সর্বশেষ আপডেট : ২৬ মিনিট ৫১ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

তেলাপোকায় খেয়ে ফেলছে চুল!

চিত্রবিচিত্র ডেস্ক ::
ঘুম থেকে উঠে হঠাৎ দেখা গেল মাথার কোনো কোনো জায়গায় চুল নেই। বুঝতে না পেরে বা ঘাবড়ে গিয়ে বাড়ির অন্যদের জিজ্ঞেস করলে সমস্বরে সবাই বলে উঠবেন— তেলাপোকায় চুল খেয়েছে!

এ সম্পর্কে এই ধারণাটিই প্রচলিত। এ জাতীয় টাক শুধু মাথার চুলেই হয় না; দাড়ি, গোঁফ, ভ্রু ইত্যাদি জায়গায়ও হয়ে থাকে। প্রাথমিক পর্যায়ে সাধারণত এক-দুটি এবং কয়েক দিনের ভেতর পাঁচ-দশটি জায়গায় হঠাৎ গোলাকার অথবা ডিম্বাকৃতির টাক পড়ে। টাক পড়া জায়গায় কখনও কখনও এক-দুটি চুল বিদ্যমান থাকলেও সাধারণত কোনো চুলের গোড়াও দেখা যায় না। চকচকে পিচ্ছিল মনে হয়। কখনও কখনও ত্বক একটু ঢালু বা দাবানো থাকতে পারে আবার না-ও থাকতে পারে। ঠিক একই ধরনের গোলাকার টাক ছত্রাকের আক্রমণেও হতে পারে। তবে ছত্রাক কেবল অল্প বয়সীদেরই হয়ে থাকে। প্রাপ্তবয়স্কদের হয় না।

কিন্তু এলোপেসিয়া এরিয়েটা যে কোনো বয়সেই হতে পারে, বরং প্রাপ্তবয়স্কদের বেশি হয়। ছত্রাকের কারণে যে টাক পড়ে তাতে চুলের গোড়া দেখা যায়, কিন্তু এলোপেসিয়া এরিয়েটাতে চুলের গোড়া দেখা যায় না। এলোপেসিয়া এরিয়েটা ধারণা করা হয়, বংশগত কারণে হয়ে থাকে এবং মানসিক চাপের কারণে এ জাতীয় সমস্যা দেখা দিতে পারে। তেলাপোকা ঘুমের মধ্যে চুল কেটে নিয়েছে- এটা ১০০ ভাগ ভুল ধারণা।

চিকিৎসা: অল্প বয়সে যদি এ জাতীয় সমস্যা হয়, তবে এমনিতেই ভালো হয়ে যেতে পারে। তবে সব ক্ষেত্রে নয়। কখনও কখনও ভালো না হয়ে আকারে এবং সংখ্যায় বেড়ে গিয়ে মাথার সমস্যা চুল, ভ্রু, দাড়ি, গোঁফ ইত্যাদি ধরে যেতে পারে। প্রাথমিক পর্যায়ে ছোট ছোট টাক পড়া জায়গা অর্থাৎ আক্রান্ত স্থানে স্টেরয়েড জাতীয় ইনজেকশন ত্বকের নিচে তিন-চার সপ্তাহ পরপর দিয়ে রোগের বিস্তার রোধ করা সম্ভব।

এতে আক্রান্ত স্থানে নতুন করে চুল গজাবে। তবে চিকিৎসা চলাকালীন নতুন জায়গা আক্রান্ত হতে পারে। সে ক্ষেত্রে সেখানেও এই ইনজেকশন দিতে হবে। একটা পর্যায়ে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে নিজে নিজেই ঠিক হয়ে যাবে। আবার কখনও যদি সমস্যা দেখা দেয় তাহলে হতাশ না হয়ে আবার চিকিৎসা নিতে হবে।




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: