সর্বশেষ আপডেট : ৩২ মিনিট ৫৬ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

আট বছরে ওয়াসার পানির দাম বেড়ে দ্বিগুণ

নিউজ ডেস্ক:: আগামী পহেলা জুলাই থেকে ফের পানির দাম বাড়াচ্ছে ঢাকা ওয়াসা কর্তৃপক্ষ। এনিয়ে চলতি অর্থ বছরের মধ্যে তৃতীয় দফায় এই দাম বাড়ানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। দাম বাড়ালে নতুন অর্থ বছর থেকে পানির জন্য অতিরিক্ত অর্থ গুনতে হবে গ্রাহকদের। গ্রাহকরা বলছেন, প্রতিবছরই কয়েক দফায় পানির দাম বাড়ায় ওয়াসা কিন্তু সেই অনুযায়ী সেবার মান বাড়ানো হচ্ছে না। সেবার মান না বাড়িয়ে দফায় দফায় পানির দাম বৃদ্ধি করায় ক্ষোভ জানিয়ে গ্রাহকরা বলছেন, ওয়াসার সেবা কাগজে কলমে। ওয়াসার পানি ময়লা ও দুর্গন্ধযুক্ত। তাই পানির এ দাম বাড়ানো অযৌক্তিক।

তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, গত ৮ বছরে ওয়াসার পানির দাম বেড়েছে দ্বিগুণের চেয়েও বেশি। ২০০৯ সালে প্রতি ইউনিট (এক হাজার লিটার) আবাসিক সংযোগ পানির দাম ৫ টাকা ৭৫ পয়সা, ২০১০ সালে প্রতি ইউনিট পানির দাম ৬ টাকা ৪ পয়সা, ২০১১ সালে প্রতি ইউনিট পানির দাম ৬ টাকা ৩৪ পয়সা ও ২০১২ সালে প্রতি ইউনিট পানির দাম ৬ টাকা ৬৬ পয়সা ছিল। এভাবে প্রতিবছর বাড়িয়েও ২০১৭ সালে দুই দফায় পানির দাম বাড়ানো হয়। সর্বশেষ গত বছরের নভেম্বর মাসে বাড়ানো দাম অনুযায়ী বর্তমানে আবাসিক প্রতি ইউনিট (এক হাজার লিটার) পানির মূল্য ১০ দশমিক ৫০ টাকা আর বাণিজ্যিক সংযোগে প্রতি ইউনিট পানির দাম ৩৩ দশমিক ৬০ টাকা।

ঢাকা ওয়াসা জানিয়েছে, পানির উত্পাদন খরচ ও পরিচালনা ব্যয় বৃদ্ধিসহ অন্যান্য কারণে আগামী ১ জুলাই থেকে ৫ শতাংশ সমন্বয় করে যথাক্রমে ১০ দশমিক ৫০ টাকার স্থলে ১১ দশমিক ০২ টাকায় এবং ৩৩ দশমিক ৬০ টাকার স্থলে ৩৫ দশমিক ২৮ টাকায় নির্ধারণ করা হয়েছে। সেই অনুযায়ী আবাসিক সংযোগে প্রতি ইউনিট পানির দাম পড়বে ১১ দশমিক ০২ টাকা আর বাণিজ্যিক সংযোগে প্রতি ইউনিট পানির দাম পড়বে ৩৫ দশমিক ২৮ টাকা।

ওয়াসা কর্তৃপক্ষ বলছে, চলতি বছরের মুদ্রাস্ফীতির সঙ্গে আংশিক সামঞ্জস্য বিধানের লক্ষ্যে এ দাম বাড়ানো হচ্ছে। ওয়াসা আইন ১৯৯৬-এর ২২ ধারা অনুযায়ী দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। এ সিদ্ধান্ত মিটারবিহীন হোল্ডিং, গভীর নলকূপ, নির্মাণাধীন ভবন ও ন্যূনতম বিলসহ সকল প্রকার (পানি ও পয়ঃ) ব্যবহারের ক্ষেত্রে কার্যকর হবে। সম্প্রতি ঢাকা ওয়াসা পানির দাম বৃদ্ধির বিষয়টি উল্লেখ করে বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে।

তথ্য মতে, বর্তমানে ঢাকা ওয়াসার পানির উত্পাদ ক্ষমতা ২৪৫ কোটি লিটার। চাহিদা অনুযায়ী ২৪০ কোটি লিটার উত্পাদনের কথা বলা হলেও রাজধানীর অনেক এলাকায়ই পানি পাওয়া যায় না বলে অভিযোগ গ্রাহকদের। এনিয়ে গত কয়েক মাসে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় সড়ক অবরোধ করে পানির দাবিতে বিক্ষোভও করেছে গ্রাহক। যদিও ঢাকা ওয়াসার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বরাবরের মতোই বলে আসছেন, পানির কোনো সংকট নেই।

তবে বাস্তব চিত্র ঠিক উল্টো, এমনটাই বলছেন গ্রাহকরা। এ ছাড়া ওয়াসা নিয়ে গত ১৪ মার্চ মিরপুরের বিআইবিএম মিলনায়তনে দুদকের গণশুনানিতেও গ্রাহকদের ক্ষোভের চিত্র ফুটে উঠে।

দাম বৃদ্ধির বিষয়ে ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) প্রকৌশলী তাকসিম এ খান একটি সভায় থাকার কথা জানিয়ে এ ব্যাপারে মন্তব্য করা সম্ভব নয় বলে জানান।


নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: