সর্বশেষ আপডেট : ৬ মিনিট ২০ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

কলকাতা-চেন্নাইয়ের ম্যাচে জুতা নিক্ষেপ

স্পোর্টস ডেস্ক::
কাবেরি নদীর পানি বণ্টন ইস্যুতে মঙ্গলবার চেন্নাই এবং কলকাতার ম্যাচে আন্দোলনকারীরা মাঠে জুতা-বোতল ছুঁড়ে মেরেছেন। ম্যাচের শুরু থেকেই মাঠের মধ্যে নানা জিনিস ছুঁড়ে মারেন তারা। এছাড়া আন্দোলনের সময় লাল পতাকা ধারণ করে তারা।

গ্যালারি থেকে ছুঁড়ে মারা জুতা পতিত হয় রবীন্দ্র জাদেজা, ফাফ ডু প্লেসিস ও লুঙ্গি এনগিডির খুব কাছে। ঘটনার পর দ্রুত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ আসে এবং তিনজন দুষ্কৃতিকারীকে আটক করে। আকস্মিক এমন মুহূর্তের পর পুরো স্টেডিয়ামে বিরাজ করে থমথমে অবস্থা।

ভারতের প্রতিবেশী দুই রাজ্য কর্ণাটক ও তামিলনাড়ুর মধ্যে বেশ কদিন ধরেই বিবাদ লেগে আছে কাবেরি নদীর পানিবণ্টন নিয়ে। ইতোমধ্যে পানিবণ্টন প্রসঙ্গে দেশটির সর্বোচ্চ আদালত বোর্ড গঠনের নির্দেশনাও দিয়েছে। কিন্তু সেই বোর্ড গঠন নিয়ে অনেকদিন ধরে চলছে গড়িমসি। আর এই ঢিলেমির কারণে ক্ষুব্ধ হয়েছে উঠেছে চেন্নাইয়ের রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক অঙ্গন। ইতোমধ্যে মাঠে নেমেছেন চেন্নাইয়ের প্রভাবশালী ব্যক্তিত্বরা। মাঠে রয়েছেন অভিনেতারাও।

এমন পরিস্থিতিতে চেন্নাইয়ের এম এ চিদাম্বরম স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত আইপিএলে কোনো প্রভাব পড়বে কি না- এ বিষয়টি ক্রিকেট অঙ্গনকে ভাবিয়ে তুলেছিল আগেই। চলমান রাজনৈতিক বৈরিতায় মাঠে থাকা প্রতিবাদীরা ঘোষণাও দিয়েছিলেন, ১০ এপ্রিল (মঙ্গলবার) চেন্নাই সুপার কিংসের আসরের প্রথম হোম ম্যাচ চলাকালে মাঠে প্রবেশ করবেন পতাকা হাতে নিয়ে!

এছাড়াও প্রতিবাদী কার্যক্রমে সামনে থাকা এক নেতা ভেলমুরগান রীতিমতো হুমকি দিয়েছিলেন চেন্নাই সুপার কিংসের খেলোয়াড়দের। তিনি বলেন, ‘আমরা জানি চেন্নাই দল এম এ চিদাম্বরম স্টেডিয়ামে অনুশীলন করছে। কিন্তু তাদেরও বুঝতে হবে রাজ্যের মানুষ সুখে নেই। খেলোয়াড়রা হোটেল থেকে বেরিয়ে শপিং করতে বা ঘুরতে যেতেই পারেন। কিন্তু সেখানে যদি কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে, তাহলে আমার বা আমার দলের সদস্যদের কোনও দায় থাকবে না। দলের সদস্যরা ইতোমধ্যেই ম্যাচের অনেক টিকিট কেটে রেখেছে। তারা স্টেডিয়ামের ভিতরেও বিক্ষোভ দেখাবে।’

রাজনীতির মাঠের এই বিতর্ক যাতে ক্রিকেট মাঠে প্রবেশ না করে, এজন্য পদক্ষেপ গ্রহণ করেছিল তামিলনাড়ু ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন। প্রথমে চেন্নাই সুপার কিংস ও কলকাতা নাইট রাইডার্সের মধ্যকার ম্যাচটি কেরালায় সরানো হবে কি না এমন চিন্তা করা হলেও পরবর্তীতে তামিলনাড়ু ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন ভরসা করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর উপরই। আর এরই ধারাবাহিকতায় মোতায়েন করা হয় চার হাজার পুলিশ সদস্য। তবে শেষ পর্যন্ত তা এড়াতে পারেনি স্টেডিয়ামের ভেতরকার অপ্রীতিকর ঘটনা।




এ বিভাগের অন্যান্য খবর




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: