সর্বশেষ আপডেট : ৪২ মিনিট ৪৫ সেকেন্ড আগে
বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সালমানের বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগ!

বিনোদন ডেস্ক:: বলিউড ভাইজান সালমান খানের বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগ উঠেছে।মুম্বাইয়ের এক বয়স্ক দম্পতি এমন অভিযোগ তুলেছে। তাদের কেনা জমি দখলের জন্য তাদের ওপর মানসিক নির্যাতন করেছেন সালমান- এমনটাই জানায় ওই দম্পতি।

ওই দম্পতির নাম কেতন ও অনিতা কক্কড়।তারা দীর্ঘ দিন ধরেই আমেরিকা বসবাস করছেন।১৯৯৬ সালে ২৭ লাখ টাকা দিয়ে মুম্বইয়ের পানভেলে একখণ্ড জমি কেনেন তারা।৩ বছর আগে দেশে ফিরে সেই জমিতে বাংলো তৈরি শুরু করেন।পাশেই সালমান খানের খামারবাড়ি।এখান থেকেই সমস্যার সূচনা।

দম্পতি জানায়, জমি কেনার সময় নিয়মমাফিক সালমানের বাবা সেলিম খানের সম্মতিও নিয়েছিলেন তারা।কিন্তু বাংলো তৈরি শুরু করার পর থেকেই সালমান তাদের উত্যক্ত করা শুরু করেছেন।তাদের অভিযোগ, সালমান নিজের খামারবাড়ির পাশে এমনভাবে দরজা বসিয়েছেন, যার ফলে তারা নিজেদের জমিতে যেতে পারছেন না।চারদিকেই বিদ্যুৎ রয়েছে, এমনকী সালমানের ঘোড়াদের জন্যও লাগানো হয়েছে ফ্লাডলাইট।কিন্তু তাদের বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হচ্ছে না।

শুধু তাই নয়, জমিতে বাংলো তৈরির ছাড়পত্রও পাচ্ছেন না ওই দম্পতি।তাদের অভিযোগ, সালমানের প্রভাবের কারণেই এমনটা হচ্ছে।কেতন ও অনিতা কক্কড়ের পক্ষে লড়ে যাওয়া আইনজীবীর দাবি, বন দফতরের যে অফিসার সালমানের পরিবারের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছিলেন, তার বদলি হয়ে গেছে।এরপর বনমন্ত্রী সুধীর মুনগন্টিওয়াড়ের সঙ্গে দেখা করে বিচার চান দম্পতি।তিনি আশ্বাসও দেন।

কিন্তু কিছু দিন আগেই ঘটনা আরো উল্টে যায়।বনমন্ত্রী সালমানের ঘনিষ্ঠ মানুষ।যার ফলে কয়েক দিন আগেই তার বাড়ি গিয়ে নৈশভোজ করেন সালমান।এরপর থেকেই বনমন্ত্রী আর কক্কড় পরিবারের অভিযোগ আমলে নিচ্ছেন না।এদিকে কক্কড় পরিবারের এমন অভিযোগের বিপরীতে এখনো কোনো মন্তব্য জানায়নি সালমান খান বা তার পরিবারের কেউ।



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে. এ. রাহিম. সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: