সর্বশেষ আপডেট : ৯ মিনিট ৫ সেকেন্ড আগে
বৃহস্পতিবার, ১৯ জুলাই ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সিলেট প্রেসক্লাবে মায়ের সংবাদ সম্মেলন: মোহাম্মদ আলী হত্যা মামলার আসামিদের গ্রেপ্তার দাবি

মোহাম্মদ আলী হত্যা মামলার আসামিরা প্রকাশ্যে ঘুরাফেরা করলেও পুলিশ তাদের গ্রেপ্তার করছে না বলে অভিযোগ করেছেন মামলার বাদী আফতেরা বিবি। তিনি আরো অভিযোগ করেন তার পুত্র হত্যা মামলার আসামিরা তাকে এবং তার পরিবারকে মোবাইলে হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। রোববার সিলেট প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন। তিনি সকল আসামিদের দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবি জানান।

লিখিত বক্তব্যে আফতেরা বিবি বলেন, সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক থানার ঝিগলী গ্রামে স্থায়ী নিবাস হলেও বর্তমানে দক্ষিণ সুরমা থানার সিলাম (ধোপাঘাট) এলাকায় বসবাস করছেন। তিনি বলেন, গত ২৬ এপ্রিল সন্ধ্যায় তার ছেলে মোহাম্মদ আলী (৩২) কে কাজিরবাজার সেতুতে একদল পেশাদার সন্ত্রাসী নির্মমভাবে খুন করে। ঘটনার ১৬ দিন অতিবাহিত হলেও পুলিশ এখন পর্যন্ত মামলার প্রধান আসামি সুহেল বেগসহ তার সহযোগীদের গ্রেপ্তার করেনি। উল্টো আসামিরা তাদেরকে মোবাইল ফোনে হুমকি প্রদান করে যাচ্ছে। গ্রেপ্তারের বিষয়ে জানতে তারা থানায় গেলে পুলিশ আসামিদের সম্পর্কে তথ্য দেয়ার জন্য বলে।

আফতেরা বিবি বলেন, দুই সন্তানের জনক মোহাম্মদ আলী পাথরের ব্যবসা করতো। ব্যবসা-বাণিজ্য করে সে পরিবারের ভরণ-পোষণ চালাতো। অথচ ছিনতাইর টাকা ভাগাভাগি নিয়ে সে খুন হয়েছে বলে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। যা দেখে তারা হতবাক ও মর্মাহত। তিনি বলেন, ২৬ এপ্রিল বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে তার আরেক ছেলে আখতার হোসেনের মোবাইলে রাজু নামে একজন ফোন করে জানায় মোহাম্মদ আলীকে ছুরিকাঘাত করে গুরুতর জখম করা হয়েছে। সংবাদ পেয়ে ওসমানী হাসপাতালে গিয়ে তারা দেখতে পান একটি ট্রলির উপর মোহাম্মদ আলীর মৃতদেহ পড়ে আছে। তার দুই উরুতে, পিঠে, দুই হাতেসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্রের আঘাত ছিল। ওইদিন রাতেই তিনি বাদী হয়ে এসএমপির কোতোয়ালি মডেল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় মৃত বক্কু বেগের পুত্র সুহেল বেগ ও সাইফুল ইসলাম, মাহবুব, মাসুম, আব্দুল্লাহ, মহিন, আবির ও তোফায়েলের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা আরো ৮/১০ জনকে আসামি করেন। তিনি অভিযোগ করেন উল্লেখিত আসামিরা দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে সিলেটে এসে ভাড়াটি সন্ত্রাসী হিসেবে অপরাধ কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছে। তার নিরীহ ছেলেকে এরা অত্যন্ত নির্মমভাবে খুন করেছে। তার দুটি অবুঝ সন্তানকে এতিম করা হয়েছে। তিনি দাবি করেন ব্যবসায়িক কারণে পূর্ব বিরোধের জের ধরে যে কেউ তার ছেলেকে খুন করাতে পারে। তার ছেলে ছিনতাইকারী নয়, কোনো অপরাধের সাথে সে সম্পৃক্ত ছিল না।

তিনি বলেন, ঘটনার পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে মামলার ৪নং আসামি মাসুমকে গ্রেপ্তার করে। মাসুমের দেয়া শিকারোক্তি অনুযায়ী তাদের সহযোগী শাহেদকেও গ্রেপ্তার করে পুলিশ। মামলার অন্যতম আসামি মাহবুব সম্প্রতি কক্সবাজারে গিয়ে ছবি তুলে তা ফেইসবুকে আপলোড দিয়েছে। প্রধান আসামি সুহেল বেগ মোবাইল ফোনে অডিও রেকর্ড পাঠিয়ে তাদেরকে হুমকি দিচ্ছে। এসব তথ্য পুলিশকে দেয়ার পরও আসামিদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে না বলে তিনি অভিযোগ করেন। আসামিদের গ্রেপ্তারে প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীসহ পুলিশের উর্ধ্বতন মহলের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তিনি। একই সঙ্গে তিনি আসামিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন। সংবাদ সম্মেলনে মোহাম্মদ আলীর পিতা আব্দুন নুর, স্ত্রী সীমা বেগম, বোন হালিমা ও তামান্না, সন্তান এহসান ও ইসমাইল উপস্থিত ছিলেন। লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মো. সফিক। – বিজ্ঞপ্তি

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক: লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: