সর্বশেষ আপডেট : ৩২ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সিসিক নির্বাচনের হলফনামায় আরিফ স্বশিক্ষিত, কামরান এইচএসসি

ডেইলি সিলেট ডেস্ক:: সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে নয় মেয়র প্রার্থীর মধ্যে বিএনপির দলীয় প্রার্থী সদ্য বিদায়ী মেয়র আরিফুল হক চোধুরীসহ তিনজনই স্বশিক্ষিত। নির্বাচন কমিশনের সিলেট কার্যালয়ে জমা দেয়া মনোনয়নপত্রের হলফনামায় এই তিন মেয়র প্রার্থী নিজেদের স্বশিক্ষিত বলে তথ্য দেন।

সোমবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিলেট সিটি নির্বাচনে রিটার্নিং অফিসার মো. আলীমুজ্জামান।

হলফনামার বরাত দিয়ে তিনি আরও জানান, বাকি ছয় মেয়র প্রার্থীর মধ্যে দু’জন এইচএসসি, একজন দাখিল, একজন স্নাতক, একজন এলএলবি ও একজন ডিএমএফ ডিগ্রিধারী।

এছাড়া মেয়র পদে প্রার্থী হওয়া প্রধান দুই প্রতিদ্বন্দ্বীসহ ৫ জনেরই পেশা ব্যবসা। এছাড়া চিকিৎসক, আইনজীবী থেকে শুরু করে ‘মাইকিং পেশায় নিয়োজিত’ ব্যক্তিও প্রার্থী হয়েছেন।

এ বিষয়ে সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) সিলেটের সভাপতি ফারুক মাহমুদ চৌধুরী বলেন, আমরা ২০০৬ সাল থেকে দাবি জানিয়ে আসছি, সিটি কর্পোরেশনের প্রার্থীদের ন্যূনতম শিক্ষাগত যোগ্যতা অন্তত এইচএসসি হওয়া উচিত। এ ব্যাপারে একটি মানদণ্ড দাঁড় করানো প্রয়োজন।

সিলেট সিটি নির্বাচনে মনোনয়ন জমা দেয়া মেয়র প্রার্থীরা হলেন, আওয়ামী লীগের প্রার্থী বদরউদ্দিন আহমদ কামরান, বিএনপির প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী, ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের ডা. মোয়াজ্জেম হোসেন খান, সিপিবি-বাসদের আবু জাফর, স্বতন্ত্র (বিদ্রোহী) প্রার্থী সিলেট মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিম, সিলেট মহানগর জামায়াতের আমির অ্যাডভোকেট এহসানুল মাহবুব জুবায়ের, এহসানুল হক তাহের, কাজী জসিম উদ্দিন ও মোক্তাদির আহমদ তাপাদার।

বিএনপির প্রার্থী ও সাবেক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী হলফনামায় নিজের শিক্ষাগত যোগ্যতা ‘স্বশিক্ষিত’ বলে উল্লেখ করেছেন। একইভাবে সিপিবি-বাসদের প্রার্থী আবু জাফর এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী কাজী জসিম উদ্দিনও নিজেদের শিক্ষাগত যোগ্যতা ‘স্বশিক্ষিত’ বলে উল্লেখ করেন।

হলফনামায় পেশা হিসেবে আরিফুল হক নিজেকে ব্যবসায়ী উল্লেখ করেন, আবু জাফর লিখেছেন বাসদের সার্বক্ষণিক রাজনৈতিককর্মী, আর কাজী জসিম উদ্দিন পেশা হিসেবে লিখেছেন ‘যমুনা মাইক অ্যান্ড সিস্টেম-এর মাইকিংয়ের কাজে নিয়োজিত’। জসিম উদ্দিন নগরে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও পণ্যের প্রচারণামূলক মাইকিং করেন।

হলফনামায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী ও আরেক সাবেক মেয়র বদরউদ্দিন আহমদ কামরান নিজের শিক্ষাগত যোগ্যতা এইচএসসি উল্লেখ করেছেন। তিনি নিজের পেশা হিসেবে উল্লেখ করেছেন ‘বালু পাথর ব্যবসায়ী ও কমিশন এজেন্ট’।

বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী বদরুজ্জামান সেলিমের শিক্ষাগত যোগ্যতা স্নাতক (পাস), পেশায় ব্যবসায়ী সেলিমের ‘ভূসিমালের দোকান’ রয়েছে বলে উল্লেখ করেছেন হলফনামায়। আইনপেশায় জড়িত জামায়াত নেতা এহসানুল মাহবুব জুবায়েরের শিক্ষাগত যোগ্যতা এলএলবি।

চিকিৎসা ও অধ্যাপনা পেশায় জড়িত ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের প্রার্থী ডা. মোয়জ্জেম হোসেন খান ডিএফএম ডিগ্রিধারী, লাইব্রেরি ব্যবসায়ী এহসানুল হক তাহেরের শিক্ষাগত যোগ্যতা দাখিল ও পেশায় ফল আমদানিকারক মুক্তাদির আহমদ তাপাদার এইচএসসি পর্যন্ত পড়ালেখা করেছেন।




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: