সর্বশেষ আপডেট : ২০ মিনিট ২০ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ২০ অগাস্ট ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ ভাদ্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

কানাইঘাটের ডাকাত ফয়জুর রহমানকে কিশোরগঞ্জ থেকে গ্রেফতার

কানাইঘাট প্রতিনিধি:: কানাইঘাটে ডাকাত ফয়জুর রহমানকে কিশোরগঞ্জ থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গত মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কানাইঘাট থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ নুনু মিয়া কিশোরগঞ্জের ভৈরব থানা পুলিশের সহযোগিতায় তাকে গ্রেফতার করেন। এ ব্যাপারে বুধবার বিকাল ২টায় কানাইঘাট থানায় এএসপি সদর মোঃ লুৎফুর রহমান প্রেস ব্রিফিং করেন।

প্রেস ব্রিফিং এ তিনি বলেন, কানাইঘাট উপজেলার সাতবাঁক ইউপির চরিপাড়া মাঝরডি গ্রামের মৃত আবু সিদ্দিকের পুত্র ফয়জুর রহমান একটি পুলিশ এসল্ট মামলার পলাতক প্রধান আসামী। গত ২১ ডিসেম্বর কানাইঘাট থানার এস.আই আবু কাউছার ও বশির আহমদের নেতৃত্বে একদল পুলিশ। ফয়জুর রহমানের ভাই একাধিক ডাকাতি মামলার পলাতক আসামী হাবিবুর রহমান হরু হুনাকে গ্রেফতার করতে যান। এ সময় ডাকাত হাবিবুর রহমান তার ভাই ফয়জুর রহমান সহ তাদের পরিবারের লোকজন পুলিশের উপর হামলা চালিয়ে গুরুতর আহত করে অস্ত্র চিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে।

এ সময় পুলিশ আত্মরক্ষার্থে ফাঁকা গুলি ছুড়লে ডাকতদল পুলিশকে লক্ষ্য করে পাল্টা গুলি ছুড়ে। গুলাগুলির একপর্যায়ে এস.আই বশির আহমদ, আবু কাউছার ও ডাকাত সর্দার হাবিবুর রহমান হরু হুনা গুরুতর আহত হয় এবং পুলিশের ধাওয়া খেয়ে তার সহযোগী ডাকাত ফয়জুর রহমান পালিয়ে যায়। পরে কানাইঘাট থানা থেকে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে ডাকাত হাবিবুর রহমান হরু হুনা সহ গুরুতর আহত পুলিশ সদস্যদের উদ্ধার করে সিওমেক হাসপাতালে প্রেরন করা হয়, কিন্তু আহতদের সেখানে নেওয়ার পর ডাকাত হাবিবুর রহমানকে ডাক্তার মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় থানার এস.আই আবু কাউছার বাদী হয়ে ৯জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা ১২/১৩জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন। পরে নিহত ডাকাত সর্দার হাবিবুর রহমানের সহযোগী সন্ত্রাসীদের প্ররোচনায় ডাকাত ফয়জুর রহমানের স্ত্রী ফারহানা বেগম বাদী হয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ সহ জখমী সকল পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করেন। ফারহানা বেগম মামলায় উল্লেখ করেন, তার স্বামী ফয়জুর রহমানকে ঘটনার দিন পুলিশ অপহরণ করে মেরে ফেলে লাশ গুম করে রেখেছে। বর্তমানে এ মামলাটিও পিবিআই, সিলেটে তদন্তাধীন আছে।

পুলিশ এ ঘটনার সত্যতা বের করতে দীর্ঘদিন থেকে পলাতক ফয়জুর রহমানকে খুজে বের করতে মরিয়া হয়ে উঠে। অবশেষে তারা গত মঙ্গলবার গোপন সংবাদে জানতে পারেন ডাকাত ফয়জুর রহমান কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব এলাকায় জ¦ীন তাবিজ কবজ ও কুফরী কালামের মাধ্যমে কথিত কবিরাজ সেজে ছদ্মবেশে রয়েছে। এমন সংবাদ পেয়ে তদন্ত কর্মকর্তা নুনু মিয়া ভৈরব থানা পুলিশের সহযোগিতায় সেখানে একজন মহিলা রোগীর দ্বারা ফাঁদ পাতিয়া অভিনব কায়দায় ভৈরব শহরস্থ দূর্জয় মোড় থেকে তাকে গ্রেফতার করেন। পরে তাকে কানাইঘাট থানায় নিয়ে এসে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে সে জানায় তাদের কাছে অনেক আগ্নেয়াস্ত্র রয়েছে। তারই দেয়া তথ্য মতে ফয়জুর রহমানকে সঙ্গে নিয়ে পুলিশ তার গ্রামের বাড়ী থেকে মাটিতে পুতে রাখা দেশীয় তৈরি একটি পাইপ গান ও একটি লম্বা ছুরা উদ্ধার করেন। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে অস্ত্র আইনে আরো একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং- ১৩, তাং- ১৮/০৪/২০১৮ইং।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: