সর্বশেষ আপডেট : ৫৪ মিনিট ৩ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ২৬ মে, ২০১৮, খ্রীষ্টাব্দ | ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

এখানে দু’জনে নির্জনে…

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: নির্জনে খোশগল্পে মেতেছেন উত্তর আর দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট। দু’জন একটি নীল ফুটওভার ব্রিজে বসে গল্প করছেন। সে সময় তাদের আশেপাশে আর কেউ ছিল না। গাছের ছায়ার নিচে চা পান করতে করতে দু’জনকে বেশ অন্তরঙ্গভাবে আলাপ করতে দেখা যায়। চারপাশে পাখির কলকাকলিতে মুখর হয়ে ওঠে।

বৈঠক শেষে দুপুরে আলাদা আলাদা খাবার গ্রহণ করবেন। বিকেলের দিকে দু’দেশের মধ্যে শান্তি এবং সমৃদ্ধির প্রতিক হিসেবে একটি পাইন গাছ রোপন করবেন মুন জ্যা ইন এবং কিম জং উন। দু’দেশের মাটি এবং পানি ব্যবহার করেই গাছটি লাগানো হবে।

১৯৫৩ সালে কোরিয়া যুদ্ধ শেষ হওয়ার পর থেকে যে সামরিক রেখা এই উপদ্বীপকে বিভক্ত করে রেখেছে, উত্তর কোরিয়ার প্রথম নেতা হিসেবে ওই রেখা পেরিয়ে দক্ষিণ কোরিয়ার মাটিতে পা রেখেছেন কিম জং-উন। আলোচনা শুরুর আগে মুখে হাসি নিয়ে হাত নেড়ে সীমান্তে কিমনে স্বাগত জানান দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জ্যা-ইন।

সীমান্তের দু’পাশে ডিমিলিটারাইজড জোনে হাত মেলান কিম ও মুন। সে সময় মুন কিমকে প্রশ্ন করেন, কখন আপনি সিওলে আসতে পারব আর আমি কখন আপনার দেশে পা রাখতে পারব?

কিম এই প্রশ্নের জবাবে বলেন, আমরা এখনই কেন সীমান্ত পার হচ্ছি না? এরপর কিম আরও বলেন, সীমান্তের উচ্চতা খুব বেশি নয়। অনেক মানুষ সীমান্ত পেরিয়ে যাওয়া আসা করলে তা কি অদৃশ্য হয়ে যাবে না?

মুন আর কিম খুবই ঘনিষ্ঠভাবে আলাপ করছিলেন। আশেপাশে কোনো মাইক্রোফোন ছিল না। তারা আসলে কি নিয়ে কথা বলছিলেন তা ওই বৈঠক শেষ হওয়ার পরেই জানা যাবে। তবে ইতোমধ্যেই তাদের ওই ঘনিষ্ঠ মুহূর্ত নিয়ে উত্তেজনা যেন শেষই হচ্ছে না।




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: