সর্বশেষ আপডেট : ২৭ মিনিট ৫৯ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

প্রতিদিন ডিম পাড়ে এই কিশোর! দেখালো ডাক্তারদের সামনেও!

চিত্র-বিচিত্র ডেস্ক :: প্রথমে শুনে এ খবরকে আজগুবি কিংবা মিথ্যা বলেই মনে হবে। মানুষ আবার ডিম পাড়ে নাকি? একেবারে ঘোড়ার ডিমের মতই আজগুবি। কিন্তু এটাই সত্য। সত্য মানে পরীক্ষিত সত্য।

ইন্দোনেশিয়ার গোয়ায় ১৪ বছরের এক কিশোর গত ২ বছর ধরে প্রতিদিন একটি করে ডিম পেড়ে চলেছে। বহু ডাক্তার দেখানো হয়েছে। কিন্তু কোনও কিছুতেই সুরাহা হয়নি। হতাশ ১৪ বছরের কিশোর আকমলের পরিবারও। শেষে ইন্দোনেশিয়ার একটি বড় হাসপাতালে আকমলকে নিয়ে যান তার বাবা রুশিল। চিকিৎসকরা শুনে কিছুতেই মেনে নিতে রাজি হননি। শেষে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয় আকমলকে। সেখানেই প্রায় পাঁচজন চিকিৎসকের সামনে ডিম পেড়ে দেখায় আকমল। তাই দেখে চোখ কপালে উঠেছে চিকিৎসকদেরও। তারাও বলছেন, জানিয়েছেন ডিমগুলি অবিকল মুরগির ডিমের মতোই।

এমনকি পরীক্ষাগারে সেগুলি নিয়ে গিয়ে পরীক্ষাও করা হয়েছে। তাতে মুরগির ডিমের থেকে কোন পার্থক্য খুঁজে পাননি চিকিৎসকরা।


আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে প্রকাশিত এ সংক্রান্ত খবরের স্ক্রীণশট
অথচ আকমলের বাবার দাবি, ছোটবেলা থেকে কোন দিন আস্ত মুরগির ডিম গিলে খায়নি সে। আকমলের পেটের এক্সরে করে দেখা গেছে, বৃহদন্ত্রের কাছে এসে জমা হচ্ছে ডিমটি। কীভাবে সম্ভব? এই চিন্তায় ঘুম হাওয়া হাসপাতালের চিকিৎসকদের। এদিকে গ্রামে এই নিয়ে শোরগোল পড়ে গেছে।

আকমলের বাবা রুসালি জানিয়েছেন, ছেলের এই ডিম পাড়ার জেরে তাদের একঘরে করে রাখা হয়েছে। গ্রামের অনেকের দাবি, তার ছেলে আকমলের উপর কোনও হুর পরী ভর করেছে। সেই কালোজাদুর কারণেই এই ঘটনা ঘটছে। তবে সে যাই হোক ইন্দোনেশিয়ার হাসপাতালে এখন আকমলকে দেখতে ভিড় করছেন অনেকেই। মিডিয়াকে সামলাতে হিমসিম খাচ্ছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। ‌‌তথ্যসূত্র: দ্য সান ইউকে।




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: