সর্বশেষ আপডেট : ১০ মিনিট ৫৪ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ২০ মে, ২০১৮, খ্রীষ্টাব্দ | ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সিলেটের লোকজ গান নিয়ে তথ্য বিকৃতি : বাংলা একাডেমিকে লিগ্যাল নোটিশ

কয়েকটি জনপ্রিয় ও বিখ্যাত লোকসংগীত রচনার তথ্য বিকৃতির জন্যে বাংলা একাডেমির মহাপরিচালকসহ সংশ্লিষ্ট তিনজনকে লিগ্যাল নোটিশ দেয়া হয়েছে। সংস্কৃতিসেবী কামাল উদ্দিন রাসেল লিগ্যাল নোটিশে বাংলা একাডেমির ওই বই প্রত্যাহারক্রমে ভ্রান্তির জন্য দুঃখ প্রকাশ এবং নতুন করে বই প্রকাশের অনুরোধ জানিয়েছেন।

বাংলা একাডেমি ২০১৪ সালের জুন মাসে ‘বাংলা একাডেমি বাংলাদেশের লোকজ সংস্কৃতি গ্রন্থমালা সিলেট’ বই প্রকাশ করে। এই বইয়ে বাউলসম্রাট শাহ আবদুল করিমের লেখা ‘মাটির পিঞ্জিরায় সোনার ময়না রে, তোমারে পুষিলাম কত আদরে’ গান দুধু মিয়ার রচনা, শাহ সুফি আরকুম আলী (র.) রচিত ‘কৃষ্ণ আইলা রাধার কুঞ্জে, ফুলে পাইলা ভ্রমরা, ময়ূর বেশেতে সাজওইন রাধিকা’ গান শাহ আবদুল করিমের লেখা, শাহ আবদুল করিম রচিত ‘তোমরা কুঞ্জ সাজাও গো, আজ আমার প্রাণনাথ আসিতে পারে’ গানটি দুর্বিন শাহর লেখা, গণমানুষের কবি দিলওয়ারের লেখা ‘তুমি রহমতের নদীয়া, দয়া করো মোরে হজরত শাহজালাল আউলিয়া’ গানটি দুর্বিন শাহর রচনা, এ.কে. এনামের লেখা ‘সুরমা নদীর তীরে আমার ঠিকানা রে, বাবা শাহজালালর দেশ সিলেট ভূমি রে’ গানটি দুর্বিন শাহর লেখা, কবি গিয়াস উদ্দিন রচিত ‘আমার বাড়ি যাইও তুমি আমার বুয়াইর বিয়া, লো বইনারি, কাইল বিয়ানে আইবা দুলাভাই’ গানটি দুর্বিন শাহ লিখেছেন বলে মিথ্যা তথ্য উল্লেখ করা হয়েছে। এছাড়াও বইয়ের নাম ‘বাংলা একাডেমি বাংলাদেশের লোকজ সংস্কৃতি গ্রন্থমালা সিলেট’ হলেও তাতে ভিন্ন জেলার বাউল ও গীতিকারদের অনেক গান অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। বাংলা একাডেমির প্রকাশিত গ্রন্থে এরকম ভ্রান্তি দুঃখজনক ও অমার্জনীয় ইতিহাস বিকৃতি বলে লিগ্যাল নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে।

দক্ষিণ সুরমার ধরাধরপুরস্থ আরকুম শাহ মাজার পরিচালনা কমিটির সহসভাপতি ও বাউল কল্যাণ সমিতি সিলেট বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা আহ্বায়ক কামাল উদ্দিন রাসেলের পক্ষে অ্যাডভোকেট পৃথিশ দত্ত পিংকু গত ৯ মে এই লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়েছেন। বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক ও বাংলাদেশ লোকজ সংস্কৃতি গ্রন্থমালার প্রধান সম্পাদক শামসুজ্জামান খান, বাংলাদেশ লোকজ সংস্কৃতি গ্রন্থমালা সিলেট-এর প্রধান সমন্বয়কারী (শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের প্রধান) শরদিন্দু ভট্টাচার্য এবং বাংলা একাডেমি লোকজ সংস্কৃতি গ্রন্থমালার ব্যবস্থাপনা সম্পাদক ও প্রকাশক মো. আলতাফ হোসেনের নামে এই লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে। লিগ্যাল নোটিশে উক্ত বইটি বাজার হতে প্রত্যাহারক্রমে ভ্রান্তির জন্য দুঃখ প্রকাশ এবং ভুলগুলো সংশোধন সাপেক্ষে নতুন করে বইটি প্রকাশের অনুরোধ জানানো হয়েছে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।




এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: