সর্বশেষ আপডেট : ৪ ঘন্টা আগে
শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ বৈশাখ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

মেয়েকে শেষবারের মতো দেখলেন তাজিন আহমেদের মা

বিনোদন ডেস্ক:: কিছু বিদায় চিরদিনের, তার আর ফিরে আসা হয় না। কিছু দেখাও শেষ দেখা, তার আর পুনরাবৃত্তি হয় না। সেই দেখাই হয়ে গেল মা-মেয়েতে। আর কখনো মা শুনবেন না মেয়ের মুখে ‘মা’ ডাক। সেই সুযোগ নশ্বর এই পৃথিবীতে আর রইলো না।

কেননা, জীবনের মায়া কাটিয়ে পরপারে পাড়ি জমালেন অভিনেত্রী তাজিন আহমেদ। মা পাগল এই অভিনেত্রী আর কোনোদিন মায়ের মুখোমুখি হবে না। বুধবার সকালে হয়ে গেল তাদের শেষ দেখা।

শেষবারের মতো মা’কে দেখাতে বুধবার (২৩ মে) সকালে অ্যাম্বুলেন্সে করে অভিনেত্রী তাজিন আহমেদের মরদেহ নেওয়া হয় কাশিমপুর মহিলা কেন্দ্রীয় কারাগার ফটকে। এসময় তার পরিবারের লোকজন সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

তাজিনের শৈশবেই তার বাবা মারা গিয়েছিলেন। শিশু কন্যাকে বুকে আগলে ধরে একটা জীবন কাটিয়ে দিলেন তাজিনের মা দিলারা জলি। নিজে আর কখনোই কোনো সম্পর্কে জড়াননি। কষ্টে-আহ্লাদে মানুষ করেছিলেন মেয়েকে। সেই মেয়েকে শেষ বিদায় দিতে কিংবা শেষ দেখা দেখতে গিয়ে যেন শোকে পাথর হয়েছিলেন তাজিনের মা। যখন সেই পাথরে আবেগ আঘাত হানলো, নিষ্ঠুর নিয়তির প্রতি মায়ের ক্ষোভ যেন বৃষ্টি হয়ে ঝরে গেল। এই কান্নার সান্তনা নেই, এই কান্নার বিরামও নেই।

তাজিন আহমেদের মা চেক ডিজঅনার মামলায় প্রায় ২ বছর ধরে কাশিমপুর মহিলা কেন্দ্রীয় করাগারে বন্দি রয়েছেন। তাই শেষবারের মতো মা’কে দেখাতে তাজিনের মরদেহ সেখানেই নিয়ে যাওয়া হয়েছিলো। কিছু সময় পরই আবার তাজিনের মরদেহবাহী অ্যাম্বুলেন্স ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা দেয়।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার (২২ মে) বিকেলে রাজধানীর উত্তরার একটি হাসপাতালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী তাজিন আহমেদ। বুধবার বাদ জোহর তার জানাজা গুলশানের আজাদ মসজিদে শেষে বনানী কবরস্থানে দাফন করা হয়।




এ বিভাগের অন্যান্য খবর




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: