সর্বশেষ আপডেট : ১১ মিনিট ১০ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ২৫ মে, ২০১৮, খ্রীষ্টাব্দ | ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

হাওরাঞ্চলে মৌ মৌ গন্ধ মুখরিত চারপাশ,আবহাওয়ার নিয়ে আতংকে হাওরবাসী

জাহাঙ্গীর আলম ভূঁইয়া,তাহিরপুর:: সুনামগঞ্জের হাওরে হাওরে পাকা বোরো ধানের মৌ মৌ গন্ধে মুখরিত চারপাশ। সোনালী ধানের ছড়া সূর্যের আলোতে জলমল করে বাতাশে দোল খাচ্ছে। এ জেলার বিস্তীর্ন হাওরাঞ্চলে এবার ধানের ফলন ভাল হওয়ার ফলে কৃষকের মুখে ফুটেছে হাসির ঝিলিক। সেই খুশিতে কষ্টের ফলানো সোনালী রংঙ্গের ধান কেটে মাড়াই দিয়ে গোলায় তুলতে বৌ,ছেলে,মেয়ে নিয়ে আপন মনে ব্যস্থ সময় পার করছে হাওরাঞ্চলের কৃষকরা। বর্তমানে বৈরী আবহাওয়ার কারনে কিছুটা আতংকে আছে হাওরবাসী। পাশাপাশি শ্রমিক সংকটের রয়েছে হাওরে প্রকট।

জানাযায়, জেলার বিশাল হাওর জুড়েই বৈশাখ মাসের শুরু হওয়ার পর বোরো ধান কাটার ধুম পড়েছে। পাশা পাশি শ্রমিক সংকটও রয়েছে। জেলার তাহিরপুর,জামালগঞ্জ,দোয়ারাবাজার,বিশ্বাম্ভরপুর,ধর্মপাশা,দিরাই,শাল্লা,সুনামগঞ্জ সদরসহ ১১টি উপজেলা হাওরাঞ্চলের ৮০ভাগ কৃষক পরিবার কৃষি কাজের মধ্যে তারা তাদের জীবন জীবিকা ও অতীত ঐতিহ্যের লালিত স্বপ্ন ধারাবাহিক ভাবে প্রকাশ করছে। গত দু-বছরেই সম্পূর্ন বোরো ধান হারানোর পর পর নিঃপ্রান হাওরে পানি কমার সাথে সাথে আবারও কৃষকরা বোরো ধান চাষাবাদ করতে না পারলেও একটু দেরীতে চাষাবাদ করারপরও এবার হাওরে জেগেছে প্রান। বৈশাখ মাসের শুরুতেই হাওরের বোরো ধানের গোছায় সোনালী রং ধরায় কৃষকের বুকের ভিতরে জেগেছে সুখের প্রান। মলিন মুখে দেখা দিয়েছে আনন্দের হাসি। এখন কষ্টের ফলানো পাকা বোরো ধান কাটা,মাড়াইয়ের কাজ নিজে ও পরিবারের লোকজন ও কিছু ধান কাটার শ্রমিক নিয়ে। কিন্তু সেই ধান কাটার জন্য পূর্বের দিন গুলোর মত শ্রমিকের খোঁজ পাচ্ছে না কৃষক। ফলে হাওরে হাওরে ধান কাটার শ্রমিকের সংকট থাকার কৃষকগনেরা রয়েছে উৎবেগ আর উৎকণ্ঠার মধ্যে। আর বৈরী আবহাওয়ার কারনে রয়েছে হাওরবাসী আতœংকে। আরো জানাযায়,সম্প্রতি জেলা মাসিক উন্নয়ন সভায় শ্রমিক সংকট এবং কৃষকগন ধান কাটার যন্ত্র ক্রয় করার সামথ্য নেই বিষয়টি উপজেলা চেয়ারম্যানসহ সবার মুখে উঠে আসে। পরে জেলা প্রশাসক উপজেলা পরিষদের নিজস্ব তহবিল থেকে ধান কাটার যন্ত্র ক্রয় করে তা ভাড়ায় কৃষকদের জমিতে বোরো ধান কাটার জন্য বলেন। ইতিমধ্যে জেলার ৮টি ধান কাটা যন্ত্র (কম্বাউন্ড হারভেস্টার) আনা হয়েছে। ব্যক্তিগত উদ্যোগের বিভিন্ন উপজেলার আনা হচ্ছে ধান কাটার মেশিন।

সুনামগঞ্জ জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর কার্য্যালয় সুত্রে জানাযায়,জেলার আবাদ জমির পরিমান ২লাখ ৭৬হাজার ৪শত ৪৭হেক্টর। এবার ২লাখ,২১হাজার ৭৫০হেক্টর জমিতে চাষাবাদ হয়েছে। আর বোরো ধানের লক্ষ্যমাত্র ১২লাখ ১৯হাজার ৪১৪মেট্রিকটনের বেশী ধান। যার মূল্য ২হাজার ৯২৪কোটি ৬৭লাখ ৩৬হাজার টাকার বেশী।

জেলার হাওর এলাকার ঘুরে রহিম উদ্দিন,আব্দুল মোতালেব,সাদেক আলীসহ একাধিক কৃষকদের সাথে কথা বললে তারা জানান,হাওরের বাঁধ নির্মানে অনিয়ম আর পুকুর চুরির কারনে গত দু বছর হাওরবাসীর কষ্টের ফলানো বোরো ধান গোলায় তুলতে পারে নি জেলার ৮০ভাগ কৃষক। এই জেলায় বোরো ধানেই একমাত্র সম্পদ আর বেশি ফলায় কৃষকরা। এবার বোরো ধানের ফলন ভাল হয়েছে। হাওরে মৌ মৌ গন্ধ বিরাজ করছে। এখন পাকা ধান কেটে মাড়াই দিয়ে রোদে শুকিয়ে গোলায় তুলতে ব্যস্থ সময় পার করছি। আবহাওয়ার বৈরী অচরনেও কিছুটা দুষচিন্তায় আছি। এবার বোরো ধানের দাম ন্যার্য মূল্যে নির্ধারন করলে গত কয়েক বছরের ক্ষতি পুষিয়ে আমরা গুড়ে দাড়াঁতে পারব। তাহিরপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আব্দুস ছালাম জানান,এ বছর উপজেলায় বোরো ধানের ভাল ফলন হয়েছে। শ্রমিক সংকট থাকায় ধান কাটার মেশিন আনা হয়েছে। আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে এবার কোন ক্ষতি হবে না। তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান কামরুল বলেন,ধান কাটার যন্ত্র কৃষকদের ক্রয় করার সামাথ্য নেই তাই উপজেলা তহবিল থেকে ক্রয় করে তা আবার কৃষকদের ভাড়ায় বোরো ধান কাটার জন্য জেলা প্রশাসক নির্দেশ দিয়েছেন। সে বিষয়ে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়া হচেছ। এর ফলে কৃষকগন সহজে ধান কাটতে পারবে আর শ্রমিক সংকট কমে আসবে। সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সাবিরুল ইসলাম বলেন,গত কয়েক বছরের কষ্ট ভুলে হাওরপাড়ের কৃষকগন এবারও বোরো ধান চাষ করছে। এবার ধানের ফলনও ভাল হয়েছে। শ্রমিক সংকট থাকায় বোরো ধান হাওর থেকে দ্রুত কেটে আনার জন্য ধান কাটার মেশিন ক্রয় করার জন্য উপজেলা পরিষদের নিজস্ব তহবিল থেকে ব্যবস্থা হচ্ছে।




এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: