সর্বশেষ আপডেট : ১৮ মিনিট ৩ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ২১ অক্টোবর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

‘শুধু দেশে নয়, ঢাকা-কলকাতাও বুলেট ট্রেন চালু হবে’

নিউজ ডেস্ক:: আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আগামীতে আবার ক্ষমতায় আসতে পারলে সারা দেশে বুলেট ট্রেন চালু করব। যে ট্রেনের মাধ্যমে চট্টগ্রাম থেকে এক ঘণ্টায় ঢাকা আসা যাবে। এভাবে রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, রংপুর ও দিনাজপুর থেকে যাতে দ্রুত মানুষ ঢাকায় যাতায়াত করতে পারে সে ব্যবস্থা করা হবে। শুধু দেশের মধ্যে নয়, ঢাকা-কলকাতাও বুলেট ট্রেন চালু করা হবে।

শনিবার বিকেলে রাজধানীর হাতিরঝিলে নর্থ ইউলুপ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। ইউলুপ উদ্বোধনের পর মোনাজাত শরিক হন প্রধানমন্ত্রী। এরপর ইউলুপ পরিদর্শনে বের হন। পরিদর্শন শেষে আবার ইউলুপ উদ্বোধনস্থলে ফিরে আসেন। শেখ হাসিনা মঞ্চে ওঠার পর জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু স্লোগানে এলাকা মুখরিত হয়ে উঠে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন হাতিরঝিল প্রকল্পের পরিচালক মেজর জেনারেল আবু সাঈদ মোহাম্মদ মাসুদ। এছাড়া অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, ঢাকা-১১ আসনের সংসদ সদস্য এ কে এম রহমতুল্লাহ ও সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ বক্তব্য রাখেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে শুভেচ্ছা স্মারক তুলে দেন গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন।

ইউলুপটি উদ্বোধনের পর তা জনসাধারণের চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয়। এই ইউলুপের ফলে হাতিরঝিল থেকে সহজেই রামপুরা-বনশ্রী হয়ে মালিবাগের দিকে যাওয়া যাবে। অন্যদিকে, এসব এলাকা থেকে বের হয়ে হাতিরঝিল হয়ে কারওয়ান বাজার এলাকায় যেতে পারবেন যাত্রীরা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডের কারণেই ঢাকায় লোকজনের চাপ খুব বেশি। এ চাপ যেন না থাকে সে কারণে ২০ বছর মেয়াদী পরিকল্পনা গ্রহণ করছি। ঢাকা থেকে মানুষের চাপ কমানোর জন্য ঢাকার আশপাশে ছোট ছোট শহর গড়ে তোলা হবে। যে শহরগুলোতে থাকবে মাল্টি স্টোরেড বিল্ডিং। এসব শহর থেকে খুব সহজে যাতে মানুষ ঢাকায় যাতায়াত করতে পারে। বাড়ি থেকে যেন ঢাকায় অফিস করতে পারে তার ব্যবস্থা করা হবে।

এছাড়া ঢাকার চারপাশে নদীপথ ও রেলপথ থাকবে। মোট কথা যানজট নিরসনে রাজধানী ঢাকা শহরকে ঘিরে একটি এলিভেটেড রিং রোড নির্মাণ করা হবে। এতে এই সড়ক দিয়ে যান চলাচল সহজ হবে। সময়ও সাশ্রয় হবে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের উন্নয়নের সঙ্গে সঙ্গে মানুষের অর্থনৈতিক উন্নতি হয়েছে। এজন্য গাড়ি কেনার সামর্থ্যও বেড়েছে। যে কারণে রাস্তাঘাটে গাড়ি বৃদ্ধি পেয়েছে। তিনি বলেন, বিশ্বের সব দেশেই যানজট হয়। ঢাকায়ও যানজট আছে। তাই যানজট মোকাবেলায় আমরা নানা উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। ২০১৯ সালে আগারগাঁও পর্যন্ত মেট্রোরেল চালু হবে। বাকি অংশ চালু হবে পরের বছর, ২০২০ সালে।

শেখ হাসিনা বলেন, রাজধানীর যানজট কমানোর জন্য ভবিষ্যতে রাজধানীর যেসব খাল রোড হয়েছে সেগুলো উদ্ধার করে উপরে রোড এবং নিচে নৌকা চলাচলের ব্যবস্থা করা হবে। ঢাকার সুয়ারেজ ব্যবস্থা আরও উন্নত করা হবে। এ ছাড়া সারা দেশে খাল, বিল, পুকুর, ডোবা সংস্কারের পরিকল্পনাও রয়েছে সরকারের।

সমন্বিত হাতিরঝিল উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী এ ইউলুপ প্রকল্পটি নির্মাণ করেছে। ২১৪ মিটার দীর্ঘ এবং ৭ দশমিক ৭ মিটার প্রস্থ ইউলুপটি নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ৩৩ কোটি টাকা। রামপুরা-বনশ্রী এলাকার যানজট নিরসনে ২০১৬ সালের শুরুতে এ ইউলুপ নির্মাণের কাজ শুরু করে সেনাবাহিনী।




এ বিভাগের অন্যান্য খবর




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: