সর্বশেষ আপডেট : ৪ মিনিট ৫৭ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ২৪ এপ্রিল, ২০১৮, খ্রীষ্টাব্দ | ১১ বৈশাখ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

গত বছর ছিল আওয়ামী জাহেলিয়াতের যুগ : মোশাররফ

নিউজ ডেস্ক:: বিএনপির সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণী ফোরাম জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, ‘গত বছরটি ছিল আওয়ামী লীগের পরিচালনায় একটি অন্ধকার যুগ। এই অন্ধকার যুগের নাম হচ্ছে আওয়ামী জাহেলিয়াতের যুগ।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রত্যাশা, সেই অন্ধকার থেকে আলোর পথে প্রবেশ করতে চাই। আগামী বছর, বিগত বছরে যে জঞ্জাল গ্লানি সব মুছে দিতে হবে। এজন্য আগামী একাদশ জাতীয় নির্বাচন সুষ্ঠু নিরপেক্ষ ও নির্দলীয় সরকারের অধীনে হতে হবে। নির্বাচন নির্বাচনকালীন একটি নির্দলীয় সরকার থাকতে হবে, সংসদ ভেঙ্গে দিয়ে সেনাবাহিনীকে রাখতে হবে।’

শনিবার বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন দলের এই জ্যেষ্ঠ নেতা।

বিএনপির সাংস্কৃতিক সংগঠন জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থা ‘জাসাস’ কেন্দ্রীয় কমিটি ‘বাংলা-১৪২৫’ বরণ করতে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

বিএনপির এই ধরণের জাতীয় পর্যায়ের কর্মসূচিতে সাধারণত চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকেন। কিন্তু গত ৮ ফেব্রুয়ারি একটি দুর্নীতি মামলায় কারগারে যাওয়ায় তার স্থলে খন্দকার মোশাররফ হোসেনকে প্রধান অতিথি করা হচ্ছে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘আগামী বছর হোক এই মিথ্যার বিপরীতে সত্যের বিজয়ের বছর। আগামী বছর হোক স্বৈরাচারী গ্লানি মোচন করে গণতন্ত্রের বছর_জনগণেরই বিজয়ের বছর। আগামী বছর হোক বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে একটি জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠার বছর। আমরা আজকে শপথ নিতে চাই, নতুন বছরে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে একটি নির্দলীয় সরকারের দাবিতে। সংসদ ভেঙে দিয়ে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে সরকারকে বাধ্য করবো।’

বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘আমরা একটি জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করবো। আমরা নতুন বছরকে গণতন্ত্রের বিজয়ের বছর, বেগম খালেদা জিয়া বিজয়ের বছর_এ দেশের বিজয়ের বছর হিসেবে দেখতে চাই। বিগত যে বছর আমরা অতিক্রম করে এসেছি, ওই বছর এ জাতির জন্য একটা হতাশা, স্বৈরাচারী শাসন ও দুর্ভাগ্যের বছর। গত বছর বাংলাদেশের গণতন্ত্রের প্রতীক দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে অন্যায়ভাবে কারাগারে রাখা হয়েছে।’

সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, ‘যে বছরটি আমরা অতিক্রম করেছি, সেই বছরটি যে সরকার পরিচালনা করেছে_তাদের হাতে গণতন্ত্র হত্যা, মানুষের অধিকার ক্ষুন্ন, গুম, খুন, মিথ্যা মামলা দিয়ে বাংলাদেশে যে ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছে; সেই ভয়াবহ, অন্ধকার বছর আমরা অতিক্রম করে এসেছি।’

তিনি বলেন, ‘বর্তমান সরকারের আচরণ, চরিত্র ও কর্মকান্ডের কারণে এই সরকারকে বহির্বিশ্ব থেকে আন্তর্জাতিক স্বৈরাচারীর তকমা নিয়ে আসতে হয়েছে। এটা জাতির জন্য, আমাদের জন্য অত্যন্ত কলঙ্কের। যেখানে আমরা জাতিকে নিয়ে গৌরব করবো, সেখানে আমরা তকমা পেলাম স্বৈরাচারী দেশ হিসেবে। সরকার যিনি পরিচালনা করছেন, তিনি স্বৈরাচারিনী। এটা আমাদের জন্য গৌরবের নয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘অতিক্রম করা বছরটিতে ব্যাংক লুট, রিজার্ভ চুরি, শেয়ারবাজার লুট হয়েছে। দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে সাধারণ মানুষের নাভিশ্বাস উঠেছে, সাধারণ মানুষ বিপর্যস্ত জীবন যাপন করছে। সরকার ক্ষমতায় আসার পূর্বে মোটা চাল ১০ টাকা কেজি খাওয়াবে বলেছিল। তাদের আমলেই মোটা চাল ৬০ টাকা কেজি। সকল দ্রব্যমূল্যের কয়েক গুণ বৃদ্ধি পেয়েছে।’

খন্দকার মোশাররফ বলেন. ‘সরকার আবারও গায়ের জোরে ক্ষমতায় আসার জন্য, আমাদের নেত্রীকে কারাগারে রেখেছে। আমাদের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা দিচ্ছে। এমন কোনো নেতা কর্মী নাই যার বিরুদ্ধে মামলা, হামলা ও কারাগারে যেতে হয় নাই। এমনি একটি শ্বাসরুদ্ধকর পরিবেশের মধ্য দিয়ে আমরা গত বছরটি অতিক্রম করেছি।

জাসাস সাধারণ সম্পাদক হেলাল খানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে মির্জা আব্বাস, ইথুন বাবু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: