সর্বশেষ আপডেট : ২৯ মিনিট ৫৪ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

রাজনগরে ত্রাণ বিতরণে অনিয়ম, ইউপি সদস্যকে শোকজ

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:: মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলার কামারচাক ইউনিয়নে বন্যা দুর্গতদের সরকারী চাল বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ৪নং ওয়ার্ড সদস্য জিয়াউর রহমানের বিরুদ্ধে স্থানীয় সাধারণ মানুষের এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশের সহায়তায় মাষ্টাররোল জব্দ করেছেন ইউএনও। এ ঘটনায় তাকে শোকজ করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফেরদৌসি আক্তার।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, শনিবার উপজেলার কামারচাক ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের জাঙ্গালী, গবিন্দপুর, আবদা, তারাপাশা, দশঘরি ও কালাইকোনা গ্রামের বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ চলছিল। এসময় ওই ওয়ার্ডের সদস্য জিয়াউর রহমান ইউনিয়ন পরিষদ আঙিনায় ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে ১০ কেজি করে সরকারী চাল বিতরণ করছিলেন। রবিবার চা-বাগানের শ্রমিক ইউনিয়নের নির্বাচনে টেগ অফিসারদের প্রেরণ করায় সেখানে কোন টেগ অফিসর ছিলেন না। বিকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফেরদৌসী আক্তার তদারকি করতে ওই ইউনিয়নে গেলে এলাকাবাসী ত্রাণ বিতরণে অনিয়ম হচ্ছে বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। একই ব্যক্তি একাধিকবার ত্রাণ নিচ্ছেন, কেউ কেউ একবারো পাচ্ছেন না এবং অন্য ওয়ার্ডের মানুষকেও চাল দেয়া হচ্ছে বলে তারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ করেন। তিনি ইউপি সদস্য জিয়াউর রহমানকে মাষ্টাররোলের কাগজ দেখাতে বললে ইউপি সদস্য কাগজ দেখাতে অস্বীকৃতি জানান। সাধারণ মানষদের সামনে এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হলে এলাকাবাসী ইউপি সদস্যের উপর ক্ষোভ প্রকাশ করতে থাকলে আইনশৃঙ্খলার অবনতির আশঙ্কা দেখা দেয়। পরে পুলিশের সহায়তায় দু’টি মাষ্টাররোলের কাগজ জব্দ করা হয়।

জব্দকৃত মাষ্টাররোলে দেখাযায়, একটিতে নাম, পিতার নাম, গ্রামের নাম, জাতীয় পরিচয়পত্রের নাম্বার লেখা থাকলেও অন্য একটিতে এসব কিছুই লেখা ছিল না। ওই মাষ্টাররোলের কলামগুলো খালি রেখে শুধু স্বাক্ষরের কলামে টিপসই রেখে চাল বিতরণ করা হচ্ছিল। পরে ওই দিনই ইউপি সদস্য জিয়াউর রহমানকে শোকজ করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

ইউপি সদস্য জিয়াউর রহমান বলেন, চেয়ারম্যান ও সচিবের উপস্থিতিতে চাল বিতরণ করেছি। আমি কোনো অনিয়ম করিনি। শোকজ নোটিশ এখনো পাইনি।
কামারচাক ইউপি চেয়ারম্যান নজমুল হক সেলিম বলেন, দুর্গত অনেকের নাম নেয়া হয়নি বলে এই ওয়ার্ডের কয়েকজন আগের দিন আমাকে জানিয়েছেন। আমার সাথে সমন্বয় না করেই মেম্বার নিজে তার মর্জিমতো কাজ করছেন। ঘটনার দিন পরিষদের বিভিন্ন কাজে আমি ব্যস্ত থাকার সুযোগে সে অনিয়ম করেছে বলে সাধারণ মানুষ আমাকে জানিয়েছে।

এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফেরদৌসী আক্তার বলেন, ওই ইউপি সদস্যকে মাষ্টারোল দেখাতে বললে সে দেখায়নি। পরে পুলিশের সহায়তায় মাষ্টাররোল জব্দ করে দেখা যায় একটি তালিকায় সব ঠিকঠাক থাকলেও অন্যটিতে শুধু স্বাক্ষরের কলামে টিপসই রেখে চাল বিতরণ করা হয়েছে। তালিকা দেখে বুঝা যাচ্ছে এখানে অনিয়ম করা হয়েছে। এঘটনায় ওই ইউপি সদস্যকে শোকজ করা হয়েছে।


এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: