সর্বশেষ আপডেট : ৪ মিনিট ৪০ সেকেন্ড আগে
বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

শেখ হাসিনার সাফল্য বিশ্বময়

প্রবাস ডেস্ক:: ব্রাসেলসে ইউরোপীয় পার্লামেন্টে বাংলাদেশ, উন্নয়ন ও ভবিষ্যৎ চ্যালেঞ্জ শীর্ষক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২৯ জুন বেলজিয়ামের রাজধানীতে এ সম্মেলন আয়োজিত হয়।

সম্মেলনে বাংলাদেশ নিম্ন আয়ের দেশ থেকে মাধ্যম আয়ের দেশের স্বীকৃতি পাওয়া, সন্ত্রাস নির্মূল, দারিদ্র বিমোচন, সামাজিক উন্নয়ন, নারীর ক্ষমতায়ন অর্থনৈতিক মুক্তি ও বিশ্ব শান্তির পক্ষে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী সাফল্য কথা বিশ্বময় ছড়িয়ে দেবার নিমিত্বে কর্মসূচির অংশ হিসেবে বেলজিয়াম আওয়ামী লীগ এই কনফারেন্সের আয়োজন করে।

ইউরোপীয় পার্লামেন্টের ‘এমইপি’ ও দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক প্রতিনিধি দলের ভাইস প্রেসিডেন্ট ‘রিচার্ড কর্বেটের’ সভাপতিত্বে কনফারেন্সের আয়োজকদের অন্যতম সমন্বয়ক, বেলজিয়াম আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর চৌধুরী রতনের সঞ্চালনায় পেনেলিস্ট ও বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাজ্জাদ করিম, এমইপি, বেলজিয়াম, লুক্সম্বুর্গ, ও ইউরোপিয়ান ইউনিয়নে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত সাহাদত হোসেন।

এছাড়া বাংলাদেশের দক্ষিণ এশিয়ান ডেমোক্রেটিক ফোরামের পরিচালক ও সাবেক পর্তুগিজ এমইপি ‘পাওলো কসাকা’ সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সভাপতি অনিল দাস গুপ্ত, সাধারণ সম্পাদক এম এ গনি, সম্মেলনের উদ্যোক্তা ও সমন্বয়ক ও সর্ব ইউরোপীয় আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক খোকন শরীফ উপস্থিত ছিলেন।

সম্মেলনে ইউরোপের বিভিন্ন দেশ থেকে আগত অতিথিদের সহযোগিতার জন্য ধন্যবাদ প্রদান করে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সম্মেলনের উদ্যোক্তা ও বেলজিয়াম আওয়ামী লীগের সভাপতি সহিদুল হক। তিনি বাংলাদেশের উন্নয়নে সংশ্লিষ্ট সবার অধিক সহযোগিতার আহ্বান জানান।

সম্মেলনের সভাপতি রিচার্ড কর্বেট মূল বক্তব্যের পূর্বে সম্মেলন উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রদত্ত বাণী পাঠ করে শোনান। তিনি বিভিন্ন সেক্টরে বাংলাদেশের উন্নয়নের ভূয়সী প্রশংসা করেন, এবং এই উন্নয়ন যাত্রাকে ধরে রাখার জন্য সবাইকে আরও বেশি সক্রিয় ভূমিকা পালনের ওপর জোর দেন।

আগামী নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, স্বচ্ছ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য তারা সচেষ্ট থাকবেন এবং এজন্য সার্বিক ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন বাংলাদেশকে সহযোগিতা করবেন।

তিনি রোহিঙ্গা প্রসঙ্গে বলেন, যুগ যুগ ধরে রোহিঙ্গাদের এই সমস্যা জিইয়ে রাখা সম্ভব না। তাদের পরবর্তী প্রজন্মকেও এখানে বেড়ে উঠতে দেয়া যায় না। রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে আরও বেশি সক্রিয় ভূমিকা রাখবেন বলেন জানান।

তিন পর্বের সম্মেলনের, দ্বিতীয় পর্বে বক্তব্য রাখেন ইউকে, লেবার পার্টি থেকে নির্বাচিত এমইপি সাজ্জাদ করিম। তার দীর্ঘ বক্তব্যে ছিল বাংলাদেশের প্রশংসা। তিনি বাংলাদেশের সঙ্গে দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন দেশের সঙ্গে উন্নয়ন সূচকের প্রশংসনীয় উর্ধ্বস্থানের তুলনামূলক ব্যাখ্যা করেন।

তিনি, বলেন বাংলাদেশ এশিয়া ও ক্ষেত্রভেদে বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল। তিনি ইইউসহ বাংলাদেশের উন্নয়ন সহযোগী দেশ ও সংস্থাকে বাংলাদেশের প্রতি সহযোগিতার হাতকে আরও প্রসারিত করার আহ্বান জানান।

সম্মেলনে নির্ধারিত দু’জন এমইপি যারা বিশেষ কারণে আসতে পারেননি তাদের প্রেরিত বাণী পড়ে শোনানো হয়। বাণী দুটি পড়ে শোনান যথাক্রমে করবেট এবং জাহাঙ্গীর চৌধুরী রতন।

সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ সরকারের উন্নয়নের বিশদ ব্যাখ্যা তুলে ধরার পাশাপাশি ইইউসহ সকল উন্নয়ন সহযোগীকে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে থাকার অনুরোধ জানান। তিনি বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়নের চাকা সচল রাখতে আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে জঙ্গিবাদ যেন আর মাথাচাড়া দিতে না পারে সেদিকে সবার দৃষ্টি রাখা জরুরি।

তিনি ইউরোপীয় ইউনিয়নকে বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানান এবং শেখ হাসিনাকে সন্ত্রাস দমনে বিশেষভাবে সহযোগিতা করার জন্য।

এছাড়া আরও বক্তব্য রাখেন- এমএম মোর্শেদ ব্যারিস্টার নাদিয়া, ড. বিদ্যুৎ বড়ুয়া। তিনি বলেন, বাংলাদেশের আজকের এই উন্নয়নের চাবি হিসেবে কাজ করেছে বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার সাহসী নেতৃত্ব। গত দশ বছর যাবৎ দেশে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা।

সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- ওআইসির পক্ষ থেকে নিযুক্ত ইইউ রাষ্ট্রদূত, মিসেস ইসমত জাহান। বাসুগ সভাপতি বাবু বিকাশ বড়ুয়া, ইউরোপিয়ান বাংলাদেশ ফোরামের সভাপতি আহমেদ আনছার উল্লাহ।

এছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন- ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের নেতারা। এছাড়া ফ্রাঞ্চ, জার্মানি, হল্যান্ড, স্পেন, পর্তুগাল, সুইডেন, ইউকে, ডেনমার্ক, ফিনল্যান্ড, ইতালি, সুইজারল্যান্ডসহ ইউরোপ ও বাংলাদেশ থেকে আগত আ.লীগ, যুব লীগ, ছাত্রলীগ ও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের বিপুল সংখ্যাক নেতাকর্মী।

এছাড়া বেলজিয়াম আওয়ামী লীগ যুবলীগ, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, ছাত্র লীগ ও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের বিপুল পরিমাণ নেতাকর্মীর উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। সবশেষে ছিল সবার জন্য উন্মুক্ত প্রশ্ন উত্তর পর্ব। সবার প্রশ্নের উত্তর দেন রিচার্ড করবেট।

উল্লেখ্য, গত ২০১৬ সালে বেলজিয়াম আওয়ামী লীগের নতুন কমিটি গঠিত হবার পর থেকে এই সংগঠনটি শেখ হাসিনার দিক নির্দেশনায়, গতানুগতিক রাজনীতির বাইরে এসেও দেশ ও দশের স্বার্থে বিভিন্ন গণমুখী ও দীর্ঘমেয়াদী কর্মসূচি হাতে নেয়। আজকের এই সম্মেলন তারই অংশ।


এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: