সর্বশেষ আপডেট : ২৫ মিনিট ৪০ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ২১ অক্টোবর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

পাঁচ হাজার বছর আগের রোমিও-জুলিয়েটের কবরের সন্ধান

চিত্রবিচিত্র ডেস্ক ::

পাঁচ হাজার বছর আগেও রোমিও-জুলিয়েট ছিলো। প্রাগৈতিহাসিক যুগের এরকম রোমিও-জুলিয়েট জুটির কবরের সন্ধান পাওয়া গেছে। ব্রঞ্জযুগের এই যুগলের রথ আকৃতির কবরের পাশে দুটি ঘোড়াকেও পাশাপশি কবর দেওয়া হয়েছিল।

সম্প্রতি কাজাখাস্তানের কারাগান্ধা অঞ্চলে প্রাগৈতিহাসিক এই কবরের সন্ধান পাওয়া যায়।

কবরে শায়িত পুরুষ লোকটির পাশে তীর ও ধাতব তৈরি ছুরি রাখা হয়েছে। তার সঙ্গীকে সাজানো হয়েছে নানা অলঙ্কারে। হাতে একটি সবুজ রঙের ব্রেসলেট পরা যা মূল্যবান ধাতব পদার্থে তৈরি।

পাশেই আরেকটি কবরের সন্ধান পাওয়া গেছে, সেখানেও একটি রথের পাশাপাশি দুটি ঘোড়াকে কবর দেওয়া হয়েছিল। প্রত্নতাত্বিকরা মনে করছেন তাদের কবর দেওয়ার সময় ঘোড়া দুটিকে উৎসর্গ করা হয়েছিল।

প্রত্নতাত্বিকদের ধারণা কবরগুলো ব্রঞ্জযুগের বিখ্যাত কোনো রথ চালকদের। তাদের মৃত্যুর পর রথের পাশপাশি ঘোড়াগুলোকেও উৎসর্গ করা হয়।

কবরগুলোকে আবার লম্বালম্বি করে পাথর বসিয়ে বৃত্তাকারে ঘিরে ফেলা হয়। সময়ের বিবর্তনে অনেক চিহ্নই নষ্ট হয়ে গেছে। তবে কঙ্কালগুলো টিকে আছে এখনো।

খননকাজের দ্বায়িত্বে থাকা প্রত্নতাত্ত্বিক ড. কুকুস্কিন বলেন, এটা জানা সম্ভব নয় যে, তারা সারাজীবন একসঙ্গে বেঁচে ছিলেন কি-না। অথবা একসঙ্গে সমাহিত হওয়ার জন্য একজনের মৃত্যুর পর আরেকজন তার জীবন উৎসর্গ করেছিল কি-না। তবে এটা নিশ্চিত যে তাদের দুজনের সমসাময়িক সময়ে মৃত্যু হয়েছিলো।

তিনি বলেন, ‘এক কবরে দুজনের মৃতদেহ রাখা আমাদের এলাকায় খুব একটা বিরল নয়, কিন্তু একটা প্রশ্ন থেকেই যায় দ্বিতীয় জন কেনো তাদের সঙ্গে যোগ দিলেন। এটা খুবই বিরল।’

‘হতে পারে অন্য পুরুষ বা মেয়ে সঙ্গীটি তার জীবন উৎসর্গ করে দেখিয়েছেন সে তার সঙ্গীকে অনুসরণ করেছে।’

‘তারা একজন আরেক জনের স্বামী বা স্ত্রীও হতে পারে আবার হয়তো একজনের সঙ্গে অন্যজনের কোনো সম্পর্কই ছিলো না। তাদের একসঙ্গে মৃত্যু হওয়ার পর এক কবরে রাখা হয়েছে।’

ড. কুকুস্কিন জানান, প্রাথমিক পরীক্ষায় তদের কঙ্কালে কোনো ক্ষয়ক্ষতির চিহ্ন পাওয়া যায়নি। তবে বিস্তারিত পরীক্ষায় তাদের মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাবে।

‘আমরা প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হয়েছি যে ঘোড়াদুটিকে মেরে তাদের পাশাপাশি কবর দেওয়া হয়েছিলো।’

‘তবে তাদের কবর এবং ঘোড়া দুটির অবস্থান থেকে স্পষ্টতই বোঝা যাচ্ছে তাদেরকে রথের আকারে কবর দেওয়া হয়েছে।’




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: