সর্বশেষ আপডেট : ১ মিনিট ৪ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ পৌষ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

কমলগঞ্জের লাউয়াছড়া উদ্যানের পর্যটকদের আকৃষ্ট করছে ব্যাঙের ছাতা সদৃশ্য মানব ছাতা

মো: মোস্তাফিজুর রহমান,কমলগঞ্জ:: অপরূপ সৌন্দর্যের লীলাভূমি মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে প্রকৃতির প্রান ও বণ্যপ্রানীর অভয়ারণ্য লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের মধ্যে হঠাৎ জেগে উঠল বিশালকৃতির এক ব্যাঙের ছাতা। না একোন রূপকথার গল্প নয়,তবে অবাক হওযার মতোই বটে। এর আগেত এটা এখানে ছিল না। হঠাৎ করে কোথা থেকে এলো ! ভ্রমনে আসা দর্শনার্থীরাও হতবাগ। আগে দেখেছি ব্যাঙের ছাতা গ্রামের পঁচা স্যাতস্যাতে নাড়ার মধ্যে বর্ষা মৌসুমে মাটির বুক ছিরে উদয় হত, তখন ঘৃনায় কেউ হাত দিয়ে ছুঁতো না, ব্যাঙের ছাতা বলে। রূপকথায় কিংবা বাচ্চাদের গল্পের বইয়েও আছে ব্যাঙের ছাতার কথা। এখানে ঘুড়তে আসা দর্শনার্থীদের মনেও প্রশ্ন জাগে ব্যাঙের ছাতার মতো দেখতে মনে হয়, আসলে কি ব্যাঙের ছাতা। মনে হয় পাহাড়ি কোনো বড় ব্যাঙের ছাতা। তাই এতো বড় দেখাচ্ছে। এক এক জনের ভিন্নমতের জল্পনা-কল্পনার শেষে সবার আগ্রহ জাগে কাছে গিয়ে দেখতে হবে আসলে এটি কি ? অবশেষে কাছে গিয়ে দেখা যায় ব্যাঙের ছাতার আদলে তৈরি মানব ছাতা। আসলে এটি কোন ব্যাঙের ছাতা বা মাশরুম নয়। লাউয়াছড়ায় ঘুড়তে আসা দর্শনার্থীদের আকৃষ্ট করার জন্য লাউয়াছড়া বন বিট ও সহ-ব্যবস্থাপনা কমিটির আর্থিক সহযোগিতায় ৩ লক্ষ ৭৫ হাজার টাকা ব্যয়ে ব্যাঙের ছাতার আদলে তৈরি করা হয়েছে মানব ছাতা।

বন বিভাগের বিট কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন বলেন, দর্শনার্থীরা যাতে বনের ভিতরে ভ্রমনের পাশাপাশি বারতি আনন্দ পায় এবং সেই সাথে ক্লান্তি অনুভব করলেও যাতে একটু বিশ্রাম নিয়ে প্রকৃতির সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারে সেজন্যই আমরা (বন বিভাগ) ব্যাঙের ছাতার আদলে মানব ছাতাটি তৈরি করা হয়েছে। চার দেয়ালে আটকা পড়া নগর কেন্দ্রীক পর্যটকদের বাড়তি আনন্দ দেয়ার জন্য। বিশেষ করে ছোট ছোট ছেলেমেয়েদের জন্য। রৌদ্রের তাপ আর বৃষ্টির পানি থেকে নিজেকে রক্ষা করতে গভীর বনে এক মাত্র আশ্রয়স্থল ব্যাঙের ছাতার আদলে তৈরী এই মানব ছাতা। লাউয়াছড়ায় বেড়াতে আসা ঢাকা বিএএফ শাহীন কলেজের ছাত্রী তামান্না জান্নাত রুমি জানায়,এখানকার প্রাকৃতিক পরিবেশ দেখে তার ঢাকায় যেতে ইচ্ছে করছে না। বিশেষ করে মানব ছাতাটি আমার খুবই ভালো লেগেছে,দেখতেও সুন্দর। লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে এই মানব ছাতা দর্শনাথীদের আনন্দ দেয়ার জন্য অন্যতম স্থান। মানব ছাতাটির উচ্চতা ৮ ফুট এবং চওড়া ১২ ফূট। দৃষ্টি নন্দন মানব ছাতাটির উপরে সবুজ রঙের প্রলেপ দেয়া হয়েছে। ব্যাঙের ছাতার আদলে দেওয়া হয়েছে একটি কলি। প্রতিদিনই এখানে ঘুড়তে আসা দর্শনার্থীরা ব্যাঙের ছাতায় বসে আলোকচিত্রের পাশাপাশি বন্যপ্রানী ও প্রকৃতির সৌন্দর্য্য উপভোগ করেন ।




এ বিভাগের অন্যান্য খবর




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: