সর্বশেষ আপডেট : ৭ মিনিট ১৩ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ পৌষ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

খালেদা পড়ে গেলে মিডিয়ায় আসতো : অ্যাটর্নি জেনারেল

নিউজ ডেস্ক:: অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেছেন, গত ৫ তারিখ রোজার কারণে খালেদা জিয়ার শরীরের সুগারের পরিমাণ কমে গিয়েছিল। ওনি মাথা ঘুড়ে পড়ে যায়নি, পড়ে গেলে মিডিয়ায় আসতো। এতদিন পরে তারা আদালতের সহানুভূতি নেয়ার জন্য এসব অভিযোগ করছে। ডাক্তাররাও রাজনীতিতে জড়িয়ে গেছে।

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে কুমিল্লার নাশকতার এক মামলার শুনানি শেষে রোববার দুপুরে অ্যাটর্নি জেনারেলের কার্যালয়ে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, আমি সিভল সার্জন ও আইজি প্রিজনের সঙ্গে কথা বলেছি। তারা বলেছেন, খালেদা জিয়া ৫/৭ মিনিট অজ্ঞান ছিলেন এ খবর সঠিক নয়। গত ৫ জুন উনার (খালেদা জিয়া) সুগার লেভেল নেমে গিয়েছিল। রোজার দিনে ইফতারের আগে তিনি দাঁড়ানো থেকে ঘুরে গিয়েছিলেন। পরে চকলেট খাইয়ে তাকে ঠিক করানো হয়।

তিনি বলেন, কুমিল্লার একটি মামলার শুনানি ছিল। আদালত আজ (সোমবার) কিছু সময় শুনানির পর আবার মুলতবি করেন। শুনানিকালে আদালতকে আমরা জানিয়েছি, খালেদা জিয়ার অজ্ঞান হওয়ার বিষয়টি সঠিক নয়। বরং তিনি রোজা রাখার কারণে তার সুগার কমে গিয়েছিল। এই বয়সে তার ডায়বেটিস আছে।

মাহবুবে আলম বলেন, শুধুমাত্র জামিন নেওয়ার ক্ষেত্রে সহানুভূতি পেতে বিএনপির আইনজীবীরা মিথ্যাচার করছেন। কারাগারের সকল বন্দিদের বিষয়ে সিভিল সার্জন ও পুলিশের আইজি অবশ্যই জানতো। আমি মামলার শুনানির আগে আইজির সাথে কথা বলেছি। তিনি বলেছেন, খালেদা জিয়া অজ্ঞান হওয়ার কথাটি সঠিক নয়। বরং রোজার কারণে তার সুগার কমে গিয়েছিল।

এর আগে শনিবার বিকেলে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করার পর তার চিকিৎসকরা জানান, খালেদা জিয়া ‘মাইল্ড স্ট্রোক’ করেছিলেন। কারাগারে খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে পুরনো ঢাকার নাজিম উদ্দিন রোডে কারা ফটকের সামনে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক এফএম সিদ্দিকী সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘গত ৫ জুন দুপুর ১টার দিকে খালেদা জিয়া হঠাৎ মাথা ঘুরে পড়ে যান। ৫-৭ মিনিট পর তার জ্ঞান ফিরলেও ওই সময়ের কথা কিছুই মনে করতে পারছেন না। আমরা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে যতটুকু বুঝতে পেরেছি তার মাইল্ড স্ট্রোক হয়েছে। আগামীতে বড় ধরনের স্ট্রোক হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।’

উল্লেখ্য, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের সাজা দেন আদালত। বর্তমানে তিনি নাজিমউদ্দিন রোডের পুরাতন কারাগারে বন্দি রয়েছেন।




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: