিংবা জরিমানা নয় আমরা ট্রাফিক আইন মানতে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছি। চালকদের নিয়ে আমাদের নিয়মিত কর্মশালা হয়। বিশেষ করে ট্রাফিক আইন মানার জন্য জনগণকে সচেতন করার বিষয়টিকে আমরা অধিক গুরুত্ব দিচ্ছি।

গত ৫ বছরে মধ্যে সবচাইতে সফল ট্রাফিক সপ্তাহ পালিত হয়েছে উল্লেখ করে তোফায়েল ডেইলি সিলেটকে বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে শিক্ষার্থীদের ‘নিরাপদ সড়ক চাই’ আন্দোলনের প্রভাবে নগরীতে চালকদের মধ্যে ব্যাপক সচেতনতা জন্ম নিয়েছে। লাইসেন্সের জন্য বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ) এর সিলেট অফিসে ব্যাপক ভিড় লক্ষ করা গেছে। ট্রাফিক সপ্তাহ চলাকালে রোভার স্কাউটস সদস্যদের সহযোগিতার বিষয়টি সম্পর্কে তিনি বলেন, এটি একটি পজেটিভ দিক। স্কাউটস সদস্যরা আমাদেরকে অনেক সহযোগিতা করেছেন, আমরা বিশেষ ভাবে তাদেরকে ধন্যবাদ জানাই। এবং আগামীতেও আমরা বিভিন্ন কর্মসূচিতে তাদের সহযোগিতা চাইবো।

সড়কে নৈরাজ্য বন্ধে শুরু করা ট্রাফিক সপ্তাহ-২০১৮ শেষ হয়েছে। ৭ দিনের ট্রাফিক সপ্তাহকে ৩দিন বাড়িয়ে ১০দিন পালিত হয়ে গতকাল মঙ্গলবার (১৪ আগস্ট) শেষ হয়। এ সময় নগরীর বিভিন্ন সড়ক ও পয়েন্টে চেকপোস্ট বসিয়ে ফিটনেসবিহীন যানবাহন ও ড্রাইভিং লাইসেন্সবিহীন চালকদের বিরুদ্ধে জরিমানা আদায় ও মামলা দেয়া হয়। আদায় হয় বিপুল পরিমান অর্থ। পাশাপাশি চালকদের সচেতন করতে ট্রাফিক সার্জনরা বিভিন্ন পরামর্শ প্রদান করেন। এবারের ট্রাফিক সপ্তাহে রোভার স্কাউটস সদস্যদের ভূমিকাও ছিল চোখে পড়ার মতো। এদিকে ট্রাফিক সপ্তাহের কারণে মোটরসাইকেল সামগ্রী বিক্রয় প্রতিষ্ঠানগুলোতে হেলমেটের চাহিদা ব্যাপক হারে বেড়ে যায়। এবং ব্যবসায়ীরা চাহিদা অনুযায়ী হেলমেট সরবরাহ করতে হিমশিম খান। ট্রাফিক সপ্তাহের কারণে বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ) সিলেট অফিসে মানুষের দীর্ঘ লাইন চোখে পড়ে।

সিলেট মহানগর পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের পরিদর্শক হাবিবুর রহমান ডেইলি সিলেটকে জানান, ট্রাফিক সপ্তাহ ৭ দিন থেকে ১০ দিন করা হয়েছিল। এই ১০ দিনে বিপুল পরিমান যানবাহন ও চালককে অর্থদণ্ড দেয়ার পাশাপাশি বেশ কিছু গাড়ি আটক করা হয়েছে। তাঁর দেয়া তথ্য অনুযায়ী দেখা যায়, গত ৫ আগস্ট থেকে ১৪ আগস্ট পর্যন্ত ট্রাফিক সপ্তাহ চলাকালীন সময়ে মোট মামলা হয়েছে ৩৭৫৮টি। এর মধ্যে চালকের বিরুদ্ধে ১৯৮৮টি এবং যানবাহনের বিরুদ্ধে ১৭৭০টি মামলা দায়ের করা হয়। এছাড়াও বিভিন্ন যানবাহন ও চালককে জরিমানা করা হয় ২১ লক্ষ ৯৯ হাজার ৯৫০ টাকা। হাবিবুর রহমান আরো জানান ফিটনেস ও কাগজপত্র না থাকায় ১৯৪টি গাড়ি আটক করা হয় এর মধ্যে ১৫৪টি মোটরসাইকেল রয়েছে।

ট্রাফিক সপ্তাহে চলমান অভিযানে প্রতিদিন পুলিশ ও রোভার স্কাউটসের ১০ জনের টিম ট্রাফিকিংয়ের কাজে নিয়োজিত ছিলেন। প্রত্যেক টিমে ৬ জন পুলিশের পাশাপাশি ৪ জন করে রোভার স্কাউটস ট্রাফিক সপ্তাহে সহায়ক হিসেবে কাজ করছেন।

উল্লেখ্য, গত ৫ আগস্ট ট্রাফিক সপ্তাহ-২০১৮ পালনের লক্ষ্যে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের আয়োজনে নগরীতে র‌্যালী বের করা হয়। র‍্যালীটি নগরীর প্রধান সড়কগুলো প্রদক্ষিণ শেষে চৌহাট্টাস্থ সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শেষ হয়। এসময় ট্রাফিক সপ্তাহের উদ্বোধন করেন এসএমপি’র পুলিশ কমিশনার (ভারপ্রাপ্ত) পরিতোষ ঘোষ। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সিলেটের প্রশাসনিক ব্যক্তিবর্গসহ নিরাপদ সড়ক চাই নিসচার নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।




এ বিভাগের অন্যান্য খবর




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: