সর্বশেষ আপডেট : ১৬ মিনিট ১২ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

‘লজ্জা-শরমের মাথা খেয়ে বলে দিলাম’

বিনোদন ডেস্ক::
মডেল-অভিনেত্রী ফারিয়া শাহরিন কিছু দিন আগেও বেশ আলোচনায় ছিলেন। মালেশিয়া থেকে দেশে ফিরে একটি বিভ্রান্তিমূলক মন্তব্য করে শোবিজ জগতে বিতর্কের সৃষ্টি করেন। মালেশিয়া প্রবাসী ফারিয়া গত সফরে মাত্র একটি নাটক করেই আবার মালেশিয়ায় উড়াল দেন। পড়ালেখার কাজে বর্তমানে সেখানেই রয়েছেন।

এরই মধ্যে নিজের একটি অনুভূতির কথা জানালেন ফারিয়া শাহরিন। অনেক বেশি প্রত্যাশা থাকা সত্বেও পুরস্কার না পাওয়ার কষ্টময় অনুভূতি কেমন, সেটাই যেন বললেন তিনি।

ফেসবুকের একটি স্ট্যাটাসে ফারিয়া লেখেন, একটা দুঃখের কথা শেয়ার করি। অনেক আগে থেকে করবো করবো করেও করিনাই। আজ লজ্জা-শরমের মাথা খেয়ে বলে দিলাম। আমি যখন বাংলালিংক কাস্টমার কেয়ার (কথা দিলাম) বিজ্ঞাপনটা করলাম, যেটার জন্য আমাকে মানুষ চিনে। সেই বছর আমি মানুষের প্রতিক্রিয়া আর উৎসাহ দেখে ধরেই নিয়েছিলাম ‘মেরিল প্রথম আলো পুরস্কার’-এ বেস্ট মডেল এইবার তো আমি হবোই।

ফারিয়া আরও লেখেন, আমি খুব এক্সাইটেড ছিলাম, কারণ মেরিল প্রথম আলো পুরস্কার আমার মনে হয় সঠিক বিচার-বিশ্লেষণ করে। যা একদমই পক্ষপাতমূলক না। কিন্তু হলো না। ‘বেস্ট মডেল’-এর পুরস্কার দেয়াই বন্ধ হয়ে গেলো তখন থেকে। আর আমার স্বপ্ন স্বপ্নই রয়ে গেলো।

স্ট্যাটাসে ফারিয়া আরও লেখেন, আর তো পূরণ হওয়ার কোনো সম্ভাবনাই মনে হয় নেই। কিন্তু যারা এই পুরস্কার জেতেন, তাদের ভাগ্য দেখে খুব হিংসা হয়। কিন্তু ভালোও লাগে যে, তারা তাদের কষ্টের পুরস্কারটা পেলো। দেখি বাচ্চা-কাচ্চা হলে ওরা যদি পায় আর কি তাও শান্তি লাগবে। হে হে …তবে আমি খুব খুশি মেহজাবিন ও অপূর্ব ভাই অ্যাওয়ার্ড পেয়েছে তাই। কারণ তারাই শতভাগ যোগ্য ছিলো। এজন্যই এই অ্যাওয়ার্ডটা এতো ভালো লাগে।


নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: