সর্বশেষ আপডেট : ২৪ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

তাহিরপুরে বাজারের মূল সড়কে গর্ত : পানি,কাদাঁ,দুর্গন্ধ দুর্ভোগে জনসাধারন

তাহিরপুর প্রতিনিধি:: সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজারের সড়ক গুলোতে পানি জমে চরম জনদূর্ভোগের শিকার হচ্ছে জনসাধারন। ড্রেনের ব্যবস্থা না থাকায় সামান্য বৃষ্টি হলেই উপজেলার অর্ধশতাধিক বাজার গুলোর মূল সড়ক পানিতে টইটুম্ভুর হয়ে যায়। এত করে জনদূর্ভোগে পড়তে হয় বাজারে দৈনিক নিত্য প্রয়োজনীয় পন্য ক্রয়-বিক্রয় করতে আসা স্থানীয় কৃষক,বাজারের ফুটপাতের ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী,বিভিন্ন স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রী,শিক্ষক,স্থানীয় ব্যবসায়ী,সড়ক দিয়ে চলাচলকারী বিভিন্ন যানবাহনসহ সর্বস্থরের জনসাধারনকে।

জানাযায়,তাহিরপুর উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের সাড়ে তিন লক্ষাধিক জনসাধারনের চলাচলের মূল সড়ক হিসাবে বাজার গুলোই দিয়েই উপজেলা ও জেলা সদরে সাথে যোগাযোগ রক্ষা করা হয়। এছাড়াও বাজার গুলো দিয়েই বিভিন্ন স্কুল,কলেজের ছাত্র-ছাত্রী,সরকারী-বেসরকারী বিভিন্ন প্রতিষ্টানের চাকরীজীবি,ব্যবসায়ীরা যার যার নির্দিষ্ট গন্তব্যে যাতায়াত করে থাকে সহজে বাজার গুলোর মধ্য দিয়েই। উপজেলার ছোট-বড় অর্ধশতাধিক হাট-বাজার গুলোতে সড়কের সংস্কার হয় নি ও ড্রেনের ব্যবস্থা নেই। ফলে সামান্য বৃষ্টি হলেই পানি জমে ডুবে যায় আর কাঁদায় একাকার হয়ে যায়। সড়ক গুলোতে চলাচলের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা না নেওয়ায় চরম দূর্ভোগের মধ্যে পরতে হয় সর্বস্থরের জনসাধারনকে। বার বার এলাকাবাসী সহ স্থানীয় ব্যবসায়ীরা বাজার গুলোতে ড্রেন তৈরী ও রাস্তা মেরামত করার জন্য দাবী জানিয়ে আসলেও কোন ব্যবস্থা না নেওয়ায় ক্ষুব প্রকাশ করছে বাজার গুলো দিয়ে চলাচলকারী বিভিন্ন যানবাহনের যাত্রী ও স্থানীয় ব্যবসায়ীরা।

তাহিরপুর উপজেলা সদর বাজারের ব্যবসায়ী রফিকুল ইসলাম,সাদেক আলী,শিবলি আহমদসহ অনেকেই জানান,উপজেলা সদরের বাজারটির দিকে কারো নজর নাই। বৃষ্টি হলেই বাজারে কৃষি ব্যাংক থেকে পোষ্ট অফিস রোড পর্যন্ত পানি জমে দূর্গন্ধ সৃষ্টি ও কাঁদা হয়ে যাওয়ায় চলাচলে দূর্ভোগ পোহাতে হয় আমাদের সবাইকে। বাজার থেকে পানি নিস্কাশনের জন্য ড্রেন না থাকায় বৃষ্টি হলেই পানি জমে থাকে। এতে করে বাজারের আসা ক্রেতা,আমরা ব্যবসায়ীরা সহ সবাই চরম দূভোর্গে আছি। তাহিরপুর উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের বাদাঘাট বাজার বনিক সমিতির সভাপতি সেলিম হায়দার ও সাধারন সম্পাদক মাসুক মিয়া বলেন,বাদাঘাট বাজারের মুল সড়ক ভাঙ্গা ছুড়া ছিল ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতন এমপি সাহেবের চেষ্টায় সড়কের মেরামত হয়েছে। অন্যান্য সড়কেও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বাজারের বিভিন্ন পয়েন্টে লাইট পোষ্ট স্থাপন করা হয়েছে। তাহিরপুর বাজার বনিক সমিতির সাধারন সম্পাদক এরশাদ মিয়া জানান,বাজারের ড্রেনের ব্যবস্থা না থাকায় বৃষ্টির পানিতে বাজারের সড়ক গুলো পানিতে ডুবে যায় ও কাদাঁযুক্ত হয়ে পড়ে। বাজারের চতুর দিকে ড্রেন তৈরী করে জমে থাকা পানি বাজারের বাহিরে চলে যাওয়ার ব্যবস্থা করা খুবেই প্রয়োজন। এব্যাপারে সদর ইউপির চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান,নির্বার্হী কর্মকর্তার দৃষ্টি আকর্শন করছি। তারা সহযোগীতা করলে খুব দ্রুতই সমাধান হবে। তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান ফেরদৌস আলম আখঞ্জি জানান,আমাদের উপজেলা পরিষদের বরাদ্ধ খুবেই কম তার পরও সদরের বাজার হিসাবে বাজারের উন্নয়নের জন্য আমার ও আমার পরিষদের পক্ষ থেকে আমি সর্বাত্মক চেষ্টা করব ।




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: