সর্বশেষ আপডেট : ৭ মিনিট ৩২ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

তাহিরপুরে মৎস্য খামারীদের প্রশিক্ষন,প্রদশর্নী ও উপকরণ বিতরণ

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:: সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় মাস ব্যাপী ২৮০জন মৎস্য খামারীদের প্রশিক্ষন,প্রদশর্নী ও উপকরন বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। জুন থেকে ৬ই জুলাই পর্যন্ত মাস ব্যাপী উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের মধ্যে ০৪টি ইউনিয়নে (বাদাঘাট,উত্তর বড়দল,উত্তর শ্রীপুর ও বালিজুরী) ০৮টি সিআইজি সমিতির নির্বাচিত করে ৩টি করে প্রতি সমিতিকে মোট ২৪টি পুকুরে (১২টি তেলাপিয়া এবং ১২টি কাপ মিশ্রচাষ) প্রদর্শনী পুকুর হিসাবে স্থাপন করে প্রদর্শনীর উপকরন হিসাবে (দেশী রুই জাতীয় ও তেলাপিয়া) মৎস,(ভাসমান,ডুবন্ত,পাউডার,প্রি-স্টার্টার,চুন(জিওলাইট)সাইন র্বোড বিতরণসহ সকল কার্যক্রম ব্যাপক প্রচারের মাধ্যমে উপজেলায় সম্পন্ন হয়েছে।

এতে উপস্থিত ছিলেন-তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পূনেন্দ্র দেব। এছাড়াও উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আব্দুছ ছালাম,উপজেলা প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ সমাপ্ন চাকমা,উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা মোহাম্মদ আতিকুর রহমানসহ রাজনৈতিক নেতৃবৃন্ধ উপস্থিত ছিলেন উপজেলায় প্রশিক্ষন প্রাপ্ত্য উত্তর শ্রীপুর ইউনিয়নের রতনপুর গ্রামের সিআইজি মৎস্য সমিতির সভাপতি ফজলুর রহমান বলেন,আমি উপজেলা মৎস্য বিভাগের মাধ্যমে মনোসেক্স তেলাপিয়া চাষ সর্ম্পকে অবহিত হয়েছি। এই মাছ চাষ করতে আগ্রহী হয়ে উপজেলা মৎস্য অফিস থেকে ৫হাজার পোনা নিয়েছি। এর সাথে মাছের খাবার হিসাবে পাউডার,প্রি-স্টার্টার,চুন(জিওলাইট) ও সাইন বোর্ড নিজ খামারে লাগিয়েছি। সিআইজি জাহিদ আনোয়ার রাসেল জানান,আমার মত অনেকেই মাছ চাষে প্রশিক্ষন নিয়েছে। সবাই নিজেদের আর্থিক উন্নয়নেই শুধু নয় এই প্রশিক্ষন এলাকায় সবার মাঝে সাড়া ফেলেছে। উপজেলা মৎস্য বিভাগের সহযোগীতা ও প্রশিক্ষন এবং এর সাথে পোনা,খাবারসহ বিভিন্ন উপকরন পাওয়ায় উপকৃত হয়েছি। উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ তানভীর আহমদ জানান,আমার অফিস জনবল সংকট এবং এই এলাকার যোগাযোগ ব্যবস্থা সংকটপূর্ন থাকার পরও বহু কষ্টে খামারীদের মাধ্যমে মাছের উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে নির্ধারীত ৪টি ইউনিয়নের সিআইজি সমিতির মাধ্যমে ফলাফল প্রদর্শক চাষী ও সহযোগী মৎস্য চাষীসহ সকল সদস্য আধুনিক প্রযুক্তিতে মাছ চাষ ব্যবস্থাপনা সম্পর্কে মাস ব্যাপী প্রশিক্ষন লব্ধ বাস্থবজ্ঞান অর্জন করেছন।

অন্য ৩টি ইউনিয়নে (তাহিরপুর সদর,দক্ষিন বড়দল দক্ষিন শ্রীপুর) পরবর্তিতে পানি কমলে বরাদ্ধ পাওয়ার পর ক্রমান্বয়ে মৎস্য উৎপাদন ও আমিষের চাহিদা মিটানোর জন্য এই কার্যক্রম পরিচালিত হবে। এই প্রকল্পের মাধ্যমে সিআইজি সমিতির সদস্যরা আধুনিক প্রযুক্তি প্রয়োগ করে নিজ নিজ খামারে মাছ চাষ করছেন। প্রশিক্ষন প্রাপ্ত্য জ্ঞান সঠিক ভাবে কাজে লাগিয়ে নিজেদের আর্থসামাজিক উন্নয়ন,মাছের উৎপাদন বৃদ্ধির মাধ্যমে এই উপজলায় আমিষের চাহিদা মিটিয়ে দেশের সর্বত্র মাছ বিতরণ করে আমিষের চাহিদা মেটাতে সক্ষম হবে।




এ বিভাগের অন্যান্য খবর




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: