সর্বশেষ আপডেট : ২৭ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

‘প্রতিপক্ষকে তো বলতে পারি না আমাকে গোল করতে দাও’

স্পোর্টস ডেস্ক:: সদ্য সমাপ্ত ফুটবল বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি সমালোচতি ফুটবলারদের তালিকা করা হলে উপরের দিকেই থাকবে ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার নেইমার জুনিয়রের নাম। তবে সেটি তার মাঠের খেলার কারণে নয়, বারবার মাঠে পড়ে যাওয়া নিয়ে।

নেইমারের এই পড়ে যাওয়ার প্রবণতা এতো বেশিই আলোচিত যে বিশ্বকাপ শেষ হওয়ার সপ্তাহখানেক বাদেও চলছে তা নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা। যে কারণে নিজের এই বারবার পড়ে যাওয়া নিয়ে আবারো মুখ খুলতে হলো ব্রাজিলের এই তারকা খেলোয়াড়কে।

বিভিন্ন সংবাদ সংস্থা ও পরিসংখ্যানবিদের হিসেবে জানা গিয়েছে বিশ্বকাপে সবমিলিয়ে ১৪ মিনিট শুধু মাঠে পড়ে থেকেই নষ্ট করেছেন নেইমার। একারণেই মূলত তাকে নিয়ে হয়েছে নানান কৌতুক ও হাস্যরসাত্মক কথাবার্তা। তবে নেইমারের মতে তাকে করা ফাউলগুলো খুব বেশি গুরুতর হয় বলেই এমন করেন তিনি।

জনপ্রিয় ক্রীড়া সংবাদ মাধ্যম ‘ইএসপিএন এফসি’কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে নেইমার বলেন, ‘আমাকে নিয়ে করা বিদ্রুপ-ঠাট্টা গুলো আমি ইন্টারনেটে দেখেছি। এমনকি আমি নিজেও তো একটা শেয়ার করলাম। তবে ফুটবল মাঠে আমার কাজই ড্রিবল করা। আমাকে অবশ্যই প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডারদের পাশ কাটিয়ে ড্রিবল করতে হবে। আমি তো তাদের সামনে গিয়ে বলতে পারি না যে আমাকে ফাউল করো না, আমাকে গোল করতে দাও।’

এসময় নিজের বারবার পড়ে যাওয়ার ব্যাখ্যায় নেইমার বলেন, ‘প্রায়শই দেখা যায় প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডারদের চেয়ে আমিই বেশি গতিসম্পন্ন থাকি। একইসাথে তাদের চেয়ে হালকা-পাতলাও আমি। আপনাদের কি মনে হয় আমি প্রতিবার চাই যে আমাকে ফাউল করা হোক? এটা খুবই পীড়াদায়ক। অনেক যন্ত্রণাদায়ক। প্রতি ম্যাচ শেষে ৪-৫ ঘণ্টা আমার পা বরফে ডুবিয়ে রাখতে হয়। আপনারা এসব বুঝতে পারবেন না কারণ এসবের সম্মুখীন হননি কখনো।’


নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: