সর্বশেষ আপডেট : ৭ ঘন্টা আগে
শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সিসিক নির্বাচন : কামরানের বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ এনেছেন আরিফ

নিজস্ব প্রতিবেদক ::

সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক) নির্বাচনে মনোনয়ন যাচাই-বাছাইয়ের দ্বিতীয় দিনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বদরউদ্দিন আহমদ কামরানের বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ করেছেন বিএনপির প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী। আরিফের পক্ষে নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার বরাবরে লিখিত অভিযোগ করেন বিএনপির জেলার সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ।

আরিফের পক্ষে অভিযোগে লেখা হয়েছে, ‘আপনার সদয় অবগতি ও কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের নিমিত্তে জানাচ্ছি যে, আসন্ন সিলেট সিটি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হলেও যেহেতু এখনও প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ হয় নি, তাই নির্বাচনের বিধি অনুযায়ী কেউই প্রচারণায় অংশগ্রহণ করতে পারেন না। কিন্তু আমরা বিস্ময়ের সাথে লক্ষ্য করছি, সিলেট সিটি করপোরেশনের সরকার দলীয় মেয়র পদপ্রার্থী বদর উদ্দিন আহমদ কামরান ও তার পক্ষে তারই স্ত্রী আসমা কামরান এবং যুবলীগ ও ছাত্রলীগ কর্মীদের নিয়ে মেয়র প্রার্থী বদরউদ্দীন আহমদ কামরানের ছেলে আরমান আহমদ শিপলু নির্বাচনের আচরণবিধি লঙ্ঘন করে লিফলেট বিতরণসহ প্রচারণা চালাচ্ছেন। যা বিভিন্ন বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশ হয়েছে। যা নির্বাচনী আচরণবিধির লঙ্ঘন।’

অভিযোগে আরো উল্লেখ করা হয়েছে, ‘নির্বাচনের প্রথম ও প্রধান শর্ত যেখানে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরী করা। কিন্তু নির্বাচন কমিশনের নির্লিপ্ততা নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য হুমকি হয়ে যাচ্ছে। সিলেট সিটি করপোরেশনের সরকারদলীয় প্রার্থীর পক্ষে প্রতীক বরাদ্দের আগেই যেভাবে প্রচারণা চালানো হচ্ছে, তা নির্বাচনের আচরণবিধির সুস্পষ্ট লঙ্ঘন হওয়া সত্ত্বেও নির্বাচন কমিশন এবং স্থানীয় প্রশাসন কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে না, যা নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য অন্তরায়।’ সিলেট সিটি নির্বাচন ‘সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ’ করার স্বার্থে নৌকা প্রতীকের পক্ষে যারা ‘নির্বাচনের আচরণবিধি লঙ্ঘন করে করেছেন’, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আরিফের পক্ষে ওই অভিযোগে নির্বাচন কমিশনের প্রতি আহবান জানানো হয়েছে।

আলী আহমদ জানান, মনোনয়নপত্র দাখিলের দিন আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী বদর উদ্দিন আহমদ কামরানের সঙ্গে ওসমানী মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. মুর্শেদ আহমদ চৌধুরী ছিলেন; যাতে স্পষ্ট আচরণবিধি লঙ্ঘন হয়েছে। এছাড়া কামরানের পক্ষে তার স্ত্রী আসমা কামরান ও ছেলে ডা. আরমান আহমদ শিপলুসহ সরকার দলের নেতাকর্মী নগরীতে প্রকাশ্যে লিফলেট বিতরণ করছেন। আচরণবিধি অনুযায়ী আগামী ১০ জুলাই প্রতীক বরাদ্দের আগে প্রচারণার কোন সুযোগ নেই বলেও মন্তব্য করেন আলী আহমদ।  তিনি মনে করছেন সুষ্ঠ নির্বাচন অনুষ্ঠানের স্বার্থে রিটার্নিং অফিসার অভিযোগের বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখবেন এবং যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

এ প্রসঙ্গে রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আলীমুজ্জামানের গণমাধ্যমকে বলেন, আমি বাহিরে, একটি মিটিংয়ে আছি। তিনি বলেন, আমার কাছে কোনো অভিযোগ আসেনি। অফিসের অন্য কোনো কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ জমা দেয়া হয়েছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে আলীমুজ্জামান বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই।




এ বিভাগের অন্যান্য খবর




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: